যুদ্ধক্ষেত্র থেকে ঘুরে আসুন, অতীতকে উপলব্ধি করুন, দেখুন – “The Thin Red Line”

the-thin-red-line_movie-poster-01

চলচ্চিত্রঃ The Thin Red Line (1998) 

পরিচালকঃ Terrence Malick

কাহিনী ও চিত্রনাট্যঃ  James Jones, Terrence Malick

মূল-ভাষাঃ ইংরেজি, ব্যাপ্তি/দৈর্ঘ্যঃ ১৭০ মিনিট

শ্রেষ্ঠাংশেঃ Jim Caviezel, Sean Penn, Nick Nolte.

জনর বা ধরণ: নাটক, যুদ্ধ [Drama, War]

পুরষ্কারঃ ৭ টি অস্কার নমিনেশন,  বিশ্বজুড়ে ২০ টি জয় এবং ১৯ টি মনোনয়ন

আইএমডিবি [IMDB] রেটিং- ৭.৬ এবং  ৭৮ রটেন টমাটু আর মেটাস্কোর

অফিশিয়াল ট্রেইলার দেখুনঃ ইউটিউবে

 

 

What’s this war in the heart of nature?

Why does nature vie with itself?

The land contends with the sea?

Is there an avenging power in nature?

Not one power, but two?

যুদ্ধ, কি? কেন? কার সাথে? প্রশ্ন জাগে মনে। কিন্তু উত্তর চাইব কার কাছে, সবাই কোনও না কোনও যুদ্ধে লিপ্ত, তাই প্রশ্ন ছুড়ে দেই প্রকৃতির কাছে। পাবো কি কোনও সদুত্তর? মনে হয় না। আমরাই তো প্রকৃতি। আমাদের মাঝেই সব, আমরাই আমাদের সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ি, সমুদ্র থেকে পাহাড়ে আমরাই যুদ্ধে লিপ্ত হই। আমরাই যুদ্ধে জয়লাভ করি, আমরাই হেরে যাই। প্রকৃতি কেবলই নিয়ামক শক্তি, এর আর কোনও শক্তি নেই, আমরা যেভাবে সেই শক্তিকে পরাভূত করি, সেভাবেই তা কখনো কল্যাণ কখনো ধ্বংস ডেকে আনে।

jim-caviezel-the-thin-red-line

এত সুন্দর পৃথিবী, যার মায়া ছেড়ে কেউ যেতে চাইনা, কিভাবে গড়ে উঠেছে তিল তিল করে? কখনো ভেবে দেখেছেন কি? আমাদের পূর্বপুরুষেরা কত সংগ্রাম করে আমাদের জন্য এত আরাম আয়েশ রেখে গিয়েছেন, কখনো ভেবেছেন? কত রক্ত, কত ধ্বংস, কত ত্যাগ-তিতিক্ষা, কত আনন্দ-বেদনা লুকিয়ে আছে এই সভ্যতার প্রতিটি ধূলিকণায়, কখনো চিন্তা করে দেখেছেন? জানি, ভাবেন নি কখনো, আমার কেউই ভাবিনা।

968full-the-thin-red-line-screenshot

একটি যুদ্ধক্ষেত্র, একটি সুসজ্জিত বাহিনী, কত গুলু মুখ, আমাদেরই পরিচিত মুখ। কারো ভাই, কারো বন্ধু, কারো স্বামী, কারো বাবা। হরেক রকম মুখ দেখা যায়, কঁচি মুখ, ভয়ার্ত মুখ, ভাবলেশহীন মুখ, কাঠিন্য ভরা মুখ, হাসি মুখ, কাঁদ কাঁদ মুখ, ভাবুক মুখ। কেউ গল্প করে, কেউ ঝগড়া করে, কেউবা প্রিয়জন কে মনে করে কিছুটা শক্তি পাওয়ার চেষ্টা করে। কেউ নেতৃত্বের প্রতি বিষোদ্গার করে, কেউ চুপ চাপ বসে থাকে, কেউ হুঙ্কার দিয়ে যুদ্ধ প্রস্তুতি নিতে থাকে। প্রস্তুতি শেষ হলেই নেতার পিছু পিছু ছুটে যায় যুদ্ধের ময়দানে। সব ভয়, স্মৃতি পেছনে ফেলে রণহুঙ্কার দিয়ে বীরদর্পে ছুটে যায় শত্রু শিবিরে।

No matter how much training you got,

how careful you are,

it’s a matter of luck

whether or notyou get killed.

Makes no difference who you are,

or howtough a guy you might be,

if you’re in the wrong spot

at the wrong time, you’re gonna get it.

thin-red-2

শুরু হয়ে যায় যুদ্ধ। নির্মম সে যুদ্ধ, মানুষে মানুষে যুদ্ধ। কেউ বীরদর্পে লড়ে যায়, কেউ ভয়ে ভয়ে থাকে, কেউ আদেশ দিতে থাকে, কেউ বুদ্ধি খাটিয়ে চলে, কেউবা আবার বেঘোরে মারা পরে। কেউ হাত-পা হারিয়ে তীব্র যন্ত্রনায় চিৎকার দিতে থাকে, কেউ চুপ করে পড়ে থাকে, কেউ যন্ত্রণা লাঘবে নিজেকে শেষ করে দেয়। কেউ তাকিয়ে তাকিয়ে দেখে, কেউ আহতকে সহায়তার জন্য ছুটে যায়, কেউ তারস্বরে চিৎকার দিতে থাকে, গুলি চালাতে থাকে, দিগ্বিদিক জ্ঞানশূন্য হয়ে পড়ে। জাহান্নামও বুঝি এতটা ভয়াবহ হবেনা?

This great evil. Where does it come from? How’d it steal into the world? What seed, what root did it grow from? Who’s doin’ this? Who’s killin’ us? Robbing us of life and light. Mockin’ us with the sight of what we might’ve known. Does our ruin benefit the earth? Does it help the grass to grow, the sun to shine? Is this darkness in you, too? Have you passed through this night?

The-Thin-Red-Line

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ, জাপানের দখলকৃত গুয়াদাল্কানাল দ্বীপ উদ্ধারে যায় আমেরিকার সৈন্য বাহিনী। দ্বীপটি ভূগলিক ভাবে আমেরিকার জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু ওইখানে যেয়ে পদাতিক বাহিনী ভয়াবহ বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়। কারণ জাপানীরা এমন অবস্থানে আছে যে উপর থেকেই সব তাদের কাছে দৃশ্যমান, অবস্থানগত সুবিধা পুরোপুরি তাদের। পদাতিক বাহিনী খুবই সঙ্কটের মাঝে পড়ে যায়, কি করবে ভেবে পায়না, নেতৃত্ব সঙ্কটও তাদের গ্রাস করে ফেলে। কতক্ষণ এভাবে চলবে? কি হবে? বেঁচে ফিরবে তো তারা?

সব জানতে হলে আজই দেখে ফেলুন “দা থিন রেড লাইন” নামক ভয়াবহ সুন্দর মুভিটি। যুদ্ধের নির্মমতায় গায়ের লোম কাটা দেওয়া এই মুভিটি দেখলে আপনি কিছুটা হলেও আপনার পূর্বপুরুষদের বীরগাঁথা উপলব্ধি করতে পারবেন। কতটা সংগ্রাম –রক্তের বিনিময়ে আজকের এই সভ্যতা পেয়েছি আমরা তার একটু আলোকচ্ছটা এই মুভিটা।

Love,

Where does it come from?

Who lit this flame in us?

No war can put it out,

conquer it.

the-thin-red-line (1)

একঝাঁক পরিচিত তারকার এক অভূতপূর্ব সম্মিলন। দুর্দান্ত ক্যামেরার কাজ, শক্তিশালী স্ক্রিনপ্লে, চমৎকার লোকেশন, তারকাদের ক্যামিস্ট্রি সব মিলিয়ে অসাধারণ। ওয়ার মুভির প্রতি আকর্ষণ থাকলে এইটা আপনার জন্য আদর্শ, ওয়ার মুভি ভালো না লাগলেও এইটা ভালো লাগবে আপনার, এতটকু আমার বিশ্বাস।

thinredline

(Visited 62 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১৪ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. প্রফেসর মরিয়ার্টি প্রফেসর মরিয়ার্টি says:

    চমৎকার!

  2. মাইকেল ফ্রান্সিস করলিয়নে says:

    চমৎকার মুভির চমৎকার লেখা… দেখতে হবে… 😛 🙂

  3. James Bond says:

    বেশ ভালো লাগলো পড়ে, ভালো লিখেছেন 🙂

  4. নো এইমস says:

    অনেক ভালো লাগলো পড়ে… আর এত্তগুলা তারকা!! দেখতেই হবে।

  5. টাইলার ডারডেন says:

    casting is the plus point here….. watch-listed 🙂

  6. পথের পাঁচালি পথের পাঁচালি says:

    আপনার ইনফরমেশনগুলো ভালো লাগে। এখা সুন্দর হয়েছে। ধন্যবাদ শেয়ার করার জন্য।

  7. অ্যান্থনি এডওয়ার্ড স্টার্ক says:

    দেখবো। 🙂

    পোস্ট ভালো পাইলাম। 🙂

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন