Finding Dory: বহুল প্রতিক্ষিত সিক্যুয়েল
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

সাগরের নিচের জগতের অসাধারণ দম বন্ধ করা সৌন্দর্য (pun intended) ফুটিয়ে তোলা প্রথম ত্রিমাত্রিক অ্যানিমেশন চলচিত্র হল Finding Nemo। তখনকার দিনের প্রযুক্তি দিয়ে এই মুভি বানানো ছিলো বড় রকমের চ্যালেঞ্জের বিষয়। গ্রাফিক্স এডিটররা নিজে স্কুবা ডাইভিং করে আর ওশানোলজি নিয়ে বিস্তর লেখাপড়া করে সেই জগৎ ফুটিয়ে তুলেছিলেন।

২০০৩ সালে মুক্তি পাওয়া সেই Finding Nemo এরই সিক্যুয়েল এবং স্পিন-অফ হল Finding Dory। প্রথম পর্বে নিজের হারিয়ে যাওয়া একমাত্র ছেলে নিমোকে উদ্ধার করার জন্য মার্লিন নামের এক ক্লাউনফিশ পরিচিত হয় ডোরি নামের এক নীল ট্যাংফিশের সাথে। ডোরির আবার ১০ সেকেন্ড পরপর মেমোরি লস হয়।তবুও তার সাহায্য নিয়ে মার্লিন নিমোর ঠিকানা জেনে নিয়ে ঠিকই তাকে খুঁজে বের করে। সেই ঘটনার এক বছর পরে নিমোর ক্লাস নেবার সময় ডোরির আবছাভাবে মনে পড়ে যায় যে, ছোটবেলায় সে তার মা-বাবার কাছে থেকে হারিয়ে গিয়েছিল। তাই সে মার্লিন আর নিমোর সাহায্য নিয়ে কাছিম ক্রাশের পিঠে চড়ে অভি্যান চালায় মেরিন লাইফ ইনস্টিটিউটে (ক্যালিফোর্নিয়ার মন্টেরে বে অ্যাাকুরিয়ামের আদলে বানানো), যেখানে আছে হাজারো সামুদ্রিক প্রাণীর সমাবেশ। সেখানে ডোরি ভুল করে এক ভয়ঙ্কর স্কুইডকে জাগিয়ে দেয়।সেই স্কুইড তাদেরকে এমনভাবে তাড়া করে যে আরেকটু হলেই নিমো ঐ স্কুইডের পেটে চলে গিয়েছিল! এই নিয়ে মার্লিন ডোরিকে বকা দিলে ডোরি মন খারাপ করে আলাদা হয়ে যায় আর দুর্ঘটনাক্রমে ইনস্টিটিউটের স্টাফদের হাতে পড়ে যায়। শুরু হয় ডোরির আলাদা অভিযান। এদিকে মার্লিন আর নিমো সবার সাহায্য নিয়ে খুঁজতে থাকে ডোরিকে।

মুভির অন্যতম প্রধান আকর্ষণ হল, বেবী ডোরি আর তার ফ্ল্যাশব্যাক।আছে সী লায়ন, তিমিমাছ , মনমরা অক্টোপাস হ্যাঙ্ক আর ডোরির বাল্যবন্ধু তিমি হাঙ্গর ডেসটিনি।  আগের পর্ব থেকে আছে সীগালেরা, এছাড়া নিমোর বন্ধু অ্যাকুরিয়ামের মাছেরাও আছে ক্যামিও চরিত্রে।পুরো মুভিতে যেমন আছে টানটান উত্তেজনা, তেমনি হিউমারাস ডায়লগেরও অভাব নেই।ডোরির ভুলে যাওয়া রোগ বেশিরভাগ সময় হাস্যরসের কারণ হলেও শেষ পর্যন্ত এই মুভির মেসেজ , যে কারো অক্ষমতাই শেষ পর্যন্ত তার শক্তি।

মার্লিন আর ডোরির ভূমিকায় কন্ঠ দিয়েছেন যথারীতি অ্যালবার্ট ব্রুকস আর এলেন ডিজেনারাস। মজার ব্যাপার হল, এইবার নিমোর কণ্ঠ দেয়া হেইডেন রোলেন্সের জন্মই হয়েছে Finding Nemo মুক্তি পাওয়ার পরে।এছাড়াও ইদ্রিস এলবা,ডমিনিক ওয়েস্ট, ডায়ানে কিটন, টাই বুরেলের মত নামী অভিনেতাদের কন্ঠও শোনা যাবে।

জুন মাসে মুক্তি পেয়ে Finding Dory বিশ্বব্যাপী আয় করেছে ১ বিলিয়ন ডলারের উপরে।

রোটেন টম্যাটোসঃ ৯৪%

আমার রেটিংঃ ৯.৫/১০

তবে এই বছরের অস্কার দৌড়ে Zootopia আর Finding Dory এর মাঝে আমি Zootopia কেই এগিয়ে রাখব।

Link: https://yts.ag/movie/finding-dory-2016

Finding Dory (2016)
Finding Dory poster Rating: 7.7/10 (70,541 votes)
Director: Andrew Stanton, Angus MacLane
Writer: Andrew Stanton (original story by), Andrew Stanton (screenplay), Victoria Strouse (screenplay), Bob Peterson (additional screenplay material by), Angus MacLane (additional story material by)
Stars: Ellen DeGeneres, Albert Brooks, Ed O'Neill, Kaitlin Olson
Runtime: 97 min
Rated: PG
Genre: Animation, Adventure, Comedy
Released: 17 Jun 2016
Plot: The friendly but forgetful blue tang fish begins a search for her long-lost parents, and everyone learns a few things about the real meaning of family along the way.

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন