মুভি রিভিউঃ Batman v/s Superman: Dawn of Justice [NO SPOILERS]

Batman v Superman: Dawn of Justicebatmanvsuperman
Genre: Action, Superhero

রটেন টমেটোর ক্রিটিক রেসপন্স দেখে বেশ স্কেপ্টিকাল ছিলাম মুভিটা নিয়ে, কেমন হয়, না হয়ে এ নিয়ে ব্যাপক টেনশন ছিলো একজন সুপারহিরো জন্রার ফ্যান হিসেবে। লেট মি টেল ইউ, ডিসি সিনেম্যাটিক ইউনিভার্সের ফাউন্ডেশন গেথে দিয়েছে এই মুভিটা। Yes, its not everybodies cup of tea, but damn its a goddamn awesome cup of tea.

মুভির প্লট নিয়ে কিছু আলাপ করবো না, যারা ডিসির মুভি দেখে অভ্যস্ত, অ্যানিমেটেড, লাইভ একশন অ্যালাইক, কি ঘটবে না ঘটবে তারা- আপনারা কম বেশীই জানেন। আর না জানলেও সেকেন্ড ট্রেইলারের কল্যানে তা জেনে গেছেন। That’s right kids, welcome to your first DC story.

এই মুভির সবচেয়ে মেজর প্লাস পয়েন্ট হচ্ছে ক্যারেক্টার ডেভেলপমেন্ট। মুভির প্রত্যেকটা মেজর চরিত্রকে স্ক্রিনটাইম ভরার জন্য না, গল্পের প্রগ্রেসনের প্রয়োজনে প্লটে ব্যবহার করেছে ডিরেক্টর। আর একেক্টা ক্যারেক্টাররে মোটিভেশন ছিলো প্লট জাস্টিফাইড। প্রথমেই আসি সুপারম্যানের কথায়। মেট্রোপোলিসের ঘটনার আফটারম্যাথে সুপারম্যান নিজেকে পৃথিবীর রক্ষক হিসেবে নিজেকে মানিয়ে নেয়ার চেষ্টায় আপ্রাণ। দুনিয়াবাসির কাছে নিজেকে এক্সসেপ্ট করে নেয়ার নীরব কান্না যেন। আর এই ব্যাপারটাকে সুন্দর করে ফাটিয়ে দিয়েছে কাভিল মামা। লেক্স লুথরকে আমরা যে ভিলেন হিসেবে জানি ও চিনি তাকে আসলে সেরকমের মনে হয়নি। তাকে অনেকটা গল্পের অ্যান্টিহিরোই মনে হয়েছে। একজন ADHD আক্রান্ত অ্যান্টিহিরো, যার “শান্ত” শব্দটা ডিকশনারিতে নাই। খালি ফুলঝুড়ি পটকার মতন পুতুর পুতুর করে গিয়েছে তার পুরা স্ক্রিনটাইম। গল্পের সিনাইল সার্কাস্টিক ক্যারেক্টারের রোলে ছিলো আলফ্রেড জে পেনিঅর্থ। মাইকেল কেইনের আলফ্রেড ছিলো ইন্সপাইরেশন্যাল। কিন্তু জেরেমি আইরনের আলফ্রেড ছিলো সেই সার্কাস্টিক আলফ্রেড যাকে ডিসির বিভিন্ন অ্যানিমেটেড সিরিজ আর মুভিতে দেখা গিয়েছিলো। যদিও অ্যাপিয়ারেন্স ওয়াইজ একটু ইয়াং এবং বেখাপ্পা।

Superman

সবচেয়ে অকয়ার্ড রকমের হাস্যকর লেগেছে ওয়ান্ডার ওম্যান এর ব্যাপারটা। ডিসির সবচেয়ে মিস্টেরিয়াস ক্যারেক্টার ব্যাটম্যান থেকেও ওয়ান্ডার ওম্যান এর ক্যারেক্টার বেশীই মিস্টেরিয়াসলি পোর্ট্রেট করেছে এই মুভিতে। লিট্যারালি, আই মিন লিট্যারালি গ্যাল গ্যাডোটের ক্যারেক্টারটার কোনো নাম বা সুপারহিরো কোডনেইম ব্যবহার করা হয়নি মুভিটাতে। লাস্ট বাট নট লিস্ট, দা মুথাফুকিন ব্যাটম্যান! কাস্ট করার পরের মুহুর্ত থেকে সকলেই সন্দিহান ছিলো বেন অ্যাফ্লেককে নিয়ে, কিন্তু সে একদম ফাটিয়ে দিয়েছে, কি সেটা ব্রুসের চরিত্রে, কি বা ব্যাটম্যানের চরিত্রে। ব্রুস ওয়েইন হিসেবে অ্যাফ্লেকের একমাত্র রাইভাল ধরা যেতে পারে কেভিন কনরয় কে। কিন্তু এই ব্যাটম্যান আপনার দেখা দশটা ব্যাটম্যানের চেয়ে অনেক অনেক ভিন্ন। ব্যাটম্যানের ক্যারেক্টার মোটিভেশন ছিলো ভিন্ন, এই ব্যাটম্যান অভিজ্ঞ, জ্ঞানি, এবং রুথলেস, ক্ষমাহীন। এর ডিকশনারিতে মাফ শব্দটা নাই। এর ক্রসহেয়ারে পরসুইন তো মরসুইন। গুড আর ইভিলের মাঝের সিল্ভার লাইন তথা টোয়াইলাইট জোনে চলাফেরা এই হারবিঞ্জার অফ জাস্টিসের।

Batman aa

গল্পের বিল্ডআপ শুরুর কোয়ার্টারে বেশ স্লো ছিলো। প্রয়োজনের চেয়ে বেশী স্লো। সেকেন্ড কোয়ার্টার থেকে এসে একদম পুষিয়ে দিয়েছে। প্লটের র‍্যাপিড ডেভেলপমেন্টের শুরু এইখানেই। এরপরে মনে হয়েছে যেনো ফ্লাশের গতিতে দৌড়াচ্ছে মুভিটা। ধুম ধাম একশন, প্লট ডিভাইস দিয়ে সাজানো মুভিটা একদম মনের সুপ্ত বাসনা(!) পুর্ন করে দিয়েছে। তবে ডাউনসাইড বলতে এটাই, মুভির প্লটে এতো কন্টেন্ট ছিলো যে, প্রথম দিকে স্লো আর পরে এসে তা পুষিয়ে নিতে একটু বেশী তাড়াহুড়া হয়ে গিয়েছে। মুভির মেইন অ্যাট্রাকশন যেটার জন্য সকলে মুভিটা দেখতে আগ্রহী, তা একদম খাপে খাপ, ময়নার বাপ লেভেলের উসুল। আপনি যদি ডার্ক নাইট রিটার্ন্স অ্যানিমেটেড মুভি দুটো দেখে থাকেন, আপনাকে বলে দেই তার চেয়েও কয়েকগুন বেশী ভালো একশন হয়েছে এদের লাইভ একশন অ্যাডাপ্টেশনে। বি কিউরিয়াস, বি ভেরি কিউরিয়াস।

tumblr_l9yhnhaQCF1qzb0x0

অনেক ক্রিটিকদের কমপ্লেইন ছিলো মুভিটা নিয়ে যে মুভিটা বেশী ডার্ক থিমের। তবে আমার মতে মুভিতে পর্যাপ্ত লাইট(!) ছিলো। একটি ডিসি মুভি হিসেবে পর্যাপ্ত হিউমর অ্যাড করা ছিলো মুভিটাতে। এই একটা মুভির হিউমর নোলান টিলজি আর ম্যান অফ স্টিলের কম্বাইন্ড হিউমরের চেয়েও বেশী। Maybe its just me and my fellow DCmites, but we have a bad history with bozos dressed with all the colors of the rainbow. <cough marvel cough>. ডিসি এই মুভি দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে মানব সভ্যতায় মেটাহিউম্যানের আবির্ভাব হলে আসলেই কি রকমের রিয়েলিস্টিক প্রতিক্রিয়া হতো। আর এইরকম রিসোর্স আর ক্ষমতার অধিকারীরা কি ধরনের প্রভাব ফেলতে পারে।

2219e42c141682901195333244_700wa_0

তবে মুভিটা একটু বেশীই ডার্ক ছিলো কালার কারেকশনওয়াইজ স্পিকিং , হতে পারে এইটা সিনেপ্লেক্সের দোষ, হতে পারে সেটা আমার থ্রিডি চশমার দোষ, হতে পারে সেটা আমার চোখের দোষ। তবে বেশ অন্ধকার ish ছিলো অভারল মুভিটা। তবে সাউন্ড, হোলি শিট, মাদার অফ ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক। মিউজিক কম্পোজের কথা বাদ দিলাম, উক্ত মিউজিক তার অ্যাপ্রোপ্রিয়েট সিনে যে কি দক্ষতার সাথে ইউটিলাইজ করেছেন ডিরেক্টর তা বলে বুঝানোর না। হেইল স্নাইডার, হেইল জিমার, হেইল মাইন হাইড্র্যা!

মুভিতে কাস্ট করা বাকি সুপারদের নিয়ে কিছু বলবো না, খালি বলবো মুভিটাতে রয়েছে শত শত ডিসি ইস্টার এগ। রয়েছে আইকনিক সকল স্টোরিলাইনের রেফারেন্স, অ্যাডাপ্টেশন আর প্লট ডিভাইস। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বলতে রেড সন, সুপারম্যান ডুমসডে, ফ্ল্যাশপয়েন্ট প্যারাডক্স, নিউ ৫২ উল্লেখযোগ্য। আরো হয়তোবা আছে, আমার আধুনা চোখে পরেনি আরকি।

বটমলাইনঃ একশনে ভরপুর মুভি, পয়সা উসুল, একশন প্রেমীদের জন্য ভালো মুভি, সিম্পল স্টোরিলাইন, ডিসি ফ্যানদের ওয়েট ড্রিম। মার্ভেল ফ্যানদের পাইপ ড্রিম। মাস্ট ওয়াচ, সলিড ৮.৫/১০।

Batman v Superman: Dawn of Justice (2016)
Batman v Superman: Dawn of Justice poster Rating: N/A/10 (N/A votes)
Director: Zack Snyder
Writer: David S. Goyer (story), Zack Snyder (story), Jerry Siegel (Superman created by), Joe Shuster (Superman created by), Bob Kane (Batman created by), Chris Terrio, Bill Finger (Batman created by), David S. Goyer (screenplay)
Stars: Jason Momoa, Gal Gadot, Henry Cavill, Amy Adams
Runtime: N/A
Rated: N/A
Genre: Action, Adventure, Fantasy
Released: 25 Mar 2016
Plot: The plot is unknown.

(Visited 111 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ৫ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. pakkuvai says:

    নোলানের ট্রিলজির তুলনায় কেমন হয়েছে?
    বেল এর জায়গায় আ্যাফ্লেককে মানাবে ধারণা করেইছিলাম।
    সুন্দর রিভিউ,, প্রথমদিনেই পেয়ে গেলাম-থ্যাংক্যু 🙂

    • শাহরিয়ার লিমু শাহরিয়ার লিমু says:

      দুটো দুই লেভেলের, একটা দিয়ে আরেকটাকে জাজ করতে গেলে সমস্যা। তবে নোলানের চেয়ে স্নাইডারেরজন অনেক অনেক অনেকগুন ভায়োলেন্ট। Its like, he is tired of everyone’s shits. :p

  2. Momen Hasan says:

    Boss Nolan director thakle vlo hoto….sbire diya sb kichu hoi na

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন