রিভিউঃ The Grand Budapest Hotel

grand_budapest_hotel_ver2_xlgThe Grand Budapest Hotel

জনরাঃ কমেডি

আইএমডিবি রেটিং: ৮.৪

রিলিজ ডেটঃ ২৮শে মার্চ ২০১৪

রানটাইমঃ এক ঘন্টা চল্লিশ মিনিট

 

একজন মুভিপ্রেমী হিসেবে বিগত কয়েকমাস ধরে "মুভি ব্লক" এ সাফার করছিলাম। হলিউড, ব্রিটিশ ও ফরেইন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিগুলো এমন এমন ফিল্ম আমাদের সামনে উপস্থাপন করে আসছে যার টাইটেল কার্ড দেখলেই বুঝা যেতো যে এটা চলচ্চিত্রর নামে ব্যবসায় করার জন্যই প্রডিউস করা। আর ক্লিশে প্রেডিক্টেবল মুভের কথা নাই বললাম। দশ নাম্বার সিন দেখে তেরো নাম্বার সিনে কি হবে তা না দেখেই বলে দেয়া যায়। যাইহোক, এরকমের মাথে খেয়ে দেয়া মুভি ডিপ্রেশনে ভোগার অনেক অনেক দিন পর আজকে এই মুভিটার ব্লুরে রিলিজ হয়ে গেলো এবং সাথে সাথে দেখে ফেললাম। And I must say, Extraordinary!

Stefan Zweig এর লেখা থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে এই মুভিটা লেখা হয়। মুভির গল্প "গ্র্যান্ড বুদাপেস্ট" নামের বিখ্যাত হোটেলের চিফ অফ স্টাফ গুস্তাভ এইচ এবং সেই হোটেলের লবি বয় জিরো মোস্তফা কে নিয়ে। যারা একটি হাস্যরস গল্পের মাধ্যমে তুলে ধরে একটি পারিবারিক ষড়যন্ত্রের স্যাটায়ারিক রিপ্রেজেন্টেশন…

এক কথায়, মুভির গল্পটি অসাধারণভাবে এক্সিকিউট করা হয়েছে। মুভির ন্যারেটিভ এতোটাই ভালো লেগেছে যে আমি যতোটা রেটিং দিবো তার সত্তুর ভাগ শুধু এই ন্যারেটিভের জন্যই প্রাপ্ত। ডবল ফ্ল্যাশব্যাকের ভিতর দিয়ে পুরা মুভির কাহিনী দর্শকদের সামনে টেনে এনে তুলে ধরা হয়েছে যেটা আমার নজরে বেশ অসাধারণ লেগেছে। মুভির মন্তাজে ব্যবহার করা হয়েছে ক্ল্যাসিক স্টাইলের আমেজ, কিছুটা নিয়ো ফিল্ম নইরের ব্যবহারও দেখা গিয়েছে যা সাধারণত কমেডি মুভিতে এর আগে দেখা যায়নি। ভিন্টেজ চেজিং শট, সিলোহুয়েটের ব্যবহার আর সিম্বোলিজমের কারণে মুভির হিউমর ফ্যাক্টর কয়েকগুনে বেড়ে গিয়েছে। যদিও মুভির জন্রাতে শুধুই "কমেডি" উল্লেখ করা, এখানে কমেডির পাশাপাশি রয়েছে থ্রিলার, তবে অবশ্যই কমেডির আমেজে। আর এমনিতে একজন দর্শক সাধারণত কমেডি বলতে যা বুঝে এই মুভিতে সেইভাবে কমেডির ব্যবহার করা হয়নি। একধরনের কমেডি আছে যেটার ফলে আপনার হাসি একান থেকে ওকান হয়ে যায়। আবার আরেক লেভেলের কমেডি আছে যা আপনাকে ইন্টেলেকচুয়ালি হিউমর দেয়। এটা সেই "ইন্টেলেকচুয়ালি হিউমর" কমেডি মুভি। আর হয়তবা কুতকুতি দিয়ে হাসানো কমেডি মুভির চেয়ে এই মুভি দেখে বেশীই ইঞ্জয় করেছি। মুভির ডায়লগের ভারিক্কিতেও কমেডি পাওয়া গেছে, মুভির বেশীরভাগ কমেডিক এলিমেন্ট ফিজিক্যাল প্রপার্টির চেয়ে মৌখিক প্রপার্টিতেই বেশী দেয়া হয়েছে। ডায়লগের জায়গায় জায়গায় ছিলো পাঞ্চলাইন, ছিলো হিউমর আর ছিলো প্লট ডিটেইল।

the-grand-budapest-hotel-movie-still-5

মুভির আর্ট আর সেট ডিরেকশনও বেশ পছন্দের হয়েছে। পুরা আর্ট ডিপার্টমেন্ট সকলভাবে মুভির পটভুমিকে স্ক্রিনের সামনে বাস্তবরুপি করে তুলে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে। মুভির কিছু কিছু শটে ব্যবহার করা হয়েছে সিজিআই যা অতোটা মানসম্পন্ন বলে মনে হয়নি। অনেকটা কার্টুন কার্টুন লেগেছে। আর হয়তবা এরই জন্য চেজিং সিনগুলোতে একটা টম এন্ড জেরি স্টাইলের মাল্টি ডাইমেনশন্যাল ফিলিং পেয়েছি। বেশ কিছু ইনডোর সেটের কাজে আলোর ব্যবহার এতোটাই ভালো হয়েছে যে বলার বাহিরে। আর প্রপ্স এর প্লেসমেন্ট তো আছেই।

www.indiewire.com

রবার্ট ডি ইয়োমানের প্রচেষ্টায় এই মুভিতে দেখতে পেয়েছি অসাধারণ সিনেম্যাটোগ্রাফির কাজ। ক্যামেরার জাদুখেলার কারণেই যেনো আরেকটু বেশীই ভালো লেগেছে মুভিটা। আয়না দিয়ে অ্যাঙ্গুলার শট, টপ শট, ট্র্যাকিং শট, রেলস্টেশনের ট্র্যাকিং শটটা যেনো পুরাই একটা আলাদা আমেজ এনে দিয়েছে মুভিটাতে। এমনকি মুভিটাতে মিস-এন-সিনেরও একটি ব্যবহার দেখা গিয়েছে মুভির প্রথমদিকে লবির সিনে। যার সম্পুর্ন ক্রেডিট সিনেম্যাটোগ্রাফার ইয়োমেনেরই প্রাপ্য। আর এডিটিং এ ফ্ল্যাশব্যাক আর বর্তমান সময়কে ৪:৩ আর  ১৬:৯ ফ্রেম রেশিও দিয়ে ভাগ করে দেখানোর বিষয়টাও বেশ ভালো লেগেছে।

মুভির কাস্টটা সেইমাপের হেভিওেট। প্রটাগনিস্ট গুস্তাভের চরিত্রে আছে র‍্যালফ ফিন্স। অনেকে তাকে লর্ড ভলদেমোর্ট নামেও চিনে থাকেন। তার চরিত্রটা একজন সুপার পার্ফেক্ট হোটেল স্টাফ চিফের যে কিনা মন জয় করে নিয়েছে সেই হোটেলের গেস্ট দের। গেস্টরা হোটেলের সুনামের কারণে হোটেলে আসে না, আসে গুস্তাভের সঙ্গ পেতে। গুস্তাভ এমনিতে একজন কন্ট্রল ফ্রিক, নিজেও পরিপাটি। সেকেন্ডারি প্রটাগনিস্ট হিসেবে আছে টনি রেভলরি, যার চরিত্রের নাম জিরো মোস্তফা। হোটেলে লবি বয়ের চাকুরীতে আসলেও পরে তার পাশাপাশি গুস্তাভের পার্সোন্যাল অ্যাসিস্ট হিসেবেও সে কাজ শুরু করে। এই দুইজনেরই ক্যামেস্ট্রি আপনাকে মুভির বিনোদনের খোড়াক যোগান দিবে। এর পাশাপাশি সাইড চরিত্রে আছে জুড ল, বিল মুড়েয়, এডওয়ার্ড নর্টন, এড্রিয়ান ব্রুডি, উইলিয়াম ডাফোয়ে ও ওয়েন উইলসন সহ আরো অনেকে। এদের বেশীরভাগেই ছোট চরিত্রে কাজ করেছেন। এতোটাই ছোট যে, সেটাকে গেস্ট অ্যাপিয়ারেন্স বললে কেউ ভুল করবেন না।

মুভিটি আইএমডিবির বর্তমান ডেটাবেইজ অনুযায়ি টপ ২৫০তে ১২২ নাম্বার স্থানে নিজেকে বসিয়ে ফেলেছে, পচা টমেটো তথা রটেন টমাটোস এ ৯২% ফ্রেশ আছে এখনও। মুভিটির ডিরেকশনে আছে ওয়েস অ্যান্ডারসন, যে কিনা মুনরাইজ কিংডম, রাশমোর আর দ্যা ফ্যান্টাস্টিক মিস্টার ফক্স এর মতন মুভির জন্য পরিচিতি লাভ করে। এখন থেকে এই মুভির ভিতর দিয়েও সে পরিচিত হয়ে থাকবে মুভি মহলে।

ইন্টেলেকচুয়াল হিউমরের খোঁজে থাকলে এই মুভিটি আপনারই জন্য। যথাসম্ভব দেরী না করে দেখে ফেলুন। না দেখলে একটা চরম রকমের মাস্টারপিস থেকে বঞ্চিত হবেন। মুভিটির সকল দিক বিবেচনা করে দেখে মুভিটিকে আমি রেটিং দিচ্ছি ৮/১০…

মুভিটির ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://bioscopeblog.net/i_MAN/25373

তা দেরী না করে জলদি দেখে ফেলুন, হ্যাপি শেয়ারিং।

(Visited 129 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ৬ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. তানিয়া says:

    আজকে ডাউনলোড দিয়েছিলাম, তোমার রিভিউ পড়ে বুঝতে পারছি গরম গরম দেখে ফেলতে এই মুভি, ফেলে রেখলে পরে পস্তাবো মনে হয় 😛  অনেক দিন পরে কোন মুভির সব দিক এতো ভালো হয়েছে 🙂

  2. পান্থ পান্থ says:

    ওয়েল আই হ্যাভ নেভার বিন ডিজাপয়েন্টেড উইদ অ্যা ওয়েস অ্যান্ডারসন ফিল্ম।স্টিভ জিসু বা রাশমোর প্রথম দিকে দেখার সময় হিউমার বুঝার বয়স ছিল না,বাট আই গট অ্যালং উইদ দোজ অ্যাজ দ্য টাইম পাসড বাই -_- দ্য গ্রান্ড বুদাপেস্ট হোটেল ওয়াজ নো এক্সেপশন।সিম্পপ্লি অ্যা মাস্টারপিস অফ স্মার্ট ফিল্মমেকিং বাই দ্য স্মার্টটেস্ট ফিল্মমেকার অ্যালাইভ টুডে, অ্যান্ড আ ডিসপ্লে অফ অ্যাক্টিং মাস্টারক্লাস; অ্যান্ড আই অ্যাম হিজ বিগেস্ট ফ্যান ইউ নো… সুজাইদাররে দিয়ে চারটে ওয়েস অ্যান্ডারসনের ফিল্মের ব্লুরে এনকোডাইছি ঘ্যান ঘ্যান করে 😉

    বাই দ্য অয়ে,পোস্টের জন্য এক মুঠো ঠাণ্ডা হাওয়া ব্রাদার 😀

  3. পথের পাঁচালি পথের পাঁচালি says:

    দারুন রিভিউ! গরম গরম। এমনিতেই দেখার জন্য অস্থির হয়েছিলাম। এখন রিভিউ পড়ে তো আরো অস্থির। 🙂

  4. ট্রিপল এস ট্রিপল এস says:

    অস্থির রিভিউ। কিন্তু একটু ছোট করে লিখছো মনে হচ্ছে এবার… অবশ্য ছোট করে লিখলে পড়তে সুবিধা… 

  5. সামিয়া রুপন্তি says:

    আগে দেখে নেই, তারপর পড়ব। এইটা ডাউনলোড করব দেখে কয়েকদিন ধরে আমাকে অনেক হাবিজাবি জিনিস দেখে হার্ডডিস্ক খালি করতে হচ্ছে!

  6. স্টয়িক says:

    দেখার জন্য বসে আছি অনেকদিন। সুযোগ পেলেই গিলবো

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন