অনন্যতার নাম মুঘল এ আযম (ট্রিভিয়া)

একটা মুভি আমরা কেন মনে রাখব?হোকনা কেন সেটা মুক্তির আরও শত বছর পর।হ্যা,এ এরকম বেশ কিছু রত্ন বিশ্ব চলচ্চিত্রের ভাণ্ডারে আছে যে গুলো দিন দিন আরও চির সবুজ হচ্ছে,আবেদন বাড়ছে ।হলিউডের হিসেব কষলে তালিকা একটু লম্বা হবে বলিউডের তুলনায় ।তবে বলিউডও কিছু অমূল্য রত্ন আবিষ্কার করেছে।তার মধ্যে মুঘল এ আযম কে অন্যতম বা সেরা বললে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা কম থাকে।মুঘল এ আযম এ কি আছে?সোজা হিসাব-ইউনিক স্টোরি,ডায়ালগ,অমরত্ব পাওয়া কিছু গান এবং আরও অনেক কিছু।আজ লিখতে চাই এই কালজয়ী চলচ্চিত্রের ট্রিভিয়া নিয়ে।অনেক ট্রিভিয়া আছে তার মধ্যে কিছু তুলে ধরছি।

  • মুঘল এ আযম এর কাজ শেষ হতে সময় লেগেছিল ১৬ বছর ।
  • এই মুভির অরিজিনাল cast এ ছিলেন সাপ্রু,চন্দ্রমোহন এবং নার্গিস।শুটিং চলাকালীন চন্দ্রমোহন মারা যান যার ফলে পরিবর্তন হয় অনেক কিছুই।নতুন করে আসেন পৃথ্বীরাজ কাপুর ,দিলিপ কুমার এবং মধুবালা ।
  • পোশাক বানানোর জন্য দর্জি আনা হয়েছিল দিল্লী থেকে,হায়াদ্রাবাদের কারিগররা বানিয়েছিলেন অলঙ্কার,কোহাল্পুর থেকে মুকুট,রাজস্থান থেকে অস্ত্র,ফুটওয়ার বানিয়েছিলেন আগ্রার কারিগরেরা ।
  • যুদ্ধক্ষেত্রর আবহ তৈরির জন্য ইন্ডিয়ান আর্মি থেকে নেয়া হয়েছিল ৮০০০ যোদ্ধা ।এছাড়াও ছিল ২০০০ উট, ৪০০০ ঘোড়া।এতসব আয়োজন ছিল প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয় এর অনুমতি সাপেক্ষে।mughal-e-azam-1960-k-asif
  • file
  • মুভির একটি scene e এ কৃষ্ণের একটি মূর্তি দেখানো হয় যা ছিল পুরোটাই স্বর্ণের তৈরি।এছাড়াও সেলিমের আগমন উপলক্ষে মেঝেতে মুক্তো ঝরার দৃশ্য দেখানো যেখানে সব গুলো মুক্তো ছিল আসল।producer রা প্রথমে আসল মুক্তো দিতে রজি না হওয়ায় পরিচালক asif দীর্ঘদিন শুটিং বন্ধ রেখেছিলেন।
  • সে সময় একটি অথবা দুটি ক্যামেরা যথেষ্ট ছিল শুটিং এর জন্য কিন্তু মুঘল এ আযম এ ব্যাবহার হয় ১৪ টি ।
  • প্লেব্যাক এর জন্য সেসময় দেয়া হত ৩০০-৪০০ রুপি কিন্তু বড় গুলাম আলি, লতা এবং মোঃ রফি পেয়েছিলেন ২৫০০০ রুপি করে।
  • ইকো এফেক্ট না থাকার কারনে লতা মুঙ্গেস্ক্রর কে স্টুডিও বাথরুমে কণ্ঠ দেয়া লাগে যা ছিল তার প্রথম এবং শেষ ।
  • “এ মোহাব্বত জিন্দাবাদ” গানে মোঃ রফি এর সাথে আরও ১০০ জনের একটি কোরাস ।অনেকে বলেন আসল সংখ্যা নাকি ১০০০।
  • পেয়ার কিয়াতো ডারনা ক্যাঃ
  • এই গানের পেছনে খরচ হয়েছিল দশ লক্ষ রুপি। যা দিয়ে সে সময় একটা পুরো মুভি হয়ে যেত।
  • শিষমহল সেট এর জন্য কাচ আনা হয়েছিল বেলজিয়াম থেকে।
  • সঙ্গীত পরিচালক নাওসাদ এর পছন্দ না হওয়ায় গিতিকার শাকিল বাদায়ুনিকে এই গানের কথা ১০৫ বার ঠিক করতে হয়েছিল।
  • এই গানের সেট কে ট্রিবিউট করে সালমান খানের “প্রেম রাতান ধান পায়ো” এবং বানসালির “বাজিরাও মাস্তানি” তে প্রায় একি রকম সেট তৈরি করা হয় ২০১৫ তে।

file

  • চলচ্চিত্রের ইতিহাসে এটাই প্রথম মুভি যা colorization এর পর নতুন করে রিরিলিজ দেয়া হয়।
  • প্রিমিয়ারঃ
  • ১৯৬০ এ মারাঠা মন্দির নামক থিয়েটার এ প্রিমিয়ার হয় ।ফিল্ম আনা হয় হাতির পিঠে করে।
  • ব্ল্যাক মার্কেট এ এই মুভির টিকেট বিক্রি হয়েছিল ১০০ রুপি করে । সাধারন মুভির টিকেট মূল্য তৎকালীন সময়ে ছিল মাত্র ১.৫ রুপি।
  • দিলিপ কুমার প্রিমিয়ার এ আসেননি।পরিচালক, দিলিপ কুমার এর বোনকে বিয়ে করেছিলেন দিলিপ কুমার এর অনুমতি ছাড়াই ।এটাই ছিল দিলিপ এর রাগের কারন।
  • টিকিট কেনার জন্য এক সপ্তাহ আগে থেকেই মানুষ মারাঠা মন্দির এর সামনে এসে ভিড় করা শুরু করে ।পুলিশ মোতায়েন করতে হয়েছিল পরিস্থিতি সামাল দেয়ার জন্য ।
  • তৎকালীন সময়ে মুঘল এ আযম আয় করেছিল ৩ কোটি রুপি যা বর্তমানে ধরা হয় প্রায় ৫০০ কোটি রুপি ।
  • দিলিপ কুমার এর আসল নাম ইউসুফ খান।মুঘল এ আযম তার একমাত্র মুভি যেখানে তিনি মুসলিম চরিত্র রুপায়ন করেছেন।
Mughal-E-Azam (1957)
Mughal-E-Azam poster Rating: 8.4/10 (3498 votes)
Director: K. Asif
Writer: K. Asif (screenplay), Aman (screenplay), Aman (dialogue), Kamal Amrohi (dialogue), Ehsan Rizvi (dialogue), Wajahat Mirza (dialogue)
Stars: Prithviraj Kapoor, Madhubala, Durga Khote, Nigar Sultana
Runtime: 197 min
Rated: N/A
Genre: Drama, Romance, War
Released: 1 Apr 2005
Plot: Inspired by true events, a 16th century prince falls in love with a court dancer and battles with his emperor father.

(Visited 66 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. আকর্ষণীয় ডিজাইনের চশমা ও সানগ্লাস ঘরে বসে পেতে চাইলে ক্লিক করুন ড্রিমারস অনলাইন শপ

    ফেসবুক পেজ থেকে বেছে নিন পছন্দের চশমা বা সানগ্লাস আর অর্ডার করুন ফেসবুক থেকেই। সরাসরি পৌঁছে যাবে আপনার ঠিকানায়। পন্য হাতে পেয়ে মুল্য পরিশোধ করুন।
    পেজটিতে লাইক দিয়ে একটিভ থাকুন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ ।

    ভিসিট করুন https://www.facebook.com/dreamersdreambd

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন