ফাঁস হয়ে গেলো হলিউডের অস্ত্রভাণ্ডারের খবর !!!

হলিউড অ্যাকশন ছবি মানেই গোলাগুলি, মেশিন গান ও অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্রের দাপট৷ শুধু ধ্বংস আর ধ্বংস। আসলেই কি তাই?? নিচের কয়েকটি ছবি দেখুন… কি এলাহি কান্ড। সব দেখি রক্তারক্তি কান্ড।।

অনেকেই ভাবেন এসব অস্ত্র সব নকল।। আচ্ছা, যদি আপনাকে বলি এসব অস্ত্র সব আসল !! পিলে চমকে যাবে কি??? হুম চমকানোর মতোই খবর।।

এগুলো সব আসল অস্ত্র। তাহলে মানুষ মরে না কেন?? কে বলছে মরে না?? কতো মানুষ মারা যায় !!! মুভিতে দেখেন না বুঝি !!

আসল গ্যাঁড়াকল অন্য খানে। মুভিতে ব্যাবহিত সকল আগ্নেয়াস্ত্রই আসল, আর নকল হলো গোলা- গুলি গুলো। হুম পর্দার বন্দুক নকল নয়, শুধু গুলি নকল৷ আর হলিউডে ব্যবহৃত এই সব অস্ত্রশস্ত্র ভাড়া দেয় ‘দ্য স্পেশালিস্টস’ নামের এক কোম্পানি৷ তাদেরই অন্দরমহলে ঢুকে জানা গেল চমকপ্রদ সব তথ্য৷

পর্দায় দেখলে বিশ্বাসই হয় না, যে গোটা ব্যাপারটাই আসলে অভিনয়৷ আর সেটাই তো এই ধরণের অ্যাকশন ছবির মূলমন্ত্র৷ তাই নকল নয়, আসল বন্দুক, মেশিনগান, মিসাইল লঞ্চার ব্যবহার করা হয় বেশিরভাগ ছবিতে৷ কিন্তু সেই সব অস্ত্র আসে কোথা থেকে?

হলিউড ছবিতে অস্ত্র ভাড়া দেওয়ার জন্য রয়েছে ‘দ্য স্পেশালিস্টস’৷ এটাই কোম্পানির নাম৷ মালিক রিক ওয়াশবার্ন তাঁর অস্ত্রভাণ্ডারের ‘শো-রুম’-এর দরজা খুলে দিয়েছেন ডিপিএ’র এক সাংবাদিকের জন্য৷ অ্যামেরিকার ধনভাণ্ডার অবলম্বনে দরজার উপর বড় কর লেখা রয়েছে ‘ফোর্ট নক্স’৷ কী না নেই তার পিছনে! ছোট ক্যালিবারের পিস্তল থেকে শুরু করে সামরিক বাহিনীর সরঞ্জাম৷ চিত্রনাট্যের প্রয়োজনে যা চাই তাই পাওয়া যাবে সেখানে৷ শুধু নেই আসল গুলি-বারুদ৷ ফাঁকা গুলি করেই পিলে চমকে দিতে পারে সেই সব অস্ত্র৷ সব রকম ঝুঁকি এড়াতে আসল গুলি ভরারও কোনো উপায় রাখে নি কোম্পানি৷ চোখে দেখে অবশ্য তফাত বোঝার উপায় নেই৷

চলুন এবার দেখে আসি, তাদের অন্দরমহলের কিছু ছবি-

শুধু হলিউড নয়, টেলিভিশন ও থিয়েটারের প্রয়োজনেও অস্ত্র ভাড়া দেওয়া হয় সেখানে৷ প্রায় ৫,০০০ অস্ত্রশস্ত্র পাহারা দেওয়ার এলাহি ব্যবস্থা রয়েছে৷ চারিদিকে অসংখ্য ক্যামেরা৷ শুধু অস্ত্র রাখা নয়, সেগুলির রক্ষণাবেক্ষণ, প্রয়োজনে কোনো পরিবর্তন করা বা অন্যান্য কাজের জন্য রয়েছে একাধিক ওয়ার্কশপ৷ নিউ ইয়র্কে কোম্পানির এই বাড়িটির মধ্যে কতটা জায়গা জুড়ে এক বিশাল আয়োজন, সে সম্পর্কে ধারণা দিতে পারলেন না ওয়াশবার্ন৷ তবে জানালেন বেশ কিছু চমকপ্রদ তথ্য৷ যেমন অ্যামেরিকায় যে সব চলচ্চিত্র তৈরি হয়, তার ৬০ থেকে ৭০ শতাংশের মধ্যে অস্ত্র ব্যবহারের কোনো দৃশ্য থাকবেই৷ সম্প্রতি যে সব ছবিতে তাঁর কোম্পানির ভাড়া দেওয়া অস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে, তার মধ্যে রয়েছে ‘দ্য বোর্ন লেগাসি’, সর্বশেষ ‘ব্যাটম্যান’ চলচ্চিত্র, টম ক্রুজ অভিনীত ‘জ্যাক রিচার’, ‘ল অ্যান্ড অর্ডার’ ইত্যাদি৷

অভিনয়ের কাজে লাগলেও পর্দায় এ সব অস্ত্র দেখে অনেক মহল থেকে বায়না আসে৷ রিক ওয়াশবার্ন জানালেন, ‘মায়ামি ভাইস স্পেশাল’ টিভি সিরিজের জন্য তৈরি করা বিশেষ একটি শটগান দেখে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা তার ডিজাইন চেয়েছিল৷ প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রেগান’এর সুরক্ষার জন্য তারা ঠিক এমনই এক বন্দুকের খোঁজে ছিল৷

(Visited 112 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন