Avengers: Infinity War – What is the Endgame?

(স্পয়লার এলার্ট)

মুভি রিলিজের প্রায় ৪ মাস অতিবাহিত হওয়ার পরেও বেশ কিছু প্রশ্নের কোন উত্তর ই মিলছেনা। আর এমসিইউ ও তাদের এভেঞ্জার্স৪ নিয়ে কোন নূন্যতম তথ্যও বার হতে দিচ্ছেনা। এমনকি টাইটেল ও রিভিল করছেনা। অনেকের মতে টাইটেল হবে এন্ডগেম কারো মতে দ্যা ফলেন হিরোজ। তবে নেক্সট মুভির টাইটেল কি হবে তা নিয়ে কোন আলোচনায় যাচ্ছিনা। আমার এই পোস্টের মূল বিষয়বস্তু ডক্টর স্ট্রেঞ্জ।।

ইনফিনিটি ওয়ারের সবচেয়ে বড় প্রশ্ন হচ্ছে,স্ন্যাপের পরে ধুলোর মত হয়ে সবাই কোথায় গেল? সবচেয়ে গ্রহনযোগ্য উত্তর হচ্ছে সৌল ওয়ার্ল্ড। সবাই একবাক্যে সেটা মেনে নিলেও মনের ভিতরের খচখচানিটা কি চলে যাচ্ছে? উত্তরটা হল “না”।

মুভিটা বেশকয়েকবার দেখার পরে টাইটানের ফাইট টাই মুভির সবচেয়ে ইম্পর্ট্যান্ট পার্ট হিসেবে মনে হয়েছে আমার। কারন সেখানে হয়ত অনেক কিছুই হয়েছে যা মুভিতে দেখানো হয়নাই। ডক্টর যখন ১৪মিলিয়ন৬০৫ বার সম্ভাব্য ফিউচার দেখে আসেন আর মাত্র ১ বার জয়ী হবার ঘটনা দেখেন, কি ছিল সেটা?
মেন্টিস কে ব্যবহার করে গাউন্টলেট উদ্ধার এর আইডিয়াটা কখনোই ডক্টরের সেই ‘১ বার’ টা না। কারন কুইল নিজেই সেটার ক্রেডিট নিয়েছে মুভিতেই। কথা হল কি ঘটেছিল সেই ১ বার জয়ের সময়? কিংবা সেটার সাপেক্ষে ডক্টরের প্লান ই বা কি ছিল?
থ্যানোস যখন টাইটানে আসে ডক্টর তখন খুব ভালভাবে থ্যানোসের মোটিভ জেনে নেয়। এবং সব স্টোন পেয়ে কাজ শেষ করে থ্যানোস একদম রিটায়ার এ চলে যাবে এমন কথা শোনার পরেই একশনে যায়। তার আগে ব্লাকওর্ডারের শীপে করে টাইটান এ আসার সময় টনিকে জানায় যে, দরকার হলে টনি আর পিটারকে মরতে দিবে তাও স্টোন হাতছাড়া করবেনা কারন এটার উপরে পুরা ইউনিভার্স এর “ভাগ্য নির্ভর করছে”।।কিন্তু সে নিজেই থ্যানোসকে স্টোনটা দিয়ে দেয় টনির জীবনের বিনিময়ে। কেন?

আবার যখন থ্যানোস স্ন্যাপ করল তখন কেনইবা শুধু এভেঞ্জার্স ১ এর হিরোরাই বেচে থাকল? তাদের অন্তত ১ জন ও কেন মরল না?? আর মাস্টার অফ দ্যা মিস্টিক আর্টস হবার পরেও ডক্টর কেনো স্টোনটা থ্যানোসের বিরুদ্ধে ব্যবহার করলনা? সেগুলোর উত্তরই দেয়ার চেষ্টা করব।

কয়দিন আগে একটা থিওরি দেখলাম যে ডক্টর যখন স্টোনটা দিয়ে দেয় তখন সেটা এক্টিভ করা ছিল! ওই থিওরি দেখার পরেই সব সুতা এক হতে শুরু করল যেন। ডক্টর আসলে স্টোন ব্যবহার করেছেন! তার দেখা সব ফিউচারে স্টোনকে ব্যবহার না করে একবারো জিততে পারেননি। জিতেছেন শুধুমাত্র যখন ব্যবহার করেছেন তখনই। সবকিছুর শুরু সেই ২০১২ তে, লোকির নিউইয়র্ক এটাকের মধ্যদিয়ে। সুতরাং ওই ইভেন্টটা এই ইউনিভার্স এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায়। যদি কোনভাবে আবার সেখানে গিয়ে সবকিছু চেঞ্জ করে দেয়া যায় তাহলে সকল ঝামেলা থেকে বেঁচে যাওয়া যাবে। থ্যানোস এর আগেই যদি এভেঞ্জার্সরা স্টোনগুলা নিয়ে নেয় তাহলে হয়তবা থ্যানোস আর পারবেনা তাদের সাথে। আমার মতে, ডক্টর কোন একটা লুপ ব্যবহার করেছেন যার মাধ্যমে ২০১২ র এভেঞ্জার্সরা বেঁচে যাবে স্ন্যাপ এর পরেও। সেজন্য তিনি একটা লুপ তৈরি করে স্টোনটা কোথাও লুকিয়ে রেখেছিলেন। অন্যকেউ না থাকলেও সমস্যা নেই কারন ২০১২ তে ডক্টর মাস্টার অফ দ্যা মিস্টিক আর্টস ছিলনা, পিটার তখনো স্পাইডার এর কামড় খায়নি, টি’চাল্লা তখনো ব্লাকপ্যান্থার হয়নি, ভিশন এর জন্ম হয়নি,ওয়ান্ডা সাধারন মানুষ ছিল, স্যাম এর সাথে কারো পরিচয় ছিলনা। ডক্টর যখন স্টোন টা দিয়ে দেয় তখন তা স্পষ্ট জ্বলছিল এবং তখন ডক্টরের এক্সপ্রেশন দেখলেই বুঝা যায় কোন একটা কাহিনি আছে।

তিনি অবশ্যই কোন একটা টাইমলুপ তৈরি করে সেই ২০১২ র হিরোদেরকে বাঁচিয়ে রেখেছেন যাতে আবার ২০১২ তে ফিরে গেলে তাদেরকে পাওয়া যায় আর যা বুঝা যাচ্ছে নেক্সট মুভিতে আমরা আবার ২০১২ তে হয়ত ফেরত যাচ্ছি, কারন শুটিং এর কিছু ছবিতে টনি ছাড়া সবাইকে ২০১২ র গেট আপে দেখা গেছে। স্টোন দেয়ার পরে টনি যখন জানতে চায় কেন দিয়ে দিল, তখন ডক্টর উত্তর দেয় যে” we r in the end game now”
এই এন্ডগেম কথাটা সর্বপ্রথম এই টনিই ব্যবহার করে ২০১৫ তে এজ অফ আল্ট্রন মুভিতে “that up there…that’s the endgame” এমন ও হতে পারে যে ডক্টর অতীতেও গিয়েছিলেন সবাইকে সতর্ক করার জন্য তখন এই কথাটি শুনেছেন যার জন্য টনিকেই এইটা বলেছেন একটা recall হিসাবে।

এখন শেষ প্রশ্ন হল, স্টোন যখন দিয়েই দিবে তখন আগে দিয়ে দিলেই পারত, এত কিছু ঘটার পর কেন দিল?
এখন এটা নিয়ে বলতে গেলে প্রথম কথা ওরা থ্যানোস কে অনেক বেশি আন্ডারএস্টিমেট করেছে যেহেতু ওর সম্পর্ক এ বেশি একটা জানতনা।
২) অন্তত একবার চেষ্টা করে দেখতে চেয়েছে কিছু করা যায় কিনা and nearly succeeded and then starlord happened
৩) ডক্টর তখনই স্টোন টা দিয়ে দিতে চেয়েছে যখন টনি স্টার্কের জীবন যাচ্ছিল। হয়ত ডক্টর তার টাইম ট্রাভেল এ দেখেছেন যে পুরো ইউনিভার্স এর ভাগ্য স্টোনের চেয়েও বেশি টনির উপরে নির্ভর করে ♥♥

অন্য একটা থিওরি এটা হতে পারে যে আসলে ডক্টর এমন একটা লুপ তৈরি করেছেন যাতে স্ন্যাপের ফলে কেউ মারা যাবেনা, সবাই ট্রান্সপোর্টেড হয়ে অন্য কোথাও চলে যাবে। এই থিওরি আর সৌল ওয়ার্ল্ডের থিওরি কাছাকাছি।

এখন দেখা যাক এভেঞ্জার্স ৪ এ কি করে। এন্টম্যান নিয়ে কিছুই বললাম না কারন এখনো antman and the wasp দেখা হয়নি তবে AV4 এ স্কট অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে যদিও ২০১২ তে স্কট এন্টম্যান ছিলনা। এখন দেখা যাক কাকে কিভাবে ফিট করে এবং কাকে কিভাবে ফিরিয়ে আনে। তবে AV4 নিশ্চিতভাবেই ইনফিনিটি ওয়ার কে ছাড়িয়ে যাবে। আর আমরা হয়ত থ্যানোসের rogue ভার্শন টা দেখতে পাব।
lets just hope all ends well

 

Error: No API key provided.

(Visited 644 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন