Citizen X (1995) – ৫২ টি খুন ও একজন সিরিয়াল কিলারের সত্য কাহিনী
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0
মাঠ পরিস্কার করার সময় উঠে আসে একটি মৃতদেহ। ফরেনসিকে পাঠানো হয়। ফরেনসিক এক্সপার্ট বলে ঐখানে খুব ভালো করে খোজ করতে যেন পাওয়া যায় খুনীর কোন ক্লু। কিন্তু খুনীর ক্লু তো দুরের কথা বের হয়ে আসে আরো ৮ টি মৃতদেহ। প্রতিটি মৃতদেহ  হয় পচন ধরেছে, অথবা সদ্য মৃত অথবা অনেক পচে গিয়েছে এমন। খুনের ধরণ একই ধরনের, মাথায় আঘাত করার পর চাকু দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করা হয়েছে। সবার মাঝে একটি মিল আছে তা হল সবার বয়স খুব কম, বালক অথবা কিশোরী।
Citizen_X-Caratula
ফরেনসিক ডাক্তারেরে কাছেই দায়িত্ব পড়ে খুনী বের করার জন্য। প্রথম দিনেই তিনই সাফল্য পান খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন সবাই স্টেশনে যাবার পরই হারিয়ে যায় অর্থাৎ খুনী স্টেশন থেকেই নিয়ে যায় এই সব কম বয়সী বালক-বালিকাদের। তিনি বলেন তার আরো লোকবল লাগবে , এফবিআই এর সাহায্য লাগবে কিন্তু না করে দেয় সেটি এই খুনের তদন্তে গঠিত কমিটি। কারণ তারা বলে একজন জিপসি তো স্বীকার করেছে সেই খুনি, তাহলে কেন দরকার এইসব? কিন্তু তারপরো ঘটে চলে একের পর এক কিলিং, বডি হয়ে যায় ৫২ টি। কিন্তু কে এই খুনী? কি তার মোটিভ?
জানতে চাইলে দেখতে হবে Citizen X (1995) মুভিটি। দারুণ মেকিং এর এই মুভিটি নির্মিত রাশিয়ার একটি সত্য ঘটনার উপর ভিত্তি করে। যারা সিরিয়াল কিলিং এর উপর ক্রাইম মুভির পাগল তাদের জন্যতো এটি মাস্ট ওয়াচ।

এই পোস্টটিতে ৬ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Ashrafi Papry Mansura Sayma amra ekloge o movie ta dekhmu neh😉😉

  2. Asif Ahmed says:

    গতকালই দেখলাম। দারুণ একটি মুভি… (y)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন