Temper (2015) – মুভির প্লট এর অজানা কাহিনী

এটি কোন রিভিউ না, Temper মুভি সম্পর্কিত কিছু কথা। ২০১৫ সালে তেলুগু ইন্ডাস্ট্রিতে “বাহুবালি”র আগ পর্যন্ত অন্যতম ব্যবসা সফল মুভি কাজল আগারওয়াল ও জুনিয়র NTR  অভিনীত Temper.

পুরোপুরি তেলুগু মাসালা মুভি হিসাবে পরিণত করে দিয়েছে পুরি জগন্নাথ “Temper” কে। একজন অসৎ পুলিশ অফিসারের কাহিনী দিয়ে আবর্তন করেছেন এই মুভির গল্প। কিন্তু আসলেই কি তাই?????

পুরি জগন্নাথ এই মুভির কাহিনী নিয়েছেন ১৯৮৯ সালে ঘটে যাওয়া জাপানের একটা রেপ কেস থেকে। মুভিতে দেখানো হয়েছে একটা মেয়েকে ৪০ দিন পর্যন্ত আটকে রেখে রেপ করা হয়। শুধু রেপ না সাথে চালানো হয় অমানুষিক নির্যাতন। শরীরে পিন ঢুকিয়ে দেয়া হয়, এসিড দিয়ে পা পুড়িয়ে ফেলে। মুভিতে শুধু এতোটুকু দেখানো হয়ে থাকে।

কিন্তু বাস্তব ছিলো আরো নির্মম, যে মেয়েটির সাথে এই ঘটনা ঘটে মেয়েটির নাম ছিলো Junko Furuta. ১৭ বছরের এই মেয়েটির উপর চলে ৪৪ দিন ধরে অমানুষিক অত্যাচার। কি করা হয়নি তার সাথে?? রেপ তো আছেই, সাথে সারা শরীরে সুচ ঢুকানো হত, খেতে দেয়া হত না, এসিড দিয়ে চোখের পাপড়ি পুরিয়ে ফেলা হত, শরীরের চামড়া তুলে নিয়ে লবন লাগিয়ে দিত (উফফ কি কষ্ট) , আর বলতে পারছি না। সব শেষে চোখ উঠিয়ে ফেলে :'( ৪৪ দিনের মাথায় মেয়েটি মারা যায়।

এই ধরনের রেপ কেস আমাদের সমাজে হয়তো হয় না। কিন্তু রেপ যে কতটা ভয়াবহ তা মানুষকে বুঝানোর জন্য হয়তো পুরি জগন্নাথ এই মুভিটা নির্মান করেছেন যাতে ম্যাসেজটা মানুষের কাছে যায়।

এই ম্যাসেজ আর কিছু গান ছাড়া মুভিতে আর কিছু নাই বলার মত। ওভার এক্টিং তো আছে সাথেই। মুভির শেষ দিকের ম্যাসেজটা ছিলো সব থেকে ভাল। একটা রেপ হতে ১ ঘন্টা ও সময় লাগে না কিন্তু সেই রেপের বিচার হতে লেগে যায় কয়েক বছর, মাঝে মাঝে তো আইনের মার প্যাচে হয়ই না।

মুভি নিয়ে তো বললাম আর সাথে জেনে নিলাম একটি কালো অধ্যায়ের কথা।
===================================================
Junko Furuta নিয়ে কেউ জানতে চাইলে নিচের লিঙ্কটা থেকে জেনে নিতে পারেন।

Junko Furuta : 1. http://bit.ly/18BQE6c

2.http://bit.ly/1G3Iwuv

দূর্বল চিত্তের মানুষ হলে Junko Furuta এর কাহিনী না পড়াই ভালো।
==================================================

Temper এর ভালো রেটিং এ পিছনে এই ঘটনার হাত আছে বলে আমি মনে করি। আর টেম্পার দেখতে চাইলে এই লিঙ্কে ক্লিক করুন।

ডাউনলোড লিঙ্কঃ http://bit.ly/1LYf9ub

(Visited 254 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ৭ টি মন্তব্য করা হয়েছে

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন