Raw: একটু ভিন্ন কিছু পরখ করতে চান? দেখে ফেলুন।

আজকাল আগের মতন মুভি দেখা হয়ে উঠে না, তারপরেও সময় একটু পেলেই, মুভি দেখা আমার চাই ই চাই। নিজের রুমে শীতের দিনে কম্বলের নিচে ট্যাবটা নিয়ে মুভি দেখার মতন সুখের কাজ, আমার কাছে আর একটাও নেই। তখন কেউ যদি এসে বলে, “রাণী এলিজাবেথ তোমার সাথে ভিডিও চ্যাটে কথা বলতে চায়”। আমার উত্তর হবে, ” অপেক্ষা করতে বলো। আমি মুভিটা শেষ করে নেই”। আজকেও ঠিক এমন একটা বিকেল পার করলাম। যাইহোক, অনেক কথা হলো। এখন আজকে দেখা সেই মুভি নিয়ে আলোচনা করা যাক।

———————★ Raw ★————————-
Release Date: 15 March, 2017
Genre: Drama, Horror
Language: French
Running Time: 1 hr 38 minutes
Imdb Rating: 7/10
Rotten Tomatoes: 90%

“Raw” নামক এই মুভিটি ২০১৭ সালের বেশ আলোচিত একটি ফ্রেঞ্চ মুভি। মুভির বিষয়বস্তু ও প্রেক্ষাপট অন্যান্য মুভি থেকে বেশ ভিন্নধর্মী লেগেছে আমার কাছে। ড্রামা- হরর এর সংমিশ্রণে নির্মিত এই মুভির গল্পে যেমন আছে নাটকীয়তা, তেমনি রয়েছে বীভৎসতা। তবে একটা কথা বলতে পারি, মুভি দেখে আর যাইহোক, আপনার বোর ফিল হবে না। বেশ আগ্রহ নিয়েই পুরোটা সময় আপনি মুভির অন্তিম সীমা পর্যন্ত অপেক্ষা করে যাবেন, একটি প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে, তা হলো, “এমন ঘটনা মেয়ে দুটোর সাথে কেন ঘটেছে?” “এর পেছনে ভৌতিক কর্মকান্ড আছে নাকি কোন বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা আছে?” যদিওবা, শেষটুকু আমার কিছুটা অসমাপ্ত লেগেছে।

তাহলে, এবার মুভির প্লট নিয়ে কথা বলা যাক। মুভির গল্পের শুরুটা হয় জাস্টিন নামের একটা অদ্ভুত মায়াবী তরুণীকে নিয়ে। সে পশুপাখির ডাক্তার হবার স্বপ্ন নিয়ে নতুন নতুন কলেজে ভর্তি হয়েছে। ডাস্টিন মেয়েটা শান্তশিষ্ট, ভদ্র ও অনেকটা নিজের জগতেই ডুবে থাকা প্রজাতির।কিন্তু কলেজে আসার পর, কলেজের হাবভাব ও পরিবেশ তাকে ধীরে ধীরে পাল্টে দিতে শুরু করে। নিরামীষভোজী ডাস্টিন খরগোশের কিডনি খেতে বাধ্য হয়, সমকামী এক ছেলের সাথে হোস্টেলে একই কক্ষে বসবাস, জন্তুজানোয়ারকে এতো কাছ থেকে পরখ করা ও তাদের শরীরতত্ত্ব নিয়ে গবেষণা করা ইত্যাদি জাস্টিনের ভেতর আমূল মানসিকতা পরিবর্তন আনছিল। কিন্তু তারচেয়ে বড় পরিবর্তন দেখা যায়, যখন তার শরীরে হঠাৎ এক রাতে এলার্জির মতন লাল লাল কিছু দেখা দেয়। সেই যে শুরু, তারপর জন্ম নেয়, অন্য এক ডাস্টিন। আর এই ডাস্টিনের পরিণতি দেখতে হলে, আপনাকে মুভিটা দেখতে হবে।

মুভি সম্পর্কে আমার মতামত? আপনি হরর জনরা পছন্দ করলে, এই মুভি মিস করবেন না। অনেক তো কাঁচা মাংসখেকো ভয়ংকর সব খুনিকে দেখলেন। এবার না হয়, দুটি সুন্দরী তরুণীকে কাঁচা মাংস খাওয়া অবস্থাতে দেখুন। মুভিতে গল্প বলার ধারাটা আমার সেই লেগেছে। প্রতিটা দৃশ্য যেন একটি পর অন্যটি মুভিটিতে দারুণ একটা আবহ তৈরি করার জন্য একটা সুবিন্যস্ত নিয়মে আসছিল। গল্পের মোড় শেষ পর্যন্ত কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে, আগে থেকে অনুমান করা যাচ্ছিল না। যদিওবা আরও একটু সম্প্রসারণ করলে হয়তো, আরও ভালোভাবে সবার কাছে বোধগম্য হতো। সবথেকে ভালো লেগেছে, যেই ব্যাপারটি, সেটি হলো, মুভিতে সম্পর্কগুলোর যেই গভীরতা ও তাৎপর্য তুলে ধরা হয়েছে।
আশা করি, সবার ভালো লাগবে। ধন্যবাদ।

(Visited 624 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ২ টি মন্তব্য করা হয়েছে

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন