আমার দেখা অন্যতম সেরা সায়েন্স ফিকশন “ইনসেপশন” মুভির রিভিউ ( INCEPTION )

 

নামঃ Inception ( 2010 )
পরিচালকঃ Christopher Nolan
অভিনয়ঃ
Leonardo DiCaprio, Joseph Gordon-Levitt, Tom Hardy, Marion Cotillard, Cillian Murphy, Ken Watanabe, Dileep Rao, Ellen Page and Michael Caine.

IMDB :
http://www.imdb.com/title/tt1375666/

IMDB Rating : 8.8
My Rating : 9.2

ইনসেপশন এই মুভির নাম শুনেননি এরকম মানুষ কী কেউ আছে ? আশা করি নেই । যদি থাকে তাহলে আমি মুভি দেখা এক্কেবারে বাদ দিয়ে দিবো :/

মুভির কাহিনী ইচ্ছা করলে ৩-৪ লাইনে বলা যায় অথবা একেবারেই বলা যায় না । আসলে এই মুভি নিয়ে কিছু বলতে গেলে তা স্পয়লার হয়ে যাবে । তারপরও বলার জন্য কিছু বলছি ।

কাহিনী সংক্ষেপ : ডমিনিক কোব ( লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও ) একজন অন্যরকম চোর । মানে সাধারন চোরেরা মানুষের বাসা , অফিস কিংবা ব্যাংকে হামলা চালায় আর কব মানুষের স্বপ্নে হামলা চালায় । মানুষের স্বপ্নের মধ্যে গিয়ে নানারকম অজানা এবং গুরুত্বপূর্ণ তথ্য বের করে আনতে পারে । একজন জাপানি ব্যবসায়ী সায়টো ( কেন ওয়াটানেব ) কোবকে এমন একটা অফার দেয় যা কোবের পক্ষে ফিরিয়ে দেয়া সম্ভব হয় না । বিনিময়ে সে কারো মন থেকে কোনো তথ্য চায় না , চায় ইনসেপশন । অর্থাত্‍ ভিকটিমের মনে অনেকটা জোর করে একটা ভাবনা বা অনুভূতি ঢুকিয়ে দিতে হবে । এই অসাধ্য সাধন করার জন্য কোব বেছে বেছে একটা টিম গঠন করে । এবার শুরু হবে মিশন ইনসেপশন । কোব এবং তার দল সফল হবে নাকী ব্যর্থ হবে ??? এই অসাধ্য কাজটি সম্পন্ন করার জন্য কোব এবং তার দলের প্ল্যান কি ???

জানতে হলে তাড়াতাড়ি দেখে ফেলুন ইনসেপশন ।

 


এই মুভির কাস্ট বিশাল । এই মুভিতে অভিনয় করেছেন লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও , মারিওন কটিলার্ড , জোসেফ গর্ডন লেভিট , টম হার্ডি , এলেন পেজ , কেন ওয়াটানেব , কিলিয়ান মারফি , দিলিপ রাও এবং মাইকেল কেইন ।

 

 

লিওনার্দো এই সময়ের অন্যতম সেরা অভিনেতা । খুব বেশি মুভিতে অভিনয় তিনি করেন না । আর যেগুলোতে করেন সেগুলো কেমন হয় তা নিয়ে আর নতুন করে বলার প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না । লিওনার্দো যেভাবে এই মুভিতে ইমোশনগুলি ফুটিয়ে তুলেছেন , তা না দেখলে আপনি বুঝবেন না । মারিওন তেমন সুযোগ পান নি , যেটুকু পেয়েছেন তা ভালোভাবেই পালন করেছেন । বিশেষ করে তার চরিত্রে একটা বেদনার ভাব খুব ভালোভাবে লক্ষ্য করেছি । এই মুভিতে আর ২ জনের অভিনয় আমার অসম্ভব ভালো লেগেছে । একজন হচ্ছেন টম হার্ডি । তার এক্সপ্রেশনগুলাই যথেষ্ঠ তার অভিনয় প্রতিভা দেখানোর জন্য । আর গর্ডন যে আগামিতে হলিউডে রাজত্ব করতে যাচ্ছে এ ব্যাপারে আমার মনে হয় কোনো সন্দেহ নেই ।

 

ক্রিস্টোফার নোলান ইনসেপশন বানাতে চাচ্ছিলেন প্রায় দশ বছর আগে থেকে । কিন্তু স্টোরিকে ঠিকমত গুছিয়ে উঠতে পারেন নাই বলে এবং যে পরিমান অর্থ প্রয়োজন তা কোনো প্রডাকশন হাউজ বহন করতে রাজি ছিলো না বলে ব্যাটম্যান সিরিজের প্রতি মনোনিবেশ করেন । ইতিমধ্যে তিনি পরিচালক হিসেবে আরো পরিনিত হয়েছেন । নোলান শুধু এই মুভির পরিচালক নন , স্টোরিও তার নিজের । লেখক হিসেবে ১০ এর মধ্যে ১৫ পাওয়া দরকার তার সম্পূর্ণ ইউনিক এই আইডিয়ার জন্য ।

 


আমরা আশেপাশে যা দেখছি তাকী সত্যিই আসল নাকি অন্যকিছু ??? এর আগে নোলান মেমেন্টো দিয়ে দর্শকদের একটা ধাক্কা দিয়েছিলেন । তাছাড়া আমার জানামতে এই থিম , ( মানে আমরা যা দেখছি তা বাস্তব কীনা ) নিয়ে দ্য ম্যাট্রিক্স সিরিজ বানানো হয়েছিলো । ম্যাট্রিক্স দেখা হয়নি বলে  বলতে পারছি না ইনসেপশন ম্যাট্রিক্সকে ছাড়িয়ে যেতে পেরেছ কীনা । পরিচালক হিসেবে প্রধান অভিনেতাদের কাছ থেকে খুব ভালোভাবেই তাদের সেরাটা বের করে নিতে পেরেছেন নোলান । বিশেষ করে লিওনার্দো আর কটিলার্ডের ইমোশনাল দৃশ্যগুলো সত্যিই আপনাকে ছুয়ে যাবে । মুভির টেকনোলজিকাল দিকগুলোও ছিল এক্কেবারে পারফেক্ট ।

বর্তমানে সিক্যুয়েল , প্রিক্যুয়েল , রিমেক , সিরিজের মুভি দেখতে দেখতে আমরা যখন কিছুটা বিরক্ত ঠিক তখনই নোলান আমাদের অরিজিনাল একটা মাস্টারপিস উপহার দিয়েছেন ।

এটাকে শুধু ফ্যান্টাসি কিংবা সাইন্স ফিকশন বললে ভুল হবে । মুভির প্রধান চরিত্র লিওনার্দো এত বড় ঝুকিঁ নিয়েছিল শুধুমাত্র তার সন্তানদের ফিরে পাওয়ার জন্য এবং তার নিজের ভুলের প্রায়শ্চিত্ত করার জন্য । এইদিক থেকে মুভিতে একটা ইমোশনাল ছাপও আছে ।

আমি জানি অনেকে এই মুভির অনেক বড় ফ্যান । আবার অনেকে বলেন এই মুভির চেয়ে খারাপ মুভি নাকি আর নাই । অনেকে আবার না ভালো লাগলেও মুখ রক্ষার খাতিরে মুভিটির প্রশংসা করেন । আসলে ইনসেপশন মুভিটি তেমন কঠিন কিছু না । বিশেষ করে সায়েন্স ফিকশন লাভারদের কাছে তো এটা ডালভাত । আমি প্রত্যেক কেই মুভিটি ২ বার দেখার জন্য অনুরোধ করব । প্রথমবার দেখার জন্য এবং দ্বিতীয়বার ভালোভাবে বোঝার জন্য ।

 

আমিও এই পন্থা অবলম্বন করেছি । প্রথমবার মুভিটি সাবটাইটেল ছাড়া শুধুমাত্র দেখার জন্য দেখেছি এবং দ্বিতীয়বার খুব মনোযোগ দিয়ে দেখেছি । ফলে , সবকিছু আমার কাছে অত্যন্ত পরিষ্কার হয়ে গেছে এবং সত্যি কথা আমার মনে হয় আমার দেখা সেরা সায়েন্স ফিকশন এটাই ।

একটা মুভিকে যে একাধারে মানসম্পন্ন এবং ব্যবসাসফল বানানো যায় তা নোলান আরেকবার প্রমান করলেন ইনসেপশনের মাধ্যমে । মুভিটি IMDb টপ ২৫০ এর মাঝে  ১৪ নম্বরে রয়েছে । আশা করি মুভিটি সবাই খুব ভালোভাবে দেখবেন এবং উপভোগ করবেন ।

Download Link :
http://www.imdb.com/title/tt1375666
http://thepiratebay.se/torrent/5959984/Inception_%282010%29_720p_-_mkv_-_1.0GB_-_YIFY

(Visited 2,116 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Purohit Bej says:

    আমি সম্প্রতিই দেখেছি সিনেমাটি। একটা ব‍্যাপার বুঝিনি। ফিশারের মাথায় ওই ধারনাটি প্রোথিত করা হল। কিন্তু সে যখন জেগে উঠল, তার সন্দেহ হল না, যে সে এতসময় স্বপ্ন দেখছিল? তাহলে তার এত সময়ের সব কিছুই তার নিজস্ব অবচেতন, যদি সেটা স্বাভাবিক স্বপ্ন হয়। সে ওই অবচেতনকে ভিত্তি করেই বাপের সম্পত্তি লোপাট করে দেবে? আর যদি ওটা স্বাভাবিক স্বপ্ন না হয়, অর্থাৎ যদি অন‍্য কেউ তাকে জোর করে স্বপ্নে নিয়ে আসে, তবে ফিশারের ভাবা উচিত ছিল কে তাকে দেখাল এমন স্বপ্ন। সে যদি বুঝতেও পারে যে এ কব এর কাজ, সে তবে এও বুঝেছে যে তাকে এই আইডিয়া জোর করে দেওয়া হচ্ছে, সে ওই চাপানো ধারনা নিয়ে বাপের সম্পত্তি লোপাট করে দেবে কি? আশা করি করবে না। তাহলে সাইটো এর কাজ হল কেমন করে? শেষ অব্দি ইনসেপশন কার হল? ফিশারের, নাকি সাইটোকে এই ধারনা দেওয়া হল যে ফিশারের ইনসেপশন হয়ে গেছে?

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন