রিভিউ- যেমনটি দেখা গেল “দবির সাহেবের সংসার”
Share on Facebook68Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

poster 06

“দবির সাহেবের সংসার”- জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত জাজ মাল্টিমিডিয়ার এ ছবিটিকে প্রথম পূর্ণাঙ্গ ডিজিটাল বাংলা কমেডি মুভি আখ্যা দিয়েই প্রচারণা চালানো হয়। আর সেই সংসার দর্শনেই বলাকা অভিমুখে গমন  ।  

দবির সাহেব (আলীরাজ) রিটায়ার্ড জর্জ- যার বড় মেয়ে বিদেশে প্রবাসী ও অনেক আগে স্ত্রী-বিয়োগ ঘটলেও ১২/১৫ বছর আগে (মুভিতে সম্ভবত দুই সময়েরই উল্লেখ ছিল) হারিয়ে যাওয়া ছোট মেয়ে প্রতীক্ষার জন্য নিজ বাড়ি “প্রতীক্ষা”তে প্রতীক্ষার প্রহর গুণে থাকেন।এদিকে তার গৃহকর্মী ১ বছরের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল সমেত হাওয়া-তাই ফাঁকা গুলির তোড়জোড় শেষে মেয়ের পরামর্শে তাকে নতুন গৃহকর্মী নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দিতে হল। আর এই বিজ্ঞপ্তিতে চোখ পড়ল সদ্য চাকরি হারা কুদ্দুস( বাপ্পি) ও আক্কাস(ইমরোজ) এর।তারা একে অন্যকে মিথ্যে বলে ধোঁকা দিতে চাইলেও শেষ পর্যন্ত দু’জনেই পা ধরল দবির সাহেবের। তো তিনি শর্ত দিলেন-এক সপ্তাহের জন্য  তাদের রাখবেন আর যে বাউন্ডারি হাঁকাবে  (মানে ভালো কাজ করবে) তাকেই দুই বছরের কন্ট্রাকে রেখে দেবেন।তাই আক্কাস-কুদ্দুসের মাঝে শুরু হল লড়াই। কুদ্দুস দবির সাহেবকে সরিষার তেল মালিশের দায়িত্ব পেলে আক্কাস তাতে  সুপার গ্লু মিশিয়ে দেয়। আবার আক্কাস রান্না করতে গেলে কুদ্দুস চুপিসারে মুরগীর মাংসে যে গুঁড়ো পাউডার ছিটিয়ে দেয় তাতে দবির সাহেবের দৌড়াদৌড়ি শুরু হয়। তবে তাদের জ্বালাতনে অতিষ্ঠ হলেও তিনি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ- এক সপ্তাহের আগে কাউকে ছাঁটাই করতে পারবেন না। এরই মাঝে দেখা দিলেন চুমকি (মাহিয়া মাহি)- গেটআপ দেখে তাকে মেমসাহেব মনে হলেও পরে জানা গেল তিনি পাশের ফ্ল্যাটের কাজের মেয়ে। গৃহকর্ত্রীকেও জানান দিলেন- উত্ত্যক্তকারীদের হাত থেকে রেহাই পেতেই নাকি তার এ বেশ ধারণ। অতঃপর “এক নায়িকা-দুই নায়ক” নীতিতে আক্কাস-কুদ্দুস দু’জনেই চুমকিকে ঘিরে স্বপ্ন দেখতে থাকল। সে সুযোগে চুমকিও তাদের কিঞ্চিৎ নাচিয়ে নিল আর মুভির কাহিনীও এগিয়ে গেল।  

 

0105

 

মুভিতে আক্কাস চরিত্রে নবাগত আসিফ ইমরোজ দুর্দান্ত অভিনয় করেছেন। সাথে কুদ্দুস চরিত্রে তুলনামূলক অভিজ্ঞ বাপ্পিও ছিলেন বেশ। আক্কাস-কুদ্দুস জুটির কর্মকাণ্ডে দর্শকদের মাঝে তাই বেশ হাস্যরস লক্ষ্য করা গেল। 

04

 

চৌধুরীর নাতনি,গাঁয়ের মেয়ে, দুর্দান্ত অ্যাকশন হিরোইন থেকে কাজের মেয়ে-মাহিয়া মাহি অভিনীত চরিত্রগুলোতে বেশ ইতিবাচক বৈচিত্র্যই লক্ষ্য করা যাচ্ছে। ক্লাব ড্যান্সার ডেইজি রূপেও বেশ ভালোই আইটেম ড্যান্স করলেন (একই স্টেপের বারবার পুনরাবৃত্তি অবশ্য একটু চোখে লাগছিল)। কাজের মেয়ে চুমকি চরিত্রেও মানিয়ে নিয়েছেন তবে সেই সাথে ভবিষ্যতে তার আরও ন্যাকামি বর্জিত অভিনয় আশা করি 🙂  

06 07

 

আর ভিলেন হিসেবে আলেকজান্ডার বো যেমন মানানসই অভিনয় করলেন, “দবির সাহেবের সংসার”কর্তা দবির সাহেব রূপেও আলীরাজ দাপট দেখালেন।“বট গাছ কখনো বুড়ো হয় না ” –দবির সাহেবের এ দাম্ভিক উচ্চারণে দর্শকদের উৎসাহপূর্ণ সমর্থনও তাই দেখা গেল। 

02

প্রসঙ্গত- বিভিন্ন সীমাবদ্ধতার দায় নিয়েও আমাদের দেশে “পালাবি কোথায়”, “ভণ্ড”, “তোমাকেই খুঁজছি”-র মত মুভিগুলো বিভিন্ন সময়ে সার্থক সামাজিক কমেডি নির্ভর ছবি হিসেবে আত্মপ্রকাশ লাভ করেছে। সেই মানদণ্ডে “দবির সাহেবের সংসার”মুভিতে wit নির্ভর কমেডির অভাব অনুভূত হল। কাহিনীর  প্রতিটি  ধাপই ছিল অনুমেয়। মাহির তিনটি চরিত্র নিয়ে টুইস্ট করার চেষ্টারও ঘাটতি ছিল – চুমকি- ডেইজি-প্রতীক্ষা’ কে এক বিন্দুতে মেলাতে আক্কাস-কুদ্দুস বা দবির সাহেব ধন্ধে পড়লেও আমরা বাংলা মুভির চিরায়ত দর্শক একদম প্রথমেই তো বুঝে গেছি সব! চমক হিসেবে শাকিব খানের উপস্থিতিও ট্রেইলারের এক ঝলকেই সবার কাছে স্পষ্ট ছিল।  

vlcsnap-2014-04-13-00h53m34s160   

যাই হোক ভিন্ন কিছু করার প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়ে সামনের দিনগুলোতে আরও অনেক ভালো কিছুর প্রত্যাশাই রইল। অনুকরণ বা গড্ডালিকা প্রবাহে  গা ভাসিয়ে নয়,আপন স্বকীয়তা আর মহিমা বজায় রেখেই ভাস্বর হোক বাংলাদেশি চলচ্চিত্র ;-) ।   

 

এই পোস্টটিতে ১৮ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Rouf says:

    খুব ভাল রিভিউ লিখেছেন।

  2. ট্রিপল এস ট্রিপল এস says:

    মারাত্নক রিভিউ করেছেন। পড়ে অনেক ভাল লাগলো, মজাও পেলাম। বিশ্লেষনগুলোও অনেক ভাল লাগলো। রেগুলার আপনার লেখা চাই… 🙂

    • রিফাত স্বর্ণা says:

      ধন্যবাদ,  দিনব্যাপী উর্বর মস্তিস্কের চিন্তার ফল এই লেখা 😛 আপনার রিভিউগুলো পড়েই বেশ অনুপ্রাণিত হয়েছি আর ভবিষ্যতে আরও লেখালেখির আশা রাখি 🙂  

  3. শাতিল আফিন্দি says:

    রিভিউ বেশ ভালো হয়েছে, ভিন্নতা আছে রিভিউ এ। এছাড়া নাচের স্টেপ এর মত জিনিসও আপনার চোখ এড়িয়ে যায়নি, বোঝাই যাচ্ছে দেখার চোখ আছে আপনার! লিখতে থাকুন আরও। 🙂

  4. তানিয়া says:

    লিখা অনেক ভালো হইছে।   🙂

  5. জিহাদ says:

    খুব সুন্দর রিভিউ 🙂

  6. রিফাত স্বর্ণা says:

    সুন্দরের সংজ্ঞা তো জানি না, তবে ক্ষুদ্র চেষ্টার বিনিময়ে সাধুবাদ পেয়ে ভালোই লাগছে, ধন্যবাদ 🙂   

  7. আনোয়ার হোসেন ফরহাদ says:

     সম্ভবত বহু দিন পর কোন বাংলা কমেডি সিনেমা মুক্তি পেল। ভালো প্রচেষ্টা। 'অগ্নি'তে মাহির ন্যাকামি বিরক্তিকর পর্যায়ে চলে গেছিল। 'ভবিষ্যতে তার আরও ন্যাকামি বর্জিত অভিনয় আশা করি' আপনার এই লাইনে বুঝা যাচ্ছে যথারিতী এ মুভিতে ন্যাকামি অব্যাহত আছে। তবে নতুন হিসাবে কিছু ভুলত্রূটি থাকাটাই স্বাভাবিক। ভবিষ্যতে এসব ভুল কাটিয়ে উঠবে আশা করি।

    রিভিউ ভালো হইছে। কিছু জিনিস তুলে আনার চেষ্টা করছেন। তবে বাক্য ব্যবহারে কিছু জড়তা আছে আশা করি সেটা লিখতে লিখতে কেটে যাবে।

  8. শাহরিয়ার লিমু শাহরিয়ার লিমু says:

    বাংলা মুভি আবার আলাদা কোনো জন্রা আছে নাকি? 😀 মুক্তিযুদ্ধ বাদে যতোগুলা বাংলা মুভি নির্মান হয়েছে সবগুলোতেই তো সকল জন্রার গুরুচন্ডালি ছিলো। এটা অগুলোর চেয়ে কি ব্যাতিক্রম? :/

    • রিফাত স্বর্ণা says:

      হুম, এই মুভিতে বেশ কিছু অসঙ্গতি আছে তা তো অস্বীকার করাই যায় না, তাই বলে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক বাদে সব বাংলা মুভি  একদম Genre এর দিক দিয়েই  গুরুচণ্ডালী দোষযুক্ত- সেটা একেবারেই মেনে নিতে পারলাম না- এক সময়ের বিটিভির বেলা ৩ টার বাংলা ছায়াছবির দর্শক বলেই হয়তো বাংলা মুভির ভালো দিকগুলোই দেখার চেষ্টা করে থাকি, "জীবন থেকে নেয়া","সীমানা পেরিয়ে" থেকে শুরু করে "রাগ-অনুরাগ", "পালাবি কোথায়" এর মত চলচ্চিত্রগুলোকে প্রিয়-র তালিকায় রাখি- সব সীমাবদ্ধতা,গতানুগতিকতাকে অতিক্রম করে বাংলা চলচ্চিত্র অনেক দূর এগিয়ে যাবে সেই আশাও করি। 🙂   

  9. পথের পাঁচালি পথের পাঁচালি says:

    কমেডি মুভি তাও আবার বাংলা? ওয়াও। লেখা পড়ে ভাল লাগল। আরো লেখা চাই। 🙂

  10. আমি নিজেও দবীর সাহেবের সংসারের একজন, বাস্তবিকই ! 

     

    মুভিটা রিলিজ হবার আগে থেকেই অনেক প্রচারণা দেখেছি ফেবুতে । এখনো দেখবার সময় পাইনি । সুযোগ হলে দেখে নেবখন । লেখাতে ভালো লাগা রইল । 

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন