দর্শকদের চাহিদার মূল্যায়ন হচ্ছেতো?
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

ছবিটি বলিউড অভিনেতা অর্জুন কাপুরের৷
চিনতে অসুবিধা হচ্ছে তাই না?
.
আজ থেকে চার বছর আগে তিনি এরকম মোটা ও আনস্মার্ট ছিলেন৷ বলিউডে আসার জন্য তিনি বদলে ফেলেছিলেন নিজেকে৷ সত্তর কেজি ওজন কমিয়ে ছিলেন৷ বদলে ফেলেছিলেন নিজের পার্সোনালিটি, হাটা চলা ও কথা বলার স্টাইল থেকে শুরু করে সব কিছু৷
.
ভাবছিলাম ঢালিউডের নাম্বার ওয়ান শাকিব খানের কথা৷
কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশি ফিল্ম ইন্ড্রাষ্ট্রীর সবচেয়ে জনপ্রিয় এই নায়ক অনেকটাই মুটিয়ে গেছেন৷ যা নিয়ে বেশ সমালোচনা হচ্ছে৷ দর্শক থলথলে পেট ওয়ালা শাকিব খানকে দেখে বিরক্ত৷
মাঝে মাঝেই তাকে বলতে শোনা যায় অমুক ছবির জন্য ওজন কমাবেন তমুক ছবির জন্য বডি বানাবেন৷
তার বক্তব্য শুনে ভক্তরা খুশি হয়ে হলেও যায়৷ হলে গিয়ে ধোকা খেয়ে ফিরে আসে গোমড়া মুখ করে৷
.
আবার প্রতিবছরই তাকে দশ-বরোটা সিনেমায় অভিনয় করতে দেখা যায়৷ যেগুলোর দুই একটা ছাড়া সব ছবিই কোন মতে শ্যুটিং করা ও মানহীন৷ দর্শক তার এসব বিকলাঙ্গ ছবি দেখে বিরক্ত৷
প্রায়ই তাকে বলতে শোনা যায় তিনি বছরে চার-পাচটার বেশি ছবিতে কাজ করবেন না৷কিন্তু বছর শেষে ঠিকই তার নামের পাশে দশ-বরোটা ছবির বিশাল লিস্ট থাকে৷
.
অর্জুন কাপুররা দর্শকদের জন্য নিজেকে পাল্টে ফেলে৷ আর আমাদের শাকিব খানরা কিছু টাকার লোভে একের পর এক বিকলাঙ্গ ছবিতে অভিনয় করে৷ ভক্তদের চাওয়া পাওয়ার তুলনায় তদের কাছে টাকা বড় হয়ে দাড়ায়৷
.
অর্জুন কাপুররা দর্শকদের জন্য নিজের শরীরের অর্ধেরও বেশি ঝেড়ে ফেলে৷ আর আমাদের শাকিব খানরা ওজন কমানো তো দূরে থাক উল্টো ওজন কমানোর নামে ভক্তদের আবেগ নিয়ে খেলা করে৷
.
অর্জুন কাপুররা দর্শকদের রুচি,চাহিদা অনুযায়ী নিজেকে পাল্টায়৷ কিন্তু শাকিব খানদের কাছে দর্শকদের রুচি,চাহিদার কোন মূল্য নেই৷ তাইতো অর্জুনরা সল্প সময়ে দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিশ্বব্যাপী সুখ্যাতি অর্জন করে আর আমাদের শাকিব খানরা বছরের পর বছর কাজ করে দেশের ভিতরেই খ্যাতি অর্জন করতে ব্যার্থ হয়৷
.
ঢালিউডের সংশ্লিষ্ট অনেকেই প্রায়ই এদেশের আমজনতার বিদেশী ছবি প্রীতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে৷ ক্ষোভ প্রকাশ করার আগে তাদের দুবার ভাবা উচিত তাদের কাজে তারা দর্শকদের চাহিদার মূল্যায়ন কতটা করে৷

এই পোস্টটিতে ৪ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Rashed Imam says:

    আমি তো ভাবছিলাম অনন্ত জলিল!!!

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন