হালদা মুভি প্রিভিউ
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

হালদা কারা দেখবেন ? কেন দেখবেন ?

– রমিজ, ২৪-১১-১৭

হালদা মুক্তি পেতে যাচ্ছে আগামী পহেলা ডিসেম্বর এবং ছবিটি এই মূহুর্তে দর্শক আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে আছে।

হালদা নিয়ে মূল আলোচনা বেশী হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর এর সবচেয়ে বড় কারন হচ্ছে ছবির নির্মাতা তৌকির আহমেদ। একসময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা তৌকির আহমেদ এখন চলচ্চিত্র নির্মাতা হিসেবে সিনেমাপ্রেমীদের মাঝে ব্যাপক রকম আলোচিত। গত বছর তার একটি ছবি মুক্তি পায়। অজ্ঞাতনামা নামের সে ছবিটি সিনেমা হলে একেবারেই চলেনি। তবে ইউটিউবে ছবিটি ব্যাপক রকম হীট হয়। সিনেমাপ্রেমী দর্শক ছবির নির্মাতা তৌকির আহমেদ-এর প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে উঠেন। অজ্ঞাতনামার আগেও তৌকির আহমেদ বেশ কয়েকটা ছবি বানিয়েছেন। সেসব ছবিও সিনেমা হলে চলেনি। তবে এক শ্রেনীর দর্শক, সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছিলো। জয়যাত্রা, রুপকথার গল্প, দারুচিনি দ্বীপ; প্রত্যেকটা ছবিরই প্রশংসা একটা সারটেইন ক্লাসের দর্শকদের মুখে মুখে আজ পর্যন্ত শোনা যায়।

**হালদা নিয়ে আমার করা ভিডিও প্রিভিউ দেখুন নিচের লিঙ্কে গিয়ে

সূতারং বোঝাই যাচ্ছে ক্লাস অডিয়েন্সের কাছে তৌকির আহমেদ নির্মাতা হিসেবে অনেক বড় আগ্রহের জায়গা হয়ে উঠেছে। আর এই মূহুর্তে বাংলা ছবি এমন একটা জায়গা এসে দাঁড়িয়েছে যখন ক্লাস অডিয়েন্সের পছন্দ-অপছন্দ বক্স অফিসেও গুরুপ্ত পাওয়া শুরু হয়েছে। অথচ এরকম অবস্থা কিছুদিন আগে পর্যন্ত ছিলো না। আয়নাবাজি কিংবা ঢাকা এটাকের মত ছবির বড় রকম সাফল্য বদলে দিয়েছে অনেক হিসেব নিকেশ। যদিও এখনো হালদার মত ফিল্ম নিয়ে চোখ বন্ধ করে বাজি ধরার দিন আসেনি; তবে আগের মত অতোটা খারাপ অবস্থাও নেই এখন। তাইতো হালদার মত ক্লাস অডিয়েন্সের জন্য নির্মিত ছবিও বড় বানিজ্যিক ছবির মত কিংবা ক্ষেত্র বিশেষে তার চেয়েও বড় আকারে রিলিজ পাচ্ছে। হালদা ইতিমধ্যে অর্ধ শত সিনেমা হল কনফার্মড্‌ করেছে … শেষ পর্যন্ত হয়তো ৬০ কিংবা তার চেয়েও বেশী হলে মুক্তি পাবে যা এ ধারার ছবির জন্য এই প্রথম।

হালদায় অভিনয় করেছেন তিশা, মোশাররফ করিম, জাহিদ হাসান, ফজলুর রহমান বাবুসহ আরো অনেকে। এরা সবাই ছোট পর্দার পরিচিত মুখ। সিনেমায় কেবলমাত্র তিশা কিছুটা সফল। তবে আগেই বলেছি হালদা ক্লাস অডিয়েন্সের ফিল্ম আর সেক্ষেত্রে এই কাস্ট একেবারে যথাপোযুক্ত।

হালদা মুভি তিশা মোশাররফ করিম

ছবির টিজার, ট্রেলার এবং গান নিয়ে যদি বলি তো সত্যিকথা বলতে ছবির গান নোনা জল, যেটি সবার প্রথমে এসেছে; কেবলমাত্র সেই গানটিই দর্শকদের মধ্যে সাড়া ফেলেছে। বাকি আরো একটি গান কিংবা টিজার বা ট্রেলার ততোটা সাড়া ফেলতে পারেনি যতটা নোনা জল গানটি দেখার পর প্রত্যাশা ছিলো।

ছবির গল্প হালদা নদী এবং তার পাড়ের মানুষের জীবন যাপনকে কেন্দ্র করে। হালদা নদী চট্রগ্রাম জেলার একটি নদী যেটি দেশের একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হওয়ায় ব্যাপক রকম গুরুপ্তপূর্ন বটে। পরিবেশ দূষনসহ নানা কারনে দিন দিন আমাদের নদীগুলো একটু একটু করে ধ্বংস হচ্ছে। হালদাও মনুষ্যসৃষ্ট নানা কারনে চরম ঝুঁকির মুখে আছে।  এই নদীর সাথে জড়িয়ে থাকা নদীকেন্দ্রিক মানুষদের জীবনও স্বভাবতই ঝুঁকির মুখে। হালদা নদী এবং নদী পাড়ের এক নারীর জীবন যুদ্ধ নিয়েই হালদা নামের এই ছবি।

 

তবে ট্রেলারে সাড়া ফেলুক কিংবা না ফেলুক ভিন্ন ধারার ছবির এই সুদিনে হালদা শুধুমাত্র ভিন্ন ধারার ছবি যে তা না বরং ভিন্ন ধারার ছবির অন্যতম সেরা নির্মাতা তৌকির আহমেদ এর ছবি।তাই ক্লাস অডিয়েন্সের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে এখন এই ছবিটি।

 

ছবিটি অনেক বড় পরিসরে মুক্তি পাবে। এ ধরনের ছবি চালানোর মত ভাল হল আমাদের দেশে যেহেতু হাতে গোনা কয়েকটা তাই এ ছবির ওপেনিং দু-চারটা হলে মোটামুটি ভাল হলেও সাধারন হল গুলোতে হয়তো ভাল হবে না। ছবিটা পুরোপুরি নির্ভর করছে দর্শকদের রেস্পন্সের উপর। খুব ভাল রেস্পন্স পেলেই কেবল ছবিটা ব্যাপক সঙ্খ্যক দর্শক হলে টানতে সক্ষম হবে।

তাই সিনেমাপ্রেমীদের সবার উচিৎ ছবিটা দেখা এবং ভাল লাগলে অবশ্যই ছবিটা সম্পর্কে বন্ধু-বান্ধবদের কাছে কিংবা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করা।

হালদা তৌকির আহমেদের অন্য ছবিগুলো থেকে অনেক বেশী সফল কেবলমাত্র এর রিলিজ সাইজ বিবেচনা করলেই। এখন পালা বক্স অফিসেও সফল হওয়ার। এ ছবি বক্স অফিসে সফল হলে বাংলা সিনেমার নতুন গতিধারা আরো অনেকখানিই বেগবান হবে। ছবিটার জন্য শুভ কামনা রইলো।

 

**আমার করা সাম্প্রতিক সময়ে মুক্তি পাওয়া কিছু বাংলা ছবির রিভিউ পড়ুন বায়োস্কোপ ব্লগে

মুভি রিভিউঃ ডুব (NO BED OF ROSES)

মুভি রিভিউঃ ভয়ঙ্কর সুন্দর

http://bioscopeblog.net/ramizraza/60999

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন