বলিউড ক্লাশ অফ টাইটানস্‌ ২০১৪

বলিউড ক্লাশ অফ টাইটানস্‌ ধারাবাহিক সিরিজটিতে বলিউডের বড় ছবি গুলোর মধ্যকার আলোচিত বক্স অফিস সংঘর্ষ এবং তার ফলাফল ফিরে দেখা হবে

আজকের পর্বে  ২০১৪ সালের উল্লেখযোগ্য বক্স অফিস ক্লাস গুলো ফিরে দেখছি …

 

দাওয়াত এ ইশক বনাম খুব সূরাত 

এ বছর এর আগে কয়েকটি ছোট খাটো ক্লাশ হলেও উল্লেখ করার মতো প্রথম ক্লাশ ছিলো এটি। যদিও দুটো ছবিই ছোট বাজেটের তবে একই জনরে অর্থাৎ রোমকম দুটো ছবিরই জনরে হওয়ায় ক্লাশটি সামান্য হলেও আলোচিত ছিলো। ছবি মুক্তির আগে স্বভাবতই দাওয়াত এ ইশক এর পাল্লা ভারী ছিলো। আদিত্য রয় তখন আশিকি ৩ এর নায়ক হিসেবে সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে। পরিনিতি চোপড়াও জনপ্রিয়। অন্যদিকে খুবসুরাতের সোনম কাপুর খুব একটা বক্স অফিস ফেভরেট না। ছবির নায়কও নতুন।

তবে ফলাফলে খুবসূরাত এগিয়ে যায়। দর্শক সোনম-ফাওয়াদের রোমকম বেশী পছন্দ করে অন্য জুটির ছবিটির চেয়ে।

bang bang vs haider

ব্যাং ব্যাং বনাম হায়দার 

এ বছরের সবচেয়ে আলোচিত ক্লাশ ছিলো এটি। ঋতিক – ক্যাটরিনার মতো জনপ্রিয় তারকা নিয়ে নির্মিত বিগ বাজেটের ব্যাং ব্যাং এর সাথে বক্স অফিস যুদ্ধে নামে অফ বিট সিনেমার নির্মাতা ভিশাল ভারদোয়াজ তার ছবি হায়দার নিয়ে। হায়দারের অভিনেতা-অভিনেত্রী শাহীদ কাপুর এবং শ্রদ্ধা কাপুরও কম জনপ্রিয় না। তবে স্বভাবতই মাসালা ছবির সাথে কিছুটা ভিন্ন ধর্মী ছবির যুদ্ধ হলে মাসালা ছবির এগিয়ে থাকার সম্ভাবনা বেশী থাকে। মুক্তির আগে তাই ব্যাং ব্যাং এগিয়ে ছিলো।

কিন্তু হায়দার মুক্তির পরে দর্শক সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা পায়।

বক্স অফিসের ব্যাবসার হিসেবে এ যুদ্ধে ব্যাং ব্যাং জয়ী তাতে কোন সন্দেহ্‌ নেই তবে হায়দার ছবিটি বক্স অফিসে মোটামুটি সাফল্য দেখানোর পাশাপাশি বছরের সেরা ছবি হিসেবে ফিল্মফেয়ার সহ নানা পুরুষ্কার জয় করে।

দিনশেষে হায়দায় বিবেচিত হয় বছরের সেরা ছবি হিসেবে আর ব্যাং ব্যাং বছরের অন্যতম বাজে ছবি হিসেবে সমালোচিত হয়।

 

— রমিজ, ২৫/০৯/১৬

 

** সিরিজ ব্লগটির আগের পর্বগুলো পড়ুন এখানে

** বলিউড ক্লাশ অফ টাইটানস্‌ ২০১৫

** বলিউড ক্লাশ অফ টাইটানস্‌ ২০১৬

(Visited 696 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. ব্লগে ঢুকলে পড়তে অসুবিধা হয়।

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন