সুপারম্যান হতে হলে জীবনের অভিজ্ঞতা প্রয়োজন

henry-17

“হঠাৎ করে তুমি ঘুরে তাকালে, নিজের প্রতিচ্ছবি আয়নায় ভেসে উঠল, আর নিজেকে সুপারম্যান হিসেবে আবিস্কার করলে।” এভাবেই নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করলেন সুপারম্যানখ্যাত হেনরি ক্যাভিল। সুপারম্যানের কস্টিউম প্রথম পরার সেই মুহুর্তটি স্মরণ করছিলেন এই অভিনেতা।

ক্যাভিল আরো যোগ করলেন, “এটি এমন এক অনুভূতি, যা আমি কখনও ভুলবনা। কেননা আমি  শুধু দেখতে পাচ্ছিলাম সুপারম্যান চরিত্রকে। হেনরি ক্যাভিল সুপারম্যানের কস্টিউম পরে আছে বলে মনেই হচ্ছিলনা।”

ক্রিস্টোফার নোলান যেমন করে ব্যাটম্যানকে নতুন আংিকে তুলে এনেছেন ডার্ক নাইট ট্রিলোজির মাধ্যমে ঠিক তেমনি জ্যাক স্নাইডার সুপারম্যানকে নতুন করে আবিস্কার করেছেন ম্যান অব স্টিলের মাধ্যমে। যদিও লেখা ও প্রযোজনার কৃতিত্ব রয়েছে নোলানের।

ব্যাটম্যানের ক্রিশ্চিয়ান বেল আর স্পাইডারম্যানের এন্ড্রু গারফিল্ডের পর হেনরি ক্যাভিল তৃতীয় ব্রিটিশ অভিনেতা কোন সুপার হিরোর কৃতিত্ব নিতে যাচ্ছেন। ক্যাভিলের মতে বেল বা গারফিল্ড কারো সাথেই তার ব্যাক্তিগত পরিচয় হয়নি।

henry-cavill-man-of-steel

সুপারম্যান চরিত্রের জন্য ৬ ফুট ১ ইঞ্চি উচ্চতার হেনরি ক্যাভিল সঠিক কাস্টিং। দৈহিক গড়নে ১৯৮০ সালের সুপারম্যান আইকন ক্রিস্টোফার রিভের মতই তবে আরো একটি রুক্ষ আর আকর্ষণীয়। হ্যারি পটার এন্ড দ্যা গবলেট অব ফায়ার আর টুয়াইলাইট ছবি দুটিতে কাস্টিং হবার কথা থাকলেও হেরে গেছেন রবার্ট পেটিনসনের কাছে। তারপর আবারো হার মানতে হয়েছে কেসিনো রয়াল ছবিতে বন্ড চরিত্রে ডেনিয়েল ক্রেইগের কাছে। তবে এখানে কাস্টিং না হলেও ক্যাভিলের কোন দুঃখ ছিলনা বরং তিনি আরো উৎসাহী হয়েছেন। ভেবেছেন, তার নাম বন্ড চরিত্রে না এলেও স্ক্রিন টেস্টে নিজেকে অসাধারণ লেগেছে আর ভেবেছেন, তবু তো কিছু উন্নতি হয়েছে। ক্যাভিল বর্তমানে ৩০ বছর বয়সী। তিনি মনে করেন এটাই সঠিক বয়স এমন একটি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য। আর এতদিনে জীবনের অনেক অভিজ্ঞতাও হয়েছে যা সুপারম্যান চরিত্রের জন্য প্রয়োজন।

reg_634.carano.cavill.ls.11013

জন্ম থেকে ইংল্যান্ডের জার্সিতে বেড়ে উঠা হেনরি ক্যাভিল স্কুল শেষ করে এলিট বাকিংহামশায়ার ইন্সটিটিউশন অফ স্টো তে ভর্তি হন। অভিনয়ের হাতেখড়ি সেখানেই। সেই সময়ে এক কাস্টিং পরিচালকের নজরে প্রথম আসেন ২০০২ সালে। তারপর প্রথম কাজ দ্যা কাউন্ট অব মন্টি ক্রিস্টোতে। ক্যাভিল বেশ মোটা ছিলেন। স্কুলে তার এই আকৃতির জন্য অনেক ঠাট্টা সহ্য করতে হয়েছে। প্রথম ছবির চরিত্রের জন্য তার ওজন অনেক কমাতে হয়েছিল। তখন থেকেই নিজের ওজন নিয়ন্ত্রণে রেখেছিলেন তিনি। ম্যান অব স্টিলের জন্য ক্যাভিলকে নিতে হয়েছে ১১ মাসের ট্রেনিং।

ব্যাক্তিগত জীবনে ক্যাভিল বর্তমানে জিনা কারানোর সাথে সম্পর্কে জড়িত প্রায় ৯ মাস হতে চলল। জিনা কারানো অভিনয় করেছেন সম্প্রতি মুভি ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস ৬ এ।

আরো একটি খবর জানা গেছে। তা হলো হেনরি ক্যাভিল অভিনয় করতে পারেন টম ক্রুজের সম্প্রতি ছেড়ে দেয়া একটি চরিত্রে, ছবির নাম ‘The Man From U.N.C.L.E’।

এখন দেখার বিষয় হেনরি ক্যাভিল কতটা দর্শক জনপ্রিয়তা পান আর খ্যাতির কোন পর্যায়ে উপনিত হতে পারেন।

সূত্র: বিদেশি পত্রিকা

(Visited 48 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন