12 Angry Men [1957] : ভয়াবহ অসাধারণ এক মুভি ।।
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

নিজের কিছু কথাঃ

 

 

বেশ কিছু দিন ধরেই এইটা নিয়ে লেখার জন্য উশখুশ করছিলাম । কিন্তু কি লিখব তা ই বুখে উঠতে পারছিলাম না । আসলে এই মুভি নিয়ে লিখতে গেলে যথেষ্ট সাহস এবং প্রজ্ঞার প্রয়োজন যেটা না থাকা সত্ত্বেও লেখার স্পর্ধা দেখাচ্ছি ।মুভি নিয়ে কিছু বলার আগে মুভির দর্শকদের নিয়ে কিছু বলার ইচ্ছা আছে । অনেকের ই সাদা কালো কিংবা বেশি পুরনো মুভির ব্যাপারে এলারজি আছে।আবার এক রুম এর ভেতরে সিনেমা শেষ এটা শুনেও অনেকে আতঁকে উঠেছেন এমন টাও দেখেছি । আইএমডিবি’র হাই রেটেড মুভি গুলোও আবার অনেকে সযত্নে এড়িয়ে চলেন ।

 

একেক জনের রুচিবোধ একেক রকম এটা খুব ই স্বাভাবিক । আমি নিজেও অনেক দিন ফেলে রাখার পর দেখতে শুরু করি এই মুভি । কারণ টাও ছিল হাস্যকর । রাতে ঘুম না ধরলে ঘুমানোর আগে সুপার স্লো মুভি গুলা দেখার প্ল্যান করতাম । মুভি ১৫ মিনিট চললেই ঘুম ধরে যেত । বিশেষ করে ইটারনাল সানশাইন অফ স্পটলেস মাইন্ড দেখে অনেক দিন ই ঘুমিয়েছি । 🙂

 

এরকম ই একদিন ঘুমকাতর চোখে বিছানায় গা এলিয়ে দিয়ে দেখা শুরু করি ১২ জন ক্রুদ্ধ মানুষ । কিন্তু যে উদ্দেশ্য নিয়ে মুভি দেখা শুরু করেছিলাম তা সম্পূর্ণই বিফলে যায় । ৫ মিনিটের মাথায় আমার ঘুম পালায় । দেখতে দেখতে কখন যে ঘামতে শুরু করেছিলাম তা নিজের ও মনে নেই ।

 

কি আর বলব !! কি দিয়ে যে এই মুভির তারিফ করব সে ভাষাই খুজে পাচ্ছি না । আফসোস করেছি কেন মুভির টাইম ডিউরেশন আরো ঘন্টাখানেক বেশী হলো না । শুধু একটা কথাই বলতে পারি , এই মুভি দেখলে রঙ্গিন মুভির উপর থেকে ভক্তি শ্রদ্ধা অনেকাংশে কমে যাবে । সিনেমা দেখার দৃষ্টিভঙ্গি পাল্টে যাবে আপনার , সিনেমার প্রতি ভালোবাসা সৃষ্টি করবে এই মুভি । কত সাধারন একটা বেকগ্রাউন্ড এ করা মাত্র ডজন খানেক লোকের স্পষ্ট সংলাপ , মুখের অভিব্যাক্তি ,বাচন ভঙ্গি কিভাবে আপনার উপর প্রভাব বিস্তার করবে , কিভাবে আপনাকে বিমোহিত করবে আপনি টের ও পাবেন না ।

 

কাহিনী সংক্ষেপ ঃ

 

 

নিজ পিতাকে হত্যার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয় মাত্র ১৮ বছরের এক ছেলে ।সাক্ষী ,শুনানী শেষ হবার পর জুরি দের মতামতের জানার জন্য ১২ জন জুরি কে একটি রুম এ পাঠান ডিস্ট্রিক্ট এটর্নি । এই জুরিদের রায়ের উপর ই নির্ভর করছিলো ছেলেটির ভাগ্য । নিয়মানুযায়ী ১২ জনের ই এক ই সিদ্ধান্তে উপনীত হতে হবে। Eiher Guilty or Not Guilty ..

 

এই ১২ জনের কেউ ঘড়ির কারিগর , কেউ আর্কিটেক্ট , কেউ শেয়ার বাজারে স্টক ব্রোকার, কেউ বা আবার ফুটবল টিমের কোচ । একেক জনের ধ্যান-ধারণা একেক রকম হবে এটাই স্বাভাবিক । কিন্তু শুরুতেই ১২ জনের মধ্যে ১১ জন ই ছেলেটিকে প্রকৃত হত্যাকারী হিসেবে দোষী সাব্যস্ত করার জন্য একমত হয় । শুধু মাত্র একজন এর বিরুদ্ধে অবস্থান নেয় । তার মতে তাদের সিদ্ধান্তের উপরেই ঝুলছে এই অল্পবয়স্ক ছেলেটির জীবনভাগ্য , সেহেতু হুট করে সিদ্ধান্তে যাওয়ার আগে আরো একবার ছেলেটির বিরুদ্ধে আনা সাক্ষ্যপ্রমাণ খতিয়ে দেখা উচিত ।

 

কাহিনির শুরু এখান থেকেই । ১২ জন ভিন্ন ভিন্ন মানুষের মনস্তত্ত্ব অসম্ভব চমৎকার ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে এই মুভি তে। ঘটনাক্রম একের পর এক মোড় নিতে থাকে একেক দিকে । হা করে অপেক্ষা করেছি পরের ২ মিনিটে কি হতে পারে জানার জন্য । চমৎকার কাহিনি বিন্যাস এবং অতিরিক্ত শক্তিশালী স্ক্রিপ্ট যেটা আমাকে নড়তেই দেয়নি । একটা লাইন আমার মাথায় গেথে আছে এখনো । “Prejudice always obscures the truth”….

 

শেষ কথা ;

 

 

এই মুভির আট নম্বর জুরি ডেভিস যে কোনো মুভিতে আমার দেখা সবচাইতে ব্যাক্তিত্তসম্পন্ন পুরুষ ।আমার ভেতর আর্কিটেক্ট দের প্রতি অন্য রকমের ভালোবাসার  সৃষ্টি করে দিয়ে গেছেন তিনি  ।:p ১৯৫৭ সালে ৩টি অস্কার মনোনয়ন পেলেও সব ক’টিই জিতে নেয় আরেক ক্লাসিক ব্রিজ ওভার দা রিভার কাওয়াই । রটেন টম্যাটোস এ ১০০% এপ্রোভাল রেটিং এবং আইএমডিবি তে ৮.৯ রেটিং অর্জনকারী সিনেমা 12 Angry Men।

ডাউনলোড লিঙ্ক  : http://yify-torrents.com/movie/12_Angry_Men_1957

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন