Witness For the Prosecution [1957] : না দেখলে কিছু একটা হারাবেন !!
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

 

আগে-পরের কথা : 

 

আগাথা ক্রিস্টি ( এরকুল পোয়ারো’র স্রষ্টা ) এর ছোট গল্পের উপর নির্মিত ইতিহাসের অন্যতম সেরা কোর্টরুম ড্রামা ফিল্ম ‘ এ উইটনেস ফর দা প্রসিকিউশন ‘। সিনেমা যখন শেষে ক্রেডিট দেখানোর সময় একজনের কন্ঠ শোনা যায় । যেখানে বলা হয় , “The management of this theatre suggests that for the greater entertainment of your friends who have not yet seen the picture, you will not divulge, to anyone, the secret of the ending of Witness for the Prosecution.”

ফিল্মটির প্রচারণা কাজ চালানোর সময়ও এই বিষয়ের দিকে বারবার আলোকপাত করা হয় । পোস্টার গুলোতে লেখা থাকে , “You’ll talk about it, but please don’t tell the ending.”

 

এ থেকেই বোঝা যায় কেমন ভয়াবহ অস্থির ধরনের টুইস্ট অপেক্ষা করে থাকবে সবার জন্য । অন্য সাধারন টুইস্ট সমৃদ্ধ মুভি থেকে বহুগুনে আলাদা এই মুভির টুইস্ট । আমার মনে হয় না ,এই মুভি প্রথম বার দেখার সময় কোনো মানুষের পক্ষে এই মুভির শেষ টূকু অনুমান করতে পারবে । গুনে দেখলাম সর্বমোট চারবার ধাক্কা খেয়েছি মুভি শেষ হওয়ার আগ পর্যন্ত । শেষ ১০ মিনিটের আগ পর্যন্ত পুরো সময়ই প্রেডিক্টেবেল বলে মনে হচ্ছিল, কিন্ত আমাকে সম্পূর্ণই বোকা বানিয়ে ছেড়েছেন বিলি উইল্ডার । আলফ্রেড হিচকক যেমন দর্শক দের নাকানি চুবানি খাইয়েছেন , মিঃ বিলি এক্ষেত্রে কম যান নি তো বটেই ,কিছুটা এগিয়ে রাখলেও তেমন দোষের কিছু হবে বলে মনে হয় না। সিনেমার সর্বত্রই সূক্ষ্ম হাস্যরসের অনেক উপাদান ছড়ানো ছিল । চার্লস লাফটন এতই চমৎকার অভিনয় করেছেন যা মেনে নেয়াটা কষ্টকর । পুরোটা সময়ই হাসিয়ে ছেড়েছেন তিনি ।নিশ্চিত ভাবে বলা যায় মারলিন ডিট্রিক্ট এর অভিনয় চোখে লেগে থাকবে অনেকদিন। সাস্পেন্স কি জিনিস এই মুভির মাধ্যমে নতুন করে জেনেছি ।

 

**মুভির এক পর্যায়ে ফ্ল্যাশ ব্যাক সিন থকে একটি (যা বড়জোড় ৫ মিনিটের হবে) । তাতে মুল নারী চরিত্রের বিখ্যাত ট্রাউজার ছেড়ার দৃশ্যে অভিনয়ের জন্য ১৪৫ জন এক্সট্রা অভিনেতা , ৩৮ জন স্টান্টমেন আনা হয় । খরচ হয় তৎকালীন সময়ে ৯০০০০ $ !!!!!

 

***২০০৬ সালে এই মুভি রিমেক করার কথা ওঠে । যেখানে আল পাচিনো এবং নিকোল কিডমেন এর অভিনয় করার কথা ছিল ।

 

***মুভিটি রোটেন টম্যাটোস এ ১০০% ফ্রেশ ও আই এম ডি বি তে ৮.৪ রেটিং অর্জন করে । সাতটি ক্যাটাগরি তে অস্কার নমিনেশন ও পেয়ে গিয়েছিল এই কালজয়ী মুভি টি ।

 

কাহিনী সংক্ষেপ :

 

এমিলি ফ্রেঞ্চ নামক এক প্রৌড় মহিলা কে খুনের দায়ে অভিযুক্ত করা হয় লিওনার্ড ভোল কে । লিওনার্ড তার পক্ষে লড়ার জন্য নিযুক্ত করে শহরের অন্যতম সেরা আইনবিদ স্যার উইলফ্রিড রবার্টস কে । নানা চরিত্রের উপস্থিতি ,আচমকা আবির্ভাব কাহিনী কে অস্বাভাবিক গতিশীল করে তোলে । যে কারো জন্য এই মুভি দেখা অত্যাবশ্যকীয় । এই মুভি নিয়ে আমার আরো অনেক কিছুই বলার ইচ্ছা থাকলেও বলা টা ঠিক হবে না ।

 

##এই মুভির ব্যাপারে বিভিন্ন সময়ে উক্ত বিভিন্ন উক্তি দিয়ে দেয়া হলো  ।  😉 …

 

1.The most electrifying entertainment of all time .

2.Once in 50 years, suspense like this !!

3.Splendid version of the play with perfect cast and Wilder at the helm.

4.Marlene Dietrich, Billy Wilder, Agatha Christie: What’s not to like?

5.It’s got enough unpredictable twists of its own to satisfy even Judge Judy’s appetite for justice.

 

http://www.imdb.com/title/tt0051201/

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন