সেরা ১০ বাংলাদেশী ব্যান্ড
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

cs05

 

 

আজম খানের হাত ধরে ব্যান্ড সংগীত বাংলাদেশে লোকপ্রিয়তা পায়। আর সংগীতের এই ধারাটি উত্তরোত্তর বাংলাদেশের সংগীত জগতে এক বিস্তৃত স্থান দখল করে আছে। দশ থেকে পঞ্চাশ, শিশু থেকে বৃদ্ধ, তরুন, মধ্যবয়সী, কুড়ি থেকে বুড়ি সকলের কাছে ব্যান্ড সংগীত এক উদ্দীপনার নাম। নব্বইয়ের দশকে তিন মহারথী ( রক লিজেন্ড আয়ূব বাচ্চু, গুরু জেমস এবং অদ্ভুত সুরেলা হাসান) তাদের নিজস্ব ব্যান্ড এর মাধ্যমে এই ধারাটিকে শহর থেকে ৬৮ হাজার গ্রাম পর্যন্ত নিয়ে যান। প্রত্যেক বাড়ির ড্রয়িং রুম হোক আর পূজা-পার্বন হোক, বিয়ে হোক -সবজায়গায় উঁচু স্কেলের ব্যান্ড এর গান।
শুধু এরাই নয়, অবসকিউর এর মেলোডিয়াস যুবরাজ টিপু, ডিফেরেন্ট টাচ এর ডিফারেন্ট মেজবাহ, ওয়ারফেজ এর সঞ্জয় যাকে সর্বকালের সেরা বাংলা মেটাল শিল্পী বলা হয়, উদাসী বাবনা কিংবা সমাজ সচেতক ফিডব্যাক এর মাকসুদ এর সাথে পাশ্চাত্য ফ্লেভার নিয়ে আসা মাইলস এর শাফিন আহমেদ -সবাই নিজ নিজ জায়গা থেকে এই ব্যান্ড সংগীত কে অন্য স্তরে নিয়ে গেছেন।

(এলআরবি ব্যান্ড হিসেবে এক নম্বর স্থানে থাকার যোগ্য কিনা জানি না তবে যেহেতু লিজেন্ড আয়ূব বাচ্চু এই ব্যান্ডের প্রতিষ্ঠাতা এবং সদস্য আর তিনি ব্যান্ড সংগীতের ব্রান্ড তখন রাখতেই হয়। সেইম উইথ নগর বাউল।)

১। এল.আর.বি (আয়ূব বাচ্চু)

images (37)

কার্যকালঃ- ১৯৯১- বর্তমান
ধরনঃ- রক, হার্ডরক,সফট রক, অল্টারনেটিভ রক, মেলোডি।
বর্তমান সদস্যঃ- আয়ূব বাচ্চু (ভোকাল ও গিটার), স্বপন (বেজ গিটার), মাসুদ (গিটার), রোমেল (ড্রামস)
প্রাক্তন সদস্যঃ- এস আই টুটুল, জয়, মিল্টন, রিয়াদ, সুমন।
জনপ্রিয় গানঃ- (ব্যান্ড এবং একক মিলিয়ে আয়ূব বাচ্চু) চাঁদ মামা, এখন অনেক রাত, ফেরারী মন, তারা ভরা রাতে, বেলাশেষে, তাজ মহল, ঘুমন্ত শহরে, ঘুম ভাংগা শহরে, ভুলে যাও, নদীর বুকে চাঁদ, আমি প্রেমে পড়ি নি, সেই তুমি, কষ্ট পেতে ভালবাসি, মন চাইলে মন পাবে, চোখের জলের কোন রঙ হয় না, শুনতে কি পাও, হাসতে দেখো……(অসংখ্য/আনলিমিটেড)
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ১১
মিক্সডঃ- ৯ (শুধুমাত্র ব্যান্ড)

২। নগর বাউল/ফিলিংস (জেমস)

NB

কার্যকালঃ- ১৯৮০- বর্তমান। (নব্বই এর দশকে নগর বাউল গঠন করেন)
ধরনঃ- রক, সাইকেডিলেক রক।
বর্তমান সদস্যঃ- জেমস (ভোকাল),
জনপ্রিয় গানঃ- (ব্যান্ড এবং একক মিলিয়ে জেমস) জেল থেকে বলছি, আমি তারায় তারায়, বিবাগী, এক নদী যমুনা, যদি কখনো ভুল, শারাবি, বেদের মেয়ে জোছনা, বিজলী, বায়োস্কোপ, দিওয়ানা মাস্তানা, পাগলা হাওয়া, লিখতে পারি না কোন গান, বিধাতা, দিল, সুষ্মিতার সবুজ ওড়না, আজিজ বোর্ডিং, লেইস ফিতা লেইস, তুমি যদি নদী হও, তুমি যাকে অশ্রু বল, সমাধি, স্যার, দুষ্ট ছেলের দল, সুলতানা বিবিয়ানা….. (অসংখ্য /আনলিমিটেড)
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ৮ (ফিলিংস নামে ৫টি এবং নগর বাউল নামে ৩টি)

৩। মাইলস

mil20160804023525

কার্যকালঃ- ১৯৭৯- বর্তমান
ধরনঃ- পপ, সফট রক, অল্টারনেটিভ রক,জ্যাজ, ব্লুস।
বর্তমান সদস্যঃ- শাফিন (ভোকাল ও বেইজ),হামিন (ভোকাল ও লিড গিটার), মানাম (কি-বোর্ড), তুর্জ (ড্রামস), জুয়েল (গিটার)
প্রাক্তন সদস্যঃ- হ্যাপি আখন্দ,রবিন,ফরিদ রশিদ, ল্যারি বাম্বি, শেখ ইশতিয়াক, কামাল মাইনুদ্দিন, কাইয়ুম,মিল্টন,শহিদুল হুদা,মাহাবুব রশিদ
জনপ্রিয় গানঃ- চাঁদ তারা সূর্য,জ্বালা জ্বালা,ধ্বিকি ধ্বিকি,সে কোন দরদীয়া,ফিরিয়ে দাও,এক ঝড় এসে,আর কতকাল খুঁজব তোমায়,পলাশীর প্রান্তর,পাহাড়ী মেয়ে,নিরবে কিছুক্ষণ,অসহায়,জাতীয় সঙ্গীতের দ্বিতীয় লাইন,প্রতীক্ষা,হৃদয়হীনা,চাই না,প্রিয়তমা মেঘ,এতো নয় গান,ফিরে এলে না, বিসন্ন জোছনা, পিয়াসি মন, নীলা, প্রথম প্রেমের মত, ভুলব না তোমাকে, গুঞ্জন শুনি, কি যাদু, তুমি নাই, হারানো সুর…..
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ৮ (একটি ইংরেজি এলবাম)

৪। ওয়ারফেজ

13428418_10154378732860832_6191979352615947897_n

কার্যকালঃ- ১৯৮৪- বর্তমান
ধরনঃ- রক, হার্ড রক, মেটাল,পগ্রেসিভ রক।
বর্তমান সদস্যঃ- টিপু (ড্রামস), কমল (লিড গিটার), পলাশ (ভোকাল), শামস (কি-বোর্ড), রজার (বেইজ),সামির (গিটার)
প্রাক্তন সদস্যঃ- বাবনা করিম, রাসেল, বেইজবাবা সুমন, বালাম, মিজান, হেলাল, মীর, নাঈমুল, বাপ্পী, অনি এবং সঞ্জয়।
জনপ্রিয় গানঃ- অবাক ভালবাসা, অসামাজিক, বিচ্ছিন্ন আবেগ, যখন মেঘের চাদর, মৌনতা, বসে আছি, স্বাধিকার, ধূসর মানচিত্র, আশা, একটি ছেলে, কৈশোর, জীবনধারা, জননী, মহারাজ, আলো, অন্য ভূবন, সন্ধ্যা…..
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ৭

৫। সোলস

souls-jam(httpbandmusicbd.blogspot.com201202souls-one-of-oldest-pop-bands-in

কার্যকালঃ- ১৯৭০- বর্তমান
ধরনঃ- পপ, সফট রক, মেলোডি।
বর্তমান সদস্যঃ- নাসিম আলি খান ( ভোকাল), পার্থ বড়ুয়া (ভোকাল ও গিটার), আশিক (ড্রামস ও পারকেশন), মাসুম (কি-বোর্ড), মারুফ (বেইজ)
প্রাক্তন সদস্যঃ- তপন চৌধুরী, নকীব খান, পিলু খান, আয়ূব বাচ্চু, কুমার বিশ্বজিত, রনি বড়ুয়া,সাজেদ, নওয়াজ, লুলু, তাজুল।
জনপ্রিয় গানঃ- মন শুধু মন ছুঁয়েছে, এ এমন পরিচয়, তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে, ঝুট ঝামেলা, মুখরিত জীবনে চলার বাকে, কলেজের করিডরে, Chasing a dream, চলো না হারিয়ে যাই, ফরেস্ট হিল এর এক, আমি ভুলে যাই তুমি, হাজার বর্ষা রাত, নির্মলেন্দু গুন, খুজিশ যাহারে, কেন এই নিঃসংগতা, আজ তোমাকে প্রয়োজন, জ্যোতিন স্যার এর ক্লাসে, তোমায় ভেবে…….
এলবামঃ
স্টুডিওঃ- ১২

৬। অবসকিউর

12-Obscure

কার্যকালঃ- ১৯৮৫- বর্তমান
ধরনঃ- মেলোডি, পপ
বর্তমান সদস্যঃ- টিপু (ভোকাল), রিংকু (ড্রামার), শান্ত (ভোকাল), রাজিব (গিটার), রাজ্য (বেজ গিটার) ও শাওন (কি-বোর্ড)
জনপ্রিয় গানঃ- মাঝ রাতে চাঁদ, তুমি ছিলে কাল রাতে, সূর্য তুমি নিও না, নিঝুম রাতের আধারে, দেশ ছাড় রাজাকার, আজাদ, ভন্ড বাবা, কাল সারারাত, ছাইড়া গেলাম মাটির পৃথিবী, জাফরানি রিং, স্বপ্নচারীনি, প্রথম সেই কলেজ জীবন……
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ৯

৭। ফিডব্যাক

feedback

কার্যকালঃ- ১৯৭৬- বর্তমান
ধরনঃ- পপ, জ্যাজ, রক, মেলোডি, জীবনমুখী
বর্তমান সদস্যঃ- ফুয়াদ নাসের বাবু (কি-বোর্ড),পিয়ারু খান (পারকাশন/ভোকাল),লাবু রহমান (গিটার, ভোকাল),টন্টি (ড্রামস),লুমিন (ভোকাল), রায়হান (ভোকাল)
প্রাক্তন সদস্যঃ- মাকসুদ, জাকির, অমর খালেদ রুমি, মুসা, দস্তগীর, সান্দ্রা হফ, সেকান্দার খোকা, শহিদুল, রোমেল
জনপ্রিয় গানঃ- মৌসুমী, মেলায় যাই রে, দিন যায় দিন, জন্মেছি এই যুগে, পালকি-১, পালকি-২, ঝাউ বনে, মাঝি, মাঝি তোর রেডিও নাই রে, টেলিফোনে ফিশ ফিশ, সামাজিক কোষ্টকাঠিন্য, কেমন করে হায়, সুখী মানুষের ভীরে…..
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ৯

৮। ডিফারেন্ট টাচ

images (39)

কার্যকালঃ- ১৯৮৫-৯৯। ২০১৩- বর্তমান
ধরনঃ- পপ, সফট রক, ব্লুস
বর্তমান সদস্যঃ- মেজবাহ (ভোকাল), পিয়াল (বেইজ ও ভোকাল), পলাশ (গিটার), তানভীর (ড্রামস), নয়ন (কি বোর্ড)
প্রাক্তন সদস্যঃ- আশরাফ বাবু, আলী আহমেদ, টুটুল, তাসনীম
জনপ্রিয় গানঃ- বাবা বলতো…, শ্রাবনের মেঘগুলো, ভালবাসার তানপুরা, কিছু কথা কিছু গান, রাজনীতি, দৃষ্টি প্রদীপ জ্বেলে, স্বর্ণলতা, পরাণের বন্ধু রে, একাকি আজ, মন কিযে চায়, তুমি পৃথিবীতে মরে, জীবন মাঝি…
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ৪

৯। আর্টসেল

images (42)

কার্যকালঃ- ১৯৯৯- বর্তমান
ধরনঃ- প্রগ্রেসিভ রক, হেভি মেটাল, মেটাল
বর্তমান সদস্যঃ- এরশাদ (লীড গিটার), লিংকন (ভোকাল ও গিটার), সাজু (ড্রামস), সেজান (বেইজ), ইশতিয়াক (লিরিসিস্ট), রুম্মন (লিরিসিস্ট),ফয়সাল (বেইজ)
প্রাক্তন সদস্যঃ- ম্যাথিউ, জাহিন রশিদ, নেয়াজ কামরান, রেয়াজ
জনপ্রিয় গানঃ- দুঃখ বিলাস, এই বৃষ্টি ভেজা রাতে, রূপক, অনিকেত প্রান্তর, রূপক, অবশ অনুভূতির দেয়াল, ছেড়া আকাশ, অদেখা স্বর্গ, চিলেকোঠার সেপাই, তোমাকে, ভুল জন্ম, পথচলা…..
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ২
মিক্সডঃ- ১৪

১০। আর্ক

images (41)

কার্যকালঃ- ১৯৯১-২০০২। ২০১০- বর্তমান
ধরনঃ- রক, পপরক
বর্তমান সদস্যঃ- আশিকুজ্জামান টুলু ( ভোকাল ও কি বোর্ড), হাসান (ভোকাল), ফয়সাল (লীড গিটার), মোরশেদ (ড্রামস), টিংকু (কি বোর্ড) , রুমি (ড্রামস)
প্রাক্তন সদস্যঃ- পঞ্চম, শামীম, পার্থ, ফেরদৌস, জাহাংগীর, রাজা, শিশির, জয়, বালাম, জুয়েল, টন্টি, মুন, জুয়েল, রেজওয়ান
জনপ্রিয় গানঃ- সুইটি, পাহাড়ের চূড়ায়, একাকী, বিদায়, গুরু, এত সুখ, অন্তহীন বেদনা, এত কষ্ট কেন ভালবাসায়, প্রেম তুমি, যারে যা, প্রিয় কবিতা(টুলু), অযুত লক্ষ নিযুত কোটি(হাসান), লাল বন্ধু(হাসান), মেতে উঠি সবাই….
এলবামঃ-
স্টুডিওঃ- ৫
মিক্সডঃ- ৯

Honoury Mention:-

azom-khan-700x336
বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতের পুরোধা পপগুরু আজম খান এর উচ্চারন ব্যান্ডের কথা সম্মানের সাথে বলতে হয়। তার হাত ধরেই ব্যান্ড সংগীত পেয়েছে জনপ্রিয়তা এবং মূলধারার সংগীত হিসেবে পেয়েছে আলাদা স্থান। এই ব্যান্ডের মাধ্যমে আজম খান গেয়েছেন ‘সালেকা মালেকা’,’রেললাইনের ওই বস্তিতে’,’আসি আসি বলে’,’আলাল ও দুলাল’,’অভিমানী’,’অনামিকা’,’মুক্তিসেনা আমি’,’নসু ভাই’,’সুখ তুমি কত দূরে’ এর মত অসাধারন গান যেগুলো আজও তরুণ সমাজ কৌতুহলের সাথে শোনে।
এছাড়া বাংলাদেশের প্রথম মেটাল ব্যান্ড রকস্ট্রাটা এবং আশির দশক কাপানো আরেক ব্যান্ড, ইন ডাকা কে এখনো এই প্রজন্মের ব্যান্ডগুলো আইডল হিসেবে দেখে।
এইগুলো ছাড়াও আশি-নব্বই এর দশক কাপায় আরও কিছু ব্যান্ড। যারা এই শতকের শুরুর দিকে কিছুটা মলিনই বলা চলে। তবে টেকনোলজি এবং সফটওয়্যার এর যুগে তাদের ন্যাচারাল মিউজিক আজও হৃদয় এর কাছাকাছি অবস্থানে। ওডেসি, তির্থক, মনিটর, সিম্পোনি, ধূমকেতু, দেশি-এমসি, ভাইকিংস, ভাইব, স্টেনটুরিয়ান, মেটাল মেইজ, পেপার রাইম, স্টিলার, মাকসুদ ও ডাকা, ডি ইলুমিনেশন, বাংলাদেশি বয়েজ, বাংলা ব্যান্ড, প্রমিথিউস, জেইনস, অরোণ্য, বিভিষীকা, মিউজিক টাচ, ডিজিটাল, পালস, রাজত্ব, অরবিট, শোনবেম, লেসন, ফেইথ, নর্দান স্টার, মাইক্রো,সোয়াট, সলিড ফিংগারস, অর্কিড, প্লেজ কার্মা, ড্রিমল্যান্ড, চারমিং, সাবকনসিয়াস, স্টারলিং এত মত ব্যান্ডগুলো পুরো নব্বই এর দশক জুড়ে একক এলবাম, মিক্সড এলবাম এর পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন অংশে কনসার্ট করে নিজেদের সংগীত প্রতিভার যেমন বিচ্ছুরণ ঘটিয়েছে তেমনি দেশের ব্যান্ড সংগীতে এনেছে সুস্থ প্রতিযোগীতা এবং নতুন জোয়াড়।

Special Mention:-

images (52)
ব্যান্ড সংগীত নিয়ে যখন লেখা তাও আবার সেরা দশ তখন এই কয়টা ব্যান্ডের নাম আলাদা করেই লিখতে হয় যারা কিনা যেকোন তালিকাতেই নিজেদের অবস্থান রাখতে পারে। এইগুলোর একটি হল নকীব খান এর রেনেসা। সোলস থেকে বেরিয়ে এসে নকীব খান এবং ছোট ভাই পিলু খান মিলে জীবনমুখী গানের দল রেনেসা প্রতিষ্ঠা করেন এবং একটি লিজেন্ডারি ব্যান্ড হিসেবে নিজেদের উচ্চ অবস্থানে নিয়ে গেছেন। এছাড়া নব্বই এর দশক কাপানো আরেক লিজেন্ডারি ব্যান্ড উইনিং এর কথা বলতে হয়। উইনিং এর কাছে বাংলা সংগীত আজীবন কৃতজ্ঞ থাকবে কারন এর লিড ভোকালিস্ট চন্দন। What a singer!!!
সঞ্জীব চৌধুরী এবং বাপ্পা মজুমদারের দলছুট, বিরোহী খালিদ এর চাইম কে ব্যান্ড সংগীতের নক্ষত্র বলা চলে। এছাড়া বাংলাদেশের পিংক ফ্লয়েড খ্যাত মেঘদল এর কথা বলতে হয় অন্যভাবে। এটাই একমাত্র বাংলা ব্যান্ড যাদের সমভাবাপন্ন একটি কমিউনিটি গ্রুপ আছে যারা এদের কট্টর সমর্থক।

Present Situation:-
বাংলাদেশি ব্যান্ড এর ইতিহাস মাথায় রেখে যদি বলি, তাহলে বর্তমান ব্যান্ড সংগীত এর অবস্থা নাজুক। টেকনোলজির কল্যাণ আর বস্তাপচা লিরিকস এর বদৌলতে সস্তা দরের গান আর স্পন্সরদের খুশি করাই এখন ব্যান্ডগুলোর লক্ষ্য হয়ে দাড়িয়েছে। আগে যেই ব্যান্ড সংগীত সমাজ বদলের কথা বলত তাদের গানে এবং লিরিকসে আজ সেই ব্যান্ড সংগীত নোংরা পলিটিক্স এর কবলে পড়ে দিনকে দিন নিজের কক্ষপথ থেকে সরে পড়ছে। ‘আন্ডারওয়ার্ল্ড ব্যান্ড’ নামে নতুন যে আধুনিক শব্দটি এই ধারার সাথে যুক্ত হয়েছে তা কতটুকু প্রভাব রেখে যায় তাই এখন দেখার বিষয়….
তবে বর্তমান সময়ে শিরোনামহীন, ব্ল্যাক, জলের গান, অর্থহীন, ক্রিপটেইক ফেইট, চিরকুট, লালন, নেমেসিস, শহরতলী, রিকল, শূণ্য এর মত ব্যান্ডগুলো এক টুকরো ভাসমান পদ্মপাতা হিসেবে বাংলা ব্যান্ড সংগীতকে বাঁচিয়ে রাখার চেষ্টা করে চলেছে।
অর্ণব এন্ড ফেন্ডস, পাওয়ারসার্জ, আরবোভাইরাস, এভোয়েড রাফা, ওল্ড স্কুল, ছাতক,মিনেরেবা এর মত নতুন ব্যান্ডগুলো নতুন আংগিকে ব্যান্ড সংগীতের ধারা ক্রমবর্ধমান রেখেছে।


মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন