Action, Blood, প্রযুক্তি আর ক্রাইমের ত্রিমাত্রিক বাহারে ভরপুর >> DREDD (2012)

Bike

 

দর্শন অভিজ্ঞতাঃ মুভি লাভারস ব্লগে ড্রেড-এর দুটি পোষ্ট দেখলাম। IMDB ঘেটেও দেখি রেটিং ৭.২। বাহ বেশ ভালো। যা হোক দর্শনে চলে যাই।

 

ব্যাপক উত্তেজনা নিয়ে মুভি দেখতে বসলাম। স্কি-ফাই মুভি পছন্দ করি। ফিউচার আমেরিকায় জনসংখ্যা এবং ক্রাইম সমানুপাতিক হারে বেড়ে চলেছে। তাই পুলিশ টুলিশ বাদ দিয়ে সরাসরি জাজেরাই পুলিশ এবং বিচারকে ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। প্রথম সিনেই জাজ ড্রেড ব্যাপক ধাওয়া করে একদল ক্রাইমারকে ধরে ফেলেন। এই উত্তেজনা শুরু……

Future America

তারপর দেখা যায় একজন মহিলা, ডাক নাম “মা-মা” ড্রাগ উৎপাদন এবং ডিষ্ট্রিবিউটশন করে। তিনি তিন জন ড্রাগ ডিলারকে দালানের উপর থেকে ফেলে দেন। এই ঘটনা অনুসন্ধানের জন্য জাজ ড্রেডকে নিযুক্ত করা হয়। সাথে একজন লেডিস সাইকিককে দেয়া হয় যিনি কিনা জজ হবার পরীক্ষায় ফেল মেরেছিলেন।

Ma-Ma

জজ ড্রেড এবং রুকি (লেডিস সাইকিক) মা-মা’র বিল্ডিং এর ভেতরে ঢুকেন। গোলাগুলি করে ১ জনকে ধরেন। তাকে ইন্টারোগেট করলে ব্যাপক তথ্য বেরিয়ে আসতে পারে এই ভয়ে মা-মা টোটাল বিল্ডিং লক করে দেন। তারপর জজ এবং রুকিকে মেরে ফেলার জন্য ব্যাপক ধ্বংস যজ্ঞ চালান।

Rookie & Dredd

এভাবেই কাহিনী এগিয়ে যায়, শেষ পর্যন্ত মারা পরে মা-মা।

 

আমার বক্তব্যঃ  মুভির স্লো মোশন এফেক্টগুলো অসাধারন হয়েছে। টাইম পাসের জন্য ছবিটা উপযুক্ত। তবে মুভিতে ব্যাপক কোন উত্তেজনা আমি খুঁজে পাইনি, যার কারনে শিহরিত হই। রক্তের ব্যাপক ছড়াছড়ি। বাইকের মডেলটা ব্যাপক ভাল লেগেছে। কিন্তু বাস্তবে এই রকম বাইক আছে কিনা আমার জানা নেই। আপনার ভাল লাগবে কিনা জানিনা তবে টাইম পাসের জন্য মুভিটা বেশ উপভোগ্য।

 

বিস্তারিত জানতেঃ

(Visited 48 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন