নেটফ্লিক্সে রাধিকা’র ‘ঘুল’

Ghoul (2018…), Country : India
Season 1 Episode 3
আগে বলি ঘুল কি? ধর্মীয় দৃষ্টি কোন থেকে ঘুল হচ্ছে পিচাশ, খারাপ জীনদের একটি জাত । অনেক সময় দানবও বলা হয়েছে যারা থাকে নির্জন মরুভুমিতে বা কবরস্থানের আশ পাশে  থাকে অনেক সময় হায়েনার রুপ ধারন করে। তবে এই পিচাশ বা  খারাপ জীনের যাত যার রক্ত মাংসের স্বাদ একবার নিবে ঠিক তার রুপ ধারন করতে পারে।

আবার অনেকের মতে ঘুল বলতে রক্ত মাংশ খেকো আশররীয় আত্বা। আর খারাপ প্ররোচিত মানুষরাই এদের আবির্ভাব ঘটায়। অনেক সময় কোন ব্যাক্তির নাম উল্লেখ করলে সেই ব্যাক্তির রুপ নিয়েও আসে। আর এই সবে কিছুর গুরু হচ্ছে ইবলিশ শয়তান। কারন ইবলিশ শয়তান খারাপ জিন বা ঘুল দের পরিচালনা করে আর মানুষের মধ্যে কুমন্ত্রণা আর প্রতিহিংসা ঢুকিয়ে দেয়। যার ফলে কুমন্ত্রনা বা ব্ল্যাক ম্যাজিক করলে  ঘুল চলে আসে বলে  অনেকের  ধারনা ।

নেটফ্লিক্স এর সিরিজ বলে কথা । তাই বাছ বিচার না করেই দেখতে বসে গেলাম।   খুব সুন্দর একটা ড্রামা হরর। যদিও খুব ভয়ের কিছু নেই কিন্তু হতাশ হবেন না ড্রামা আপনাকে বরিং করবে না। বরাবরই রাধিকা আপটে  অসাধারণ অভিনয়টা দিয়েছে।

নিদু ন্যাশনাল প্রটেকশন স্কোয়াডের অফিসার থাকে। কিন্তু তাকে এক জেলখানায় নিয়ে যাওয়া হয়। যেখানে অনেক দাগী আসামীদের রাখা হয়। সেখানে অফিসারদের সাথে কাজ দেওয়া হয়। আলী সাইদকে ধরে আনা হলো। অনেক বড় সন্ত্রাসী সে। তাকে দেখেই কয়েদিদের মধ্যে যেনো একটা চাপা আতঙ্গক বিরাজ করে। রিমান্ডে তাকে আধ মরা করে ফেলা হয়। হটাত জেলখানার উর্ধতন কর্মকর্তার কাছে ফোন আসে যে আলী সাইদের বডী পাওয়া গেছে আর সেটা সাইদের বাসায়। তার শরীরের অনেক অংশ খাওয়া খাওয়া। তাহলে জেলখানার ভিতর এ কে?? কাকে এরেষ্ট করা হলো ?? অফিসাররা সেই রুমের ভিতর প্রবেশ করলো । আলী সাইদ নেই কিন্তু আছে……।। কে মানুষ আর কে ঘুল সেটা একটা কনফিউষ্ট সৃষ্টি করবে। মনে রাখা উচিত এক রুপ নিয়ে এরা থাকে না। আশপাশের মানুষের রুপ নিয়েও থাকে। আপনার বিশ্বস্ত সহকর্মীকে বিলিভ করা ঠিক হবে না কারন আসলেই উনি মানুষ তো?? শেষের দৃশ্যটা আমার কাছে ভালই লেগেছে। 

জেলখানার ভিতরে ঘুল কিভাবে এলো আর কেনই বা নিদু কে প্রথমেই এই ভয়ংকর কারাগারে কাজের দায়িত্ব দেওয়া হলো তা সিরিজটি মনোযোগ দিয়ে দেখলেই বুঝতে পারা যাবে।

মেকিং ,ডিরেকশন, সাউন্ড সব পারফেক্টলি করা হয়েছে। নেটফ্লিক্স এর পারফেক্ট একটা মিনি সিরিজ। অনেকের মতে হরর সিন্স গুলো আরেকটু ভয়ংকর করা যেতো তবে প্লট অনুযায়ী এতটুকই হরর সিন্স যথেষ্ট। কারন ঘুলের আবির্ভাবটাই শুধু দেখানো হয়েছে। কিন্তু ঘুলকে তাড়ানার কিছু প্লটে ছিলো না। দ্বিতীয় সিজন আশা করতেই পারি।

নেটফ্লিক্স এর সাথে রাধিকার একটা ভালো আন্ডারস্টান্ডিং হয়ে গেছে । আশা করা যায় পরবর্তীতে রাধিকা আর নেটফ্লিক্স জুটি আরো ভালো ভালো সিরিজ উপহার দিবে। সেকরেড গেমসেও রাধিকার অভিনয় ছিলো চোখে পড়ার  মতন। নেটফ্লিস রাধিকা  দেখা যাক পরবর্তীতে কি চমক দেখায়।

Error: No API key provided.

(Visited 507 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১৩ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Sajib Banik says:

    ৩ পর্বের এই Ghoul (2018) সিরিজটি অসাধারণ হয়েছে ।
    Horror, thriller mixed

  2. Farzana Tarana apu etar kotha bolsi.. Eita maybe series…

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন