Viswasam (A Pure & Fresh Mass Movie)

 

 

 

 

🎞 মুভিঃ ভিসওয়াসাম (VISWASAM)

🎞 মুক্তিঃ ২০১৯

🎞 জনরাঃ অ্যাকশান, ড্রামা
🎞 অভিনয়ঃ অজিত কুমার, নয়নতারা, জাগাপতি বাবু, আনিখা
🎞 ডিরেক্টরঃ শিভা
🎞 আইএমডিবিঃ ৭.০/১০
🎞 পার্সোনাল রেটিংঃ ৭.৯/১০

.

একটি শিশুর সবথেকে কাছের মানুষ বা সবথেকে আপনজন হলো তার বাবা-মা। বাবা-মা এর থেকে আপনজন এই দুনিয়ায় আর কেউ নেই। বাবা-মা যতোই খারাপ হোক না কেনো, ছেলে/মেয়ের বিপদে আপদে সর্বদাই তারা সাহায্য করবে। কিন্তু যদি এমন হয় যে বাবা-মা এর কোন শত্রুর জন্য সন্তানের জীবনের ঝুকি রয়েছে তখন কি হবে! এইখানেও তারা তাদের জীবন দিয়ে হলেও সন্তানকে বাচাবে।
.
বলছিলাম এই বছরের সাউথের সবথেকে বড় হিট মুভি ভিসওয়াসাম নিয়ে। সাধারনত সাউথের মাস মুভি বলতে উরাধুরা অ্যাকশান, নায়ক ভিলেনের ডায়লগ বাজি, ভিলেনের নায়িকার পিছনে লাগা, মুভির শেষে নায়কের ভিলেনকে মেরে বদলা নেয়া ইত্যাদি বোঝায়। এইরকম কাহিনি নিয়ে আগে অনেক মুভি হয়েছে। তবে যুগের পরিবর্তনের সাথে সাথে এখন এইসব মুভি তেমন দেখা যায় না। এখনকার মাস মুভি গুলা অনেক ভালো এবং মানসম্মত যার প্রমান এই ভিসওয়াসাম। চলুন দেখে নেই কেমন ছিল এই মুভি-
.

 

📀📀 মুভির প্লটঃ

বাবা আর মেয়ের ইমোশনাল গল্প এবং আরো বিভিন্ন ঘটনা নিয়ে মুভিটা তৈরি করা হয়েছে। একদম সাধারন কাহিনি। যদিও এরকম কাহিনি নিয়ে সাউথে এর আগে অনেক মুভি হয়েছে। যেমনঃ বিক্রমের দেইভা থিরুমাগাল (২০১১) আবার অজিত কুমারের মুভি ইয়ান্নাই আরিন্ধাল (২০১৫)। তাই বলে এই ভিসওয়াসাম দেখার দরকার নাই এমন কোন কথা না। ভিসওয়াসামের কাহিনি চিরচেনা হলেও এর উপস্থাপনা ছিল ভালো। যাই হোক মেইন প্লটে আসি-
কোডিভিলারপাট্টি গ্রামের এক বড় চাউল কারখানার মালিক হলো থোকু দুরাই (অজিত)। গ্রামে তার অনেক নাম ডাক আর তার অনেক ক্ষমতা রয়েছে। গ্রামে কেউ অপরাধ বা কেউ কোন খারাপ কাজ করলে তিনি মারধর করে সমস্যার সমাধান করে দেন। একদিন গ্রামে মেডিকেল ক্যাম্প করার জন্য মুম্বাই থেকে কয়েকজন ডাক্তার আসে। এদের মধ্যে একজন হলো নীরাঞ্জনা (নয়নতারা)। নীরাঞ্জনা শুরু থেকেই থোকু দুরাই এর কর্মকান্ডে বিরক্ত ছিল কিন্তু ধীরে ধীরে সে তাকে ভালোবেসে ফেলে। পরে তারা বিয়ে করে এবং তাদের একটা মেয়ে হয়। এরপর ঘটে বিপত্তি। থোকু দুরাই এর প্রতিদিন তার শত্রুদের সাথে লড়াই ঝগড়া দেখে নীরাঞ্জনার ভয় হয় যে তাদের মেয়ের উপর আবার কেউ হামলা করে বসে কিনা। তার এই ভয়টাই সত্যি হয়। একদিন রাতে থোকু দুরাই এর উপর হামলা করে তার শত্রুরা। তার মেয়ে আঘাত পায়। এজন্য নীরাঞ্জনা থোকু দুরাই এর সাথে ঝগড়া করে মেয়েকে নিয়ে মুম্বাই চলে যায়। এরপর বহু বছর পর থোকু মুম্বাই আসে তাদের সাথে দেখা করার জন্য। কিন্তু এসে দেখে তার মেয়েকে কেউ মারার চেস্টা করছে। কাহিনি অন্যদিকে মোড় নেয়৷ থোকু কি পারবে তার মেয়েকে বাচাতে সেজন্য দেখুন মুভিটা।
আগেই বলেছি কাহিনিটা একদম সাধারন। আসলে সাউথের বেশির ভাগ মাস মুভির কাহিনি কখোনও প্যাচালো বা মাথা নস্ট টাইপ হয় না। এগুলো বানানো হয় শুধু বিনোদনের জন্য৷ তাই এখানে প্যাচালো কাহিনি কিংবা লজিক খোজা বোকামি। এদিক থেকে বলতে গেলে ভিসওয়াসামের কাহিনি ভালো এবং উপভোগ্য।

.

🎬🎬 ডিরেকশন এবং অন্যান্যঃ

মুভির ডিরেক্টর শিভা, ইনার সব মুভি আমি দেখি নাই তবে অজিতের সাথে করা ভিরাম (২০১৪), ভেদালাম (২০১৫) এবং ভিভেগাম (২০১৭) এই ৩ টা মুভি দেখেছি। ৩ টা মুভিই ছিল মাস মুভি এবং সাধারন কাহিনির৷ প্রথম ২ টা ভালো লাগলেও ভিভেগামটা তেমন ভালো লাগেনি। কিন্তু এবার ভিসওয়াসামের ক্ষেত্রে শিভা তার সেরাটা দিয়েছে। আসলেই এই মুভির ডিরেকশন অনেক ভালো ছিল। স্ক্রিনপ্লেলেও অনেক ভালো ছিল, বোরিং হওয়ার কোনো সুযোগ নাই। মুভির লোকেশন গুলা ছিল এককথায় দারুন। গ্রামের ক্ষেতের, নদীর পাড়, পুকুর পাড়, বাড়ি ঘরের শট গুলা অসাধারন। সিনেমাটোগ্রাফি, কালারের কাজ প্রশংসনীয়, প্রশান্তি পাওয়া যায় চোখে। অ্যাকশান সিকোয়েন্স গুলাও ভালো। অতটাও উরাধুরা মারামারি নেই। ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক, গান ইত্যাদি মুভির সাথে মানানসোই। অতিরিক্ত কিছু করা হয়নি। যাই হোক শিভার অজিতের সাথে করা আগের ৩ টা মুভির থেকে এটা যে অনেক ভালো সেটা অনায়াসে বলা যায়।

.

অভিনয়ঃ

অজিত কুমার এবারো তার যাদুকরি অভিনয় করে মন ভরিয়েছেন। মাস মুভির জন্য অজিত একদম পারফেক্ট সেটা তিনি প্রমান করলেন। মুভিতে তার ২ টা লুকই ভালো লেগেছে। অ্যাকশান, রোমান্স, কমেডি, ইমোশন সব সিনেই উনি একদম মিশে যান। মুভির নায়িকা নয়নতারাকে নিয়ে একটু ভয় ছিল কারন মাস মুভিতে নায়িকাদের তেমন কোন গুরুত্ব থাকে না আর তাদের স্ক্রিনটাইম থাকে অনেক কম। যদিও এই মুভিতে নয়নতারার তেমন গুরুত্ব ছিল না কিন্তু পুরা মুভি জুড়েই উনি ছিলেন এটা ভালো লেগেছে এবং উনি ভালো অভিনয় করেছেন। অজিত কুমারের মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছে আনিখা। সেও ভালো অভিনয় করেছে আর জগাপতি বাবুকে নিয়ে কিছুই বলবো না। সবাই জানে উনি কেমন অভিনয় করেন। এছাড়া অন্যান্য সাইড অ্যাকটরদের অভিনয়ও ভালো ছিল।

.

মুভির খারাপ দিক তেমন নাই। তবে মুভির কাহিনির জন্য অনেকে হতাশ হতে পারেন। তবে আগেই বলেছি এটা মাস মুভি এবং এটা মাথায় রেখেই মুভিটা দেখুন। একদম ফ্রেশ একটা মুভি। পরিবার নিয়ে দেখার মতো। মুভিটার অনেক জায়গায় আপনি হাসবেন আর ইমোশনাল সিন গুলিতে ইমোশনাল হয়ে পড়বেন। বিশেষ করে ক্লাইম্যাক্স সিনটার কথা বলতেই হয়। ক্লাইম্যাক্স সিনটা আপনার মন ছুয়ে যাবে এটা বলতে পারি এবং এখানে একটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাসেজ দিয়েছেন ডিরেক্টর। সেটা আর বললাম না। আপনারাই দেখে নিয়েন।
.
💙💙 মুভির বাংলা সাব করেছেন Abrar Shafin ভাই। উনাকে অনেক ধন্যবাদ এই সুন্দর সাব উপহার দেয়ার জন্য।

Error: No API key provided.

(Visited 114 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন