মুভি রিভিউ : Finding Neverland (2004)
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

জনি ডেপের অভিনয়ের ভক্ত বিশ্বব্যাপী। পইরেট্‌স অভ দ্যা ক্যারিবিয়ান সিরিজের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপী পরিচিতি লাভ করেন তিনি। তাই তাঁর কথা উঠলেই ”পাইরেট্‌স অভ দ্যা ক্যারিবিয়েনের ” ক্যাপ্টেন জ্যাক স্পারো দশর্কের কল্পনায় ভেসে ওঠে। জনি ডেপের তুমুল জনপ্রিয়তার জোয়ারে তাঁর অভিনীত সিনেমা গুলোয় পরিচালক, কলাকুশলীর চেয়ে তিনিই সবচেয়ে বেশী আলোচিত থাকেন সব সময়।

পইরেট্‌স অভ দ্যা ক্যারিবিয়ান সিরিজ ছাড়াও আরো বেশ কিছু সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছেন যেগুলো সিনেমার জনপ্রিয় ধারা এবং শৈল্পিক মান উভয় ক্ষেত্রেই সফল।

এই ধরণেরই একটি সিনেমা ”ফাইন্ডিং নেভারল্যান্ড (২০০৪) ” । মানব মনের অতৃপ্ত কল্পনার সিনেমাটিক রূপ দেয়ার প্রয়াস এটি। একটি সত্য ঘটনা এবং রূপকথার মিশেলে তৈরি সিনেমাটি শিশুমনের কল্পনার দুয়ার যেন পুরোটাই খুলে দিয়েছে। এই সিনেমাটিতে জনি ডেপ বিখ্যাত লেখক এবং নাট্যকার স্যার জে.এম. ব্যারীর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

বিখ্যত রূপকথার চরিত্র ”পিটার প্যান” কে চেনেনা এমন মানুষ হয়ত খুবই কম। পিটার প্যান চরিত্র অবলম্বনে সারা বিশ্বে তৈরি হয়েছে অসংখ্য সিনেমা, মঞ্চনাটক, কমিক্‌স, টিভি সিরিজ, কার্টুন সহ ইত্যকার শিল্পকর্ম। শিশুমনে প্রভাব ফেলার ক্ষেত্রে অন্যান্য রূপকথার চরিত্র গুলোর চেয়ে ”পিটার প্যান” অনেক বেশি সফল।

লেখক এবং নাট্যকার স্যার জে.এম. ব্যারির ”পিটার প্যান” চরিত্রটি সৃষ্টির পেছনে পরোক্ষ ভাবে প্রভাব ফেলা একটি পরিবারের চারটি পিতৃহারা শিশু এবং তাদের বিধবা মা’র সাথে স্যার জে.এম. ব্যারির সম্পর্ক নিয়ে সিনেমার কাহিনী আবর্তিত। সিনেমাটি দেখার সময় দশর্কের মনে হতে পারে ”পিটার প্যান” চরিত্র সৃষ্টিতে বোধ হয় ডেভিস পরিবারের বিধবা মিসেস সিলভিয়া লেওলিন ডেভিস এবং তার চার সন্তানের লেখক এবং নাট্যকার স্যার জে.এম. ব্যারির উপর প্রভাবই মূখ্য; এমন কি স্যার জে.এম ব্যারির সাথে বিধবা মিসেস ডেভিসের ঘণিষ্ঠতা মেনে নিতে না পারা তাঁর স্ত্রী ম্যারির এ সম্পর্কিত একটি মন্তব্যও দশর্কে তাদের অনুমানের সাপেক্ষে সমর্থন দিবে।

কিন্তু প্রকৃতপক্ষে এই পিটার প্যান চরিত্র সৃষ্টির পেছনে কাজ করেছে লেখকের অকাল প্রয়াত ছোট ভাই মাইকেলের স্মৃতি। সে দৃষ্টিকোণ থেকে বলা যায় বিধবা মিসেস ডেভিসের পরিবারের সাথে ঘণিষ্টতা তাঁর পিটার প্যান চরিত্রটি সৃষ্টির তাড়নাকে আরো গতি দিয়েছে..সহজ ভাষায় অনেকটা প্রভাবিত করেছে বলা যায়। মিসেস ডেভিসের সাথে ঘণিষ্ঠতার এক পর্যায়ে লেখকের স্মৃতিচারণমূলক স্বীকারোক্তিতে তা জানা যায়।

সিনেমাটিতে পিটার প্যান চরিত্রটি মঞ্চায়নের জন্য ব্যবহৃত মঞ্চ , মঞ্চে অভিনেতা, অভিনেত্রী ..লাইটের ব্যবহার, মিউজিক প্রভৃতি দশর্ককে সরাসরি আঠারো শতকের লন্ডনের থিয়েটারে অপেরা দেখার অনুভূতি দিবে। পিটার প্যান সৃষ্টির পূর্বে বেশ কয়েকটি নাটক লিখেও তেমন সাড়া ফেলতে পারেননি লেখক এবং নাট্যকার স্যার জে.এম. ব্যারী। লোকসানের মুখে থিয়েটার মালিক নাট্যকার স্যার জে.এম. ব্যারীর লেখা নাটক মঞ্চায়নে অস্বীকৃতি জানায়। বিশেষ অনুরোধে ”পিটার প্যান” মঞ্চায়নের সুযোগ পায় এবং প্রথম শোতেই দশর্কদের নিয়ে যায় নেভারল্যান্ডের কল্পরাজ্যে।
বিধবা মিসেস ডেভিসের শিশুগুলোর সাথে স্যার জে.এম ব্যারীর সহানুভূতিমূলক এবং বন্ধুত্বপূর্ণ পিতৃসূলভ সম্পর্ক দর্শকমনকে নাড়া দিবে।

স্যার জে.এম. ব্যারী ”পিটার প্যান” সৃষ্টির পর তাঁর স্ত্রী ম্যারী এবং বিধবা মিসেস ডেভিস দুজনেরই মনের অজান্তে নেভারল্যান্ডের কল্পরাজ্যে যাওয়ার সু্প্ত বাসনা এবং শেষ পর্যন্ত কে সত্যিকারের নেভারল্যান্ডে যেতে পারে..নাভারল্যান্ড কি সত্যিই অধরা কোন কল্পনার জগত…?

আভিনয় ছাড়াও অন্তত বেশ কয়েকটি কারণে সিনেমাটি দর্শককে
আটকে রাখবে। তার মধ্যে অন্যতম হল অসাধারণ সিনেমাটোগ্রাফী, সম্পাদনা এবং অবহ সঙ্গীত।

সিনেমাটি ২০০৫ সালের অস্কারে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা সহ ৬ টি বিভাগে মনোনয়ন পায় এবং বেস্ট অরিজিনাল মিউজিক বিভাগে অস্কার জিতে নেয়।
পরিচালকঃ মার্ক ফর্স্টার
প্রধান চরিত্রের অভিনয় শিল্পীগণঃ জনি ডেপ, কেইট উইন্সলেট, রাডাহ মিশেল, ডাস্টিন হফম্যান।

Finding Neverland (2004)
Finding Neverland poster Rating: 7.8/10 (164025 votes)
Director: Marc Forster
Writer: Allan Knee (play), David Magee (screenplay)
Stars: Johnny Depp, Kate Winslet, Julie Christie, Radha Mitchell
Runtime: 106 min
Rated: PG
Genre: Biography, Drama, Family
Released: 17 Dec 2004
Plot: The story of J.M. Barrie's friendship with a family who inspired him to create Peter Pan.

এই পোস্টটিতে ২ টি মন্তব্য করা হয়েছে

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন