শুভ জন্মদিন জ্যাক স্নাইদার ডিসি ভক্তরা বিশ্বাস করে, আপনি পারবেন!
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

new_batman_v_superman_poster_by_artlover67-d9n0iyrম্যান অব স্টিল রিলিজের পর ভক্তরা লুফে নিলেও, সমালোচকদের কাছে থেকে পাওয়া গেছিল, মিশ্র প্রতিক্রিয়া। অনেকে বলছেন, সুপারহিরো নিয়ে এটি এক মহান এক্সপেরিমেন্ট; আবার অনেকে বলছেন, নোলানের মত শুরু, কিন্তু মাইকেল ব্যের মত শেষ। তবে যে যা খুশি বলুক না কেন, সান অব ক্রিপ্টনকে কমিক্স বই এর পাতা থেকে যদি কেউ তুলে নিয়ে আসে, তবে সেটি জ্যাক স্নাইদার ছাড়া আর কেউ নন।
সমালোচনার দিকে নজর দিয়ে সুপারম্যানকে পর্দায় হাজির করা কাজটি যে কতটা কঠিন, সেটা ব্রায়ান সিঞ্জারের এর মত বড় মাপের পরিচালকও বেশ ভাল ভাবেই টের পেয়েছিলেন;অথচ এই তিনিই মার্ভেলের এক্স মেন নিয়ে সফলতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন। তাই সুপারম্যান সম্পর্কে জ্যক স্নাইদারের উক্তি হল, যদি আপনি কমিক বই এর ভক্ত হউন, তবে দেখবেন, আমি সুপারম্যানকে বদলায়নি; আর যদি আপনি পুরোন মুভি গুলোর ভক্ত হয়ে থাকনে, তবে, এটি সত্য যে আমি সুপারম্যানকে বদলে ফেলেছি। স্নাইদার বুঝিয়ে দিয়েছিলেন, প্রকৃত সুপারম্যানকে পর্দায় দেখতে হলে, ধ্বংসলীলা আপনাকে মেনে নিতেই হবে, এখানে কোন ছাড় নেই।
ম্যান অব স্টিল দিয়ে শুরু হওয়া ডিসি এক্সটেন্ডেড ইউনিভার্স এখন ব্যাটম্যান ভি সুপারম্যানের রিলিজের অপেক্ষায়। ইতিহাসে প্রথমবারের মত ডার্ক নাইট আর সান অব ক্রিপ্টনকে একসাথে পর্দায় হাজির করতে গিয়ে, জ্যাক স্নাইদারকেও কম কাঠ খড় পুড়াতে হচ্ছেনা
ব্যাটম্যান ভি সুপারম্যানের রিলিজের সময় যতটা ঘনিয়ে আসছে, উত্তেজনা এবং সেই সাথে বিতর্কও, লাগামহীন ভাবে বেড়ে চলেছে। ডিসি সিনেমেটিক ইউনিভার্স নিয়ে বিতর্কটা সবসময়ই বেশ চড়া; ক্রিশ্চিয়ান বেলের ব্যাটম্যান আর মার্ভেলের একচেটিয়া সাফল্যের বেড়া ডিঙ্গিয়ে পার হওয়া তো আসলেই সহজ কথা নয়। কেন বেন এফ্লেককে ডার্ক নাইট বানানো হল, সেই কৈফেয়ত দিতে দিতেই যখন, ডিসি ক্লান্ত; তখন নতুন বিতর্ক শুরু হল, তাদের মার্কেটিং পলিসি নিয়ে; কেন দ্বিতীয় ট্রেইলারে ডুমসডেকে দেখানো হল, কেন ব্যাটম্যান আর সুপারম্যানকে এক সাথে দেখিয়ে দেয়া হল!!! ডিসি খুব দ্রুত বুজতে পারল, কাজটা মোটেই ঠিক হয়নি, মার্ভেল পলিসি আর ডিসি পলিসি কখনই এক হওয়া সম্ভব নয়। ফলাফল, ফাইনাল ট্রেইলার, যেটা বেন এফ্লেকের ব্যাটম্যান বিতর্কটাকে অনেকটা ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করে দিয়েছে
ফাইনাল ট্রেইলারঃ https://
www.youtube.com/watch?v=eX_iASz1
Si8
যা বললাম, সবই পুরনো, নতুন হল, এবার বিতর্কে যোগ দিয়েছে, খোদ Warner Bros. নিজেই
Warner Bros. চিন্তিত হয়ে পড়েছে, মুভিটির সাফল্য নিয়ে! আশ্চর্য হওয়ার বিষয় হল, তারা মুভিটির মান নিয়ে মোটেই চিন্তিত না; বরং তারা চিন্তিত, দর্শকদের দর্শন নিয়ে। ব্যাটম্যান ভি সুপারম্যান যদি তথাকথিত সুপারহিরোর প্রচলিত ধারার বাইরে গিয়ে সত্যিই কোন কিছু দেখানোর চেষ্টা করে, তবে সকল শ্রেণীর দর্শকের কাছে কি, সেটি আসলেই তুমুল জনপ্রিয়তা পাবে! Warner Bros. আরও বলছে, মার্ভেলের পপকর্ন মুভিগুলো দর্শক যতটা দ্রুত লুফে নিচ্ছে, অস্কার জয়ী ক্রিস টেরিয়ও গল্পের গভীরতায়, তারা আদৌ কতটা প্রবেশ করতে পারবে, সেটা বলা আসলেই কঠিন।
ধরে নিলাম, Warner Bros. এর এই চিন্তিত হয়ে পড়া বিষয়টিও শেষ মুহুর্তের আরও একটি মার্কেটিং পলিসি, এর মাধ্যমে তারা বুঝিয়ে দিল, মার্ভেল শুধু পপকর্ন মুভি বানায়
কিন্তু সব কিছু ছাপিয়ে, সব বিতর্ক দূরে ঠেলে, ডন অব জাস্টিস যদি আসলেই বক্স অফিস কাঁপাতে না পারে, তবে, ডিসি সিনেমেটিক ইউনিভার্সের ভবিষ্যৎ অন্ধকার হয়ে যাবে।
ব্যক্তিগত ভাবে, সমালোচকেরা ব্যাটম্যান ভি সুপারম্যান ডন অব জাস্টিসকে কিভাবে নিবেন, এটি নিয়ে আমি মোটেও চিন্তিত নই, আমি চিন্তিত, মুভিটা ডিসি কমিকসের চরিত্রগুলোকে কতটা হাজির করতে পারবে সেটি নিয়ে। ট্রেইলার দেখে যতটুকু বুঝলাম, সমালোচনার মুখে ছাই ঢেলে স্নাইদার এবারও দেখাবেন, উত্তাল ধ্বংসলীলা
এদিকে জ্যাক স্নাইদার জাস্টিস লিগ মুভিরও ঘোষণা দিয়ে ফেলেছেন, এই এপ্রিলেই শুরু হবে শুটিং
স্নাইদার কে নিয়ে আমার লেখাঃ
https://www.facebook.com/groups/
movieaddictedBD/permalink/
586709808133341/
শুভ জন্মদিন জ্যাক স্নাইদার ডিসি ভক্তরা বিশ্বাস করে, আপনি পারবেন।

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন