লা লা ল্যান্ডঃ অ্যা ক্লাস অফ ইটস অউন
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

 

13620148_556866004500004_7755297631909373774_n

City of stars…
Are you shining just for me?

চলচ্চিত্রটি স্বপ্ন বিভোর দুই তরুণ-তরুণী ঘিরে। সেবাস্তিয়ান স্বপ্ন দেখে মৃত প্রায় জ্যাজ মিউজিক কে আবার বাঁচিয়ে তুলার আর কফিশপে কাজ করা মিয়া স্বপ্ন দেখে নামকরা অভিনেত্রী হওয়ার। প্রথম দেখার পর ধীরে ধীরে তারা পরস্পরের কাছাকাছি আসে এবং ভালবাসতে শুরু করে। একজন হয়ে উঠে অন্যজনের প্রেরণার শক্তি। তাদের প্রেম আর বাস্তবতার কঠিন দ্বন্দ্ব নিয়ে ড্যামিয়েন সেজেলের “ লা লা ল্যান্ড ”

হার্ভার্ডে অধ্যয়নকালীন সময়ে সংগীতপ্রেমী ড্যামিয়েন সেজেলের মাথায় আসে লা লা ল্যান্ডের আইডিয়া। ২০১০ সালে লিরিসিস্ট বন্ধু জাস্টিন হারউইটজকে সাথে নিয়ে লিখে ফেলেন ছবির স্ক্রিপ্ট। কিন্তু একে তো নেই পরিচিত কোন ক্লাসিক গান তার উপর ছবিতে ব্যবহার করা হবে বিলুপ্তপ্রায় জ্যাজ মিউজিক তাই কোন স্টুডিওই তার ছবিতে অর্থায়ন করতে রাজি হয়নি। একপর্যায় প্রডিউসার মিললেও; তাদের কথা অনুযায়ী ছবিতে আনতে বেশ কিছু পরিবর্তন। কিন্তু ছবির স্ক্রিপ্ট বদলাতে নারাজ সেজেল শেষমেশ প্রজেক্টই বাদ দিয়ে দেন। লেখা শুরু করেন হুইপলাশের স্ক্রিপ্ট। তারই পরিচালনায় ছবিটি মুক্তি পায় ২০১৪ সালে। সমালোচকদের পাশাপাশি সাধারণ দর্শকদের মাঝে ব্যাপকভাবে সমাদৃত হন। আর হুইপলাশের এই ব্যাপক সফলতার ফলেই এবারে তার অসম্পূর্ণ স্বপ্ন নিয়ে হাজির হয়েছেন ড্যামিয়েন সেজেল। এবং অতিক্রম করছেন একের পর এক মাইল-ফলক।

16472851_661390420714228_2720302530607690964_n

এসময়কার মিউজিকাল রোম্যান্টিক ছবিগুলো আমাকে তেমন একটা আকর্ষণ করেনা তাই লা লা ল্যান্ড নিয়ে প্রত্যাশা কমই ছিল আসলে।কিন্তু তারকাদের সাবলীল অভিনয়ের পাশাপাশি দক্ষ পরিচালনার কারণেই হয়তো দ্বিতীয়বার দেখার পর ছবিটি খুব ভালো লেগেছে। পুরোনা ধাঁচের চিত্রনাট্যের সাথে আধুনিক স্টোরিটেলিংয়ের সুন্দর সমন্বয়ে ড্যামিয়েন শেজেল তৈরি করেছেন যথেষ্ট স্মার্ট একটি মিউজিক্যাল ড্রামা; অন্য কোন পরিচালক গল্পটি এমনভাবে ফুটিয়ে তুলতে পারতেন কিনা সন্দেহ আছে। অসাধারণ পরিচালনার পাশাপাশি ছবির গল্পটাও সুন্দর এবং বাস্তবধর্মী ছিল। আর মন মাতানো আবহ সংগীত এবং কোরিওগ্রাফির সাথে চমৎকার সিনেমাটোগ্রাফি আপনাকে নিয়ে যাবে সেই ষাটের দশকের ক্লাসিক মিউজিকাল কিংবা রোম্যান্টিক ছবিগুলোর জগতে। স্মরণ করিয়ে দিবে ক্যাসাব্লাঙ্কা কিংবা সিংগিং ইন দা রেইনের কথা অথবা ওয়েস্ট সাইড স্টোরি কিংবা মাই ফেয়ার লেডির। তবে সবকিছুর পরেও লা লা ল্যান্ড যেন ব্যতিক্রম একটা কিছু;  লা লা ল্যান্ড ইজ অ্যা ক্লাস অফ ইটস অউন।

15235607_619423054910965_4303666385574524823_o

 

রায়ান গসলিংয়ের সাথে প্রথম পরিচয় নোটবুক চলচ্চিত্র দিয়ে। এর পর থেকে তার বেশ কিছু ছবি দেখেছি। সবগুলো ছবিতেই তার অভিনয় ভালো লেগেছে। লা লা ল্যান্ডেও সেবাস্তিয়ান চরিত্রে তিনি ভালো অভিনয় করেছেন। রোলটির জন্যে বেশ কষ্ট করেছেন তিনি। গান, নাচের পাশাপাশি তাকে পিয়ানো বাজানো শিখতে হয়েছে। বিখ্যাত সঙ্গীতশিল্পী ও এই ছবিতে পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করা জন লিজেন্ড (যিনি নিজেই একজন ক্লাসিক্যাল পিয়ানো বাদক) শুটিং চলাকালীন সময় গসলিং এর খুব দ্রুত পিয়ানো বাজানো শেখার সামর্থ্য দেখে বলেন যে তিনি নিজেই ঈর্ষান্বিত হয়ে যাচ্ছিলেন।

15068554_615800771939860_2777959738547144355_o

ক্রেজি, স্টুপিড, লাভ আর গ্যাংস্টার স্কোয়াডের পর তৃতীয় বারের মত গস্লিংয়ের সাথে অভিনয় করেছেন এমা স্টোন। খুব সম্ভবত ক্রেজি, স্টুপিড, লাভেই প্রথম দেখেছিলাম এমা স্টোনকে। তার অভিনয়ের প্রেমে পড়েছি বার্ডম্যানে সাপোর্টিং রোলে তার অভিনয় দেখে। এবং লা লা ল্যান্ড দেখে আবার নতুন করে তার অভিনয়ের প্রেমে পড়লাম। সত্যি কথা বলতে রায়ান থেকে এমার অভিনয়ই বেশি ভালো লেগেছে আমার। মিয়া চরিত্রে অসাধারণ অভিনয় করেছেন তিনি।

15156917_619422748244329_3828940380631007799_o

এমা স্টোন আর রায়ান গোস্লিং মধ্যকার কেমিস্ট্রি হচ্ছে ছবির আরেক গুরুত্বপূর্ণ দিক। মিউজিকাল/কমেডি ক্যাটাগরিতে দুজনেই গোল্ডেন গ্লোব জিতেছেন এবং প্রধান চরিত্রে অস্কারের নমিনেশন পেয়েছেন। তবে ক্যাসি অ্যাফ্লেকের জন্যে হয়তো গস্লিংয়ের অস্কার মিস হলেও আশা করছি এবারে এমার অস্কার মিস হচ্ছেনা।

ছবিতে বেশ সুন্দর সুন্দর কিছু গান রয়েছে চাইলে নামিয়ে শুনতে পারেন।
লিংকঃ https://goo.gl/KgednI

ছবির একটা জিনিসই আমার ভালো লাগেনি, সেটা হচ্ছে শুরুর গানটি; হয়তো সেটা না থাকলেও চলতো। আর আবার বলছি ছবিটি যেহেতু মিউজিক্যাল ঘরানার তাই প্রথমে অনেকের হয়তো ভালো নাও লাগতে পারে। আমি নিজেও মিউজিক্যাল ড্রামার তেমন বড় ফ্যান নই, তবে দ্বিতীয়বার দেখায় আসলেই খুব ভালো লেগেছে। তাই অনুরোধ করবো দ্বিতীয়বার দেখার। আর যদি মিউজিক্যাল নিয়ে কোন সমস্যা না থাকে তাহলে বলবো “ইউ আর ইন ফর অ্যা ট্রিট”

La La Land (2016)

জনরাঃ কমেডি, ড্রামা, মিউজিক্যাল
ব্যাক্তিগত রেটিংঃ ৫/৫
আইএমডিবি রেটিংঃ ৮.৫/১০
মেটাক্রিটিকঃ ৯৩%
রোটেনটম্যাটোসঃ ৯৩% ফ্রেশ

Nominated for 14 Oscars.
Another 153 wins & 204 nominations.

La La Land (2016)
La La Land poster Rating: 8.8/10 (67,794 votes)
Director: Damien Chazelle
Writer: Damien Chazelle
Stars: Ryan Gosling, Emma Stone, Amiée Conn, Terry Walters
Runtime: 128 min
Rated: PG-13
Genre: Comedy, Drama, Musical
Released: 25 Dec 2016
Plot: A jazz pianist falls for an aspiring actress in Los Angeles.

এই পোস্টটিতে ২ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Rk Nahid says:

    Motamuti lagce amar kase… Mamamiah was better than this…

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন