অদ্ভুত “অসাধারণ” ডাক্তার
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

images(7)

মুভিঃ ডক্টর স্ট্রেঞ্জ
জনরাঃসাইফাই,এডভেঞ্চার,ফ্যান্টাসি,সুপারহিরো
অভিনয়ঃ বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচ,র‍্যাচেল ম্যাকএডামস,চিউইটেল এজিওফোর(উচ্চারণ পারি না),ম্যাডস মিকলসেন,টিল্ডা সুইন্টোন।

গল্পের শুরু এভাবে
ধনী,অহংকারী,সুদর্শন এবং সফল একজন নিউরোসার্জন ডক্টর স্টিফেন স্ট্রেঞ্জ।ভালই চলছিল তার দিন।কিন্তু হটাৎ একদিন এক গাড়ি দূর্ঘটনায় পড়ে নিজের হাত দিয়ে কাজ করার ক্ষমতা হারান ডক্টর স্ট্রেঞ্জ।যে হাত দিয়ে গান শুনতে শুনতে ব্রেন থেকে বুলেট টেনে বের করতেন সে হাত দিয়ে তিনি নিজের নামটা পর্যন্ত লিখতে পারছেন না।নিজের হাতদুটোকে কার্যকর করতে দেদারসে খরচ করলেন তিনি কিন্তু ফলাফল শুন্য।শেষমেষ খবর পেলেন নেপালে এক অদ্ভুত চিকিৎসা আছে যার মাধ্যমে ফিরে পেতে পারেন তার হাতের শক্তি।চলে গেলেন কাঠমুন্ডু। সেখানে গিয়ে সাক্ষী হলেন এক স্প্রিচুয়াল ম্যাজিকাল দুনিয়ার।হাটু গেড়ে মাথা নত করে বললেন “টিচ মি।”
এভাবেই আগাতে থাকে গল্প।

বেনেডিক্ট কাম্বারব্যাচের অভিনয় নিয়ে কারো কোন প্রশ্ন থাকা উচিত না।”দ্যা ইমিটেশন গেম”, “শার্লক”, “দ্যা ফিফথ স্টেট” এর মত কাজগুলো করে তার এবিলিটি আগেই প্রমাণ করেছেন।ডক্টর স্ট্রেঞ্জের চরিত্র মনে হয় না সে ব্যাতিত অন্য কেউ এতটা পার্ফেক্ট ভাবে ফুটিয়ে তুলতে পারতো।এরোগ্যান্ট ও হিউমেরাস ক্যারেক্টার বেনেডিক্ট কেমন প্লে করে সেটা “শার্লক” থেকেই বোধ করি সবাই জানে।মূলকথা এরোগেন্সি,হিউমার,ফ্রাস্ট্রেশন,একশন প্রতিটা দিক দিয়ে বেনেডিক্টের অভিনয় অনবদ্য।দ্যা এনসিয়েন্ট ওয়ান এর চরিত্রে টিল্ডা সুইন্টোন আর মরডোর চরিত্রে চিউইটেল এজিওফোর ভাল অভিনয় করেছেন।ডক্টরের লাভ ইন্টারেস্ট(!) এর চরিত্রে র‍্যাচেল ম্যাকএডামসকেও ভাল লেগেছে।তবে তার ক্যারেক্টার ঠিক কতটা প্রয়োজনীয় তা তর্কসাপেক্ষ ব্যাপার।এন্টি হিরো হিসেব ছিলেন ম্যাডস মিকেলসেন।এন্টি হিরো হিসেবে তিনি এতটাই ব্যাডএস ছিলেন যে তার স্ক্রিন টাইম অনেক কম মনে হয়েছে।মনে হয়েছে আরেকটু বেশিক্ষন স্ক্রিনে থাকলে বেশি ভাল হত।

images(6)

মুভির ডিরেক্টর স্কট ডেরিকসন।তার কাজে তিনি সফল।ডক্টর স্ট্রেঞ্জ তৈরী করার জন্য তিনি এতটাই পাগল ছিলেন যে মার্ভেলের কাছে নিজের টাকায় ডক্টর স্ট্রেঞ্জের একটা কন্সেপ্ট ভিডিও তৈরী করে নিয়ে যান যাতে তাকে মুভিটা ডিরেক্ট করার সুযোগ দেওয়া হয়।এতটা প্যাশনেট হলে তার কাজ খারাপ হতে পারে?

মুভির একটা ভাল দিক হচ্ছে মুভির গল্পের সাথে যুক্ত হতে আপনার খুব বেশি সময় লাগবে না।যদি আপনি কোনভাবে মুভির প্রথম পাঁচ মিনিট মিস করেন তাহলেই খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্লট মিস করে যাবেন।মানে মুভির গল্প এমনই যে প্রতিটা মূহুর্ত আপনাকে স্ক্রিনের দিকে তাকিয়ে থাকতে বাধ্য করবে।ডায়লগ ওকে টাইপ ছিল।আর মার্ভেলীয় হিউমারে ভরপুর ছিল মুভি।চিৎকার করে হাসার দৃশ্যের কমতি নেই মুভিতে।

মুভির ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোরও খুব ভাল।এবার বলি মুভির বেস্ট পার্টটার ব্যাপারে।মুভির ভিএফএক্স বা সিজিআই এতটাই দুর্দান্ত ছিল যে মনে হয় না কেউ চোখের পলক কয়েক সেকেন্ডের জন্য হলেও বন্ধ রাখতে পারবে।মার্ভেলের ডক্টর স্ট্রেঞ্জের সিজিআই মার্ভেলাস।”ইনসেপশন”,”লাইফ অফ পাই”,”ইন্টারস্টেলার”,”ম্যাড ম্যাক্স” থেকেও সম্ভবত ভাল ছিল ডক্টর স্ট্রেঞ্জের ভিএফএক্স বা সিজিআই যাই বলেন।মুভির প্রাণ বলতে গেলে এটাই।

মুভিতে ছোট খাট অনেক ক্লু আছে লক্ষ্য করে দেখলে আশা করি মজা পাবেন।যেমন লন্ডনের একটা রোডের নাম কিংবা ওয়াইফাই পাসওয়ার্ড।

মুভি শেষ করার পর আপনিও বলবেন, “Dormamu,I’ve come to bargain.” 😁

ডক্টর স্ট্রেঞ্জের খারাপ দিক কি আছে?অবশ্যই আছে।কিন্তু সেগুলো বলতে চাই না কারণ একটা নেগেটিভ কমেণ্টেও কেউ প্রভাবিত হয়ে এই মুভি থ্রিডিতে না দেখার ভুল করে তাহলে “পাপ হবে পাপ”। 😛

ডক্টর স্ট্রেঞ্জ এর আইএমডিবি রেটিং ৮/১০
রটেন টমেটোসে ৯১% ফ্রেশ
মেটাক্রিটিকে স্কোর ৭২
রজার ইবার্ট ডটকম দিয়েছে ২.৫/৪

মুভিতে দুটো পোষ্ট ক্রেডিট সিন আছে।যদিও আমি একটা মিস করছি। 😖 আমার মতে ক্যাপ্টেন আমেরিকা উইন্টার সোলজার এবং ডক্টর স্ট্রেঞ্জ মার্ভেলের বেস্ট সোলো সুপারহিরো মুভি।

**যদি আপনার সুযোগ থাকে তবে অবশ্যই অবশ্যই এবং অবশ্যই মুভিটা থ্রিডিতে দেখবেন নাহলে যে কি মিস করবেন তা লিখার ক্ষমতা আমার নেই।

Doctor Strange (2016)
Doctor Strange poster Rating: N/A/10 (N/A votes)
Director: Scott Derrickson
Writer: Scott Derrickson (screenplay), C. Robert Cargill (screenplay), Jon Spaihts (story by), Scott Derrickson (story by), C. Robert Cargill (story by), Steve Ditko (comic book)
Stars: Rachel McAdams, Benedict Cumberbatch, Amy Landecker, Mads Mikkelsen
Runtime: 115 min
Rated: PG-13
Genre: Action, Adventure, Fantasy
Released: 04 Nov 2016
Plot: A neurosurgeon with a destroyed career sets out to repair his hands only to find himself protecting the world from inter-dimensional threats.

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন