The Martian – An extremely amusing film.

 

মঙ্গল গ্রহ নিয়ে কল্পনা, ধারনা নিয়ে গবেষণার খুব অগ্রগতি হয়েছে বলা যায়। মঙ্গল গ্রহে পানির সন্ধান আজ নাসার অনেক ধারনার বাস্তব রুপ। তাই মঙ্গল গ্রহকে প্রান গ্রহ বললে খুব একটা ভুল হবেনা, বাকিটা আরো গবেষণার বিষয়।

maxresdefault

এবার মুভির প্লটে  যাওয়া যাক…
Ares 3 মিশন নিয়ে মঙ্গলে আছেন ৬ জনের একটি দল। গবেষণা চলাকালে ভয়াবহ ঝড়ের কবলে পড়েন তারা। দ্রুত সিদ্ধান্ত হল এমন অবস্থায় গবেষণা চালানো সম্ভব না, তাদের পৃথিবীতে ফিরে যেতে হবে।  কিন্তু তাদের সাথে ফিরে যেতে পারেনি একজন। তিনি হলেন মার্ক ওয়াটনি যিনি একজন যথেষ্ট টেকনিক্যাল জ্ঞান সম্পন্ন উদ্ভিদ বিজ্ঞানী। দলের একজন কমান্ডার করে জানায় যে মার্ক মারা গেছেন। এটা বিশ্বাস করেই কমান্ডার পৃথিবীতে বাকিদের নিয়ে নিরাপদে ফিরে যায়। এবং নাসা হেডকোয়ার্টারেও মার্ক ওয়াটনির মৃত্যুর সংবাদ চলে যায়। কিন্তু সৌভাগ্যবশত সেই ঝড়ের কবল থেকে বেঁচে যান মার্ক ওয়াটনি।

martian-poster-image

বেচারা বেঁচে গিয়েও বিপদে পড়েছে। একে তো ভিন্ন গ্রহ, প্রতিকূল পরিবেশ তার উপর নেই পর্যাপ্ত খাবার। অন্যদিকে ঝড়ে অ্যান্টেনা ভেঙ্গে যাওয়ায় সিগনালও দিতে পারছেনা। এমন অবস্থায় সে সিদ্ধান্ত নিল তাকে বাচতেই হবে, এখানে সে মরতে আসেনি। শুরু হল মঙ্গলে বেঁচে থাকার যুদ্ধ। কিভাবে খাবার সংগ্রহ করবে, কিভাবে বেঁচে থাকবে এটা মুভিতেই দেখবেন। একজন উদ্ভিদবিজ্ঞানী তার জ্ঞানের পারফেক্ট ব্যবহার করেছেন। এবং এক সিনেমার এক পর্যায়ে তিনি সায়েন্সের লিমিটেশনকেও বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে দিয়েছেন বেঁচে থাকার তাগিদে :v সায়েন্সের আবার লিমিটেশন কিরে !? 😛

Matt-Damon-will-play-Mark-Watn

তাই সবকিছু মিলিয়ে মুভিটাকে আর স্পেস মুভি বলতে পারছিনা। 😀

The-Martian-Matt-Damon

এরকম অবস্থায় একটা প্রতিকূল প্লানেটে সারভাইভ করার জন্য মেন্টাল সিকিউরিটিরও দরকার হয়ে পড়ে। তখন একা একাই জোক করা বেশ কাজে দেয়। মুভিতে মার্ক ওয়াটনি চরিত্রের এই সেলফ ডেপ্রিকেটিং জোকস এর ব্যাপারটা আমার বেশি ভাল লাগছে। এই ব্যাপারটা পরিচালক রিডলি স্কট দারুনভাবে প্রেজেন্ট করছে। আমার কাছে মনে হয়েছে মার্ক ওয়াটনি ক্যারেক্টারের এই পার্টটা হিলারিয়াস না হলে মুভিটা বোরিং হয়ে যেত।

4gbgPX0

সায়েন্স ফিকশন মুভিতে থিয়োরিটক্যালি পারফেকশন আনা বিশাল চ্যালেঞ্জ। তাই রিডলি স্কট নাকি এ ব্যাপারে নিয়মিত নাসার সাথে যোগাযোগ করেছেন। এবং ফাইনালি নাসাকে যখন পুরো মুভিটা দেখানো হয়। কোন রকম সম্পাদনা ছাড়াই নাসা এই মুভিকে থিয়োরিটিক্যালি মোস্ট পারফেক্ট সায়েন্স ফিকশন মুভির সার্টিফিকেট দিয়ে দিয়েছে। ইন্টারস্টেলার মত জটিল কোন ফ্যাক্ট এই মুভিতে নেই। যতটুকু ব্যাসিক আছে তা দিয়েই বেশ ভালভাবে বুঝেই মুভিটা দেখতে পারবেন আশা করি। এর বাইরেও কিছু ফ্যাক্ট আছে সেগুলো নিয়ে পরে আলোচনা করা যেতে পারে 🙂

মুভির ভিজুয়াল ইফেক্ট ছিল দুর্দান্ত। বিশেষ করে ধূলিঝড়ের দৃশ্যগুলো, স্পেসক্রাফটের ভেঙ্গে যাওয়া অংশের এদিক অদিক বিচ্ছুরন। শুধু মিস করেছি হ্যান্স জিমারের ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক। এই দৃশ্যগুলোতে হ্যান্স জিমারের মিউজিক থাকলেই পুরো ব্যাপারটাই মাক্ষি হয়ে যেত।

Ns0Z2i3

মুভিতে তেমন সাস্পেন্সের জায়গা ছিলনা, কিন্তু মুভিতে আয়রন ম্যানের রেফারেন্স যখন প্লেস করছে তখন আমি হাসছি+সাসপেন্স ফিল করছি। এই অংশটুকু নিয়ে আর কিছু বললাম না, মুভির বেস্ট পার্ট ছিল এটা। সবশেষে বলব নভোচারী হতে খুব অনুপ্রেরণা জোগাবে মুভিটি, দেখা শেষে আমার এমনটাই মনে হয়েছে 🙂

tumblr_nvql56Iedz1uofiodo1_1280

মুভিটা দেখলাম স্টার সিনেপ্লক্সের নতুন হল স্টার প্রিমিয়ামে (হল ৬), ৪ নাম্বার হলের আসন সংখ্যা বেশি না তবে স্ক্রিন জোস। পুরনো হল গুলোর চেয়ে অনেক অনেক ভাল। এই মুভির জন্য খুব ভাল ৩ডি এক্সপেরিয়েন্স হয়েছে আমার। মুভিটা সিনেমা হলে দেখতে চাইলে ৬ নাম্বার হলেই দেইখেন 🙂

*** কমেন্টে কেউ এই মুভির ডাউনলোড লিংক চাইবেন না। মুভি রিলিজ হয়েছে সপ্তাহ খানেক হল। ব্লুরে রিলিজ হলে ডাউনলোড লিংক শেয়ার করা হবে।

The Martian (2015)
The Martian poster Rating: 9.1/10 (185 votes)
Director: Ridley Scott
Writer: Drew Goddard (screenplay), Andy Weir (book)
Stars: Kate Mara, Matt Damon, Jessica Chastain, Kristen Wiig
Runtime: 130 min
Rated: PG-13
Genre: Action, Adventure, Sci-Fi
Released: 02 Oct 2015
Plot: During a manned mission to Mars, Astronaut Mark Watney is presumed dead after a fierce storm and left behind by his crew. But Watney has survived and finds himself stranded and alone on the hostile planet. With only meager supplies, he must draw upon his ingenuity, wit and spirit to subsist and find a way to signal to Earth that he is alive.

(Visited 103 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১৩ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. গত বছর Interstellar দেখার পর মনে হয়েছিল কাহিনি আর সবকিছু দিয়ে Interstellar ই সেরা । এটাও দেখব খুব তাড়াতাড়ি ব্যাস্ততা শেষ হলেই
    ট্রেইলার টাও ভাল লাগসে …

  2. ভাই কেমন আচেন।
    আমাকে একটা ‘বাংলা’ ‘হিন্দি’ ‘ইংলিশ’ নতুন মুভি নেয়ার জন্ন্য একটা ভালো id.. দেন।
    আমি জানি আপনার কাচে আচে।।।।।

  3. ভালো সিনেমাটা ।কারন গল্পটা রিডলি স্কট এর হাতে পড়েছে ।কিন্তু এই একই থিমে বেশকিছু সিনেমা হয়েছে হলিউডে ।বিশেষ করে ইন্ডি ক্লাসিক Robinson Crusoe on Mars বা Mission to Mars জাতীয় সিনেমাগুলো।

  4. i totally disliked it..so boring..with no twist..and unreal..

  5. Ali Mahmud says:

    I thought it would be damn serious..bt I guess i was wrong..this movie is surprisingly funny…and the iron man scene tho..everyone in the theater were either shaking legs or laughing as hard as possible

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন