Perfume: The Story of a Murderer (2006)
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

পরিচালনা: Tom Tykwer

অভিনয়: Ben Whishaw, Dustin Hoffman, Alan Rickman

মুক্তিকাল: 14 September, 2006 (Germany) / 147 mins

জেনর: Crime/ Drama/ Fantasy

আইএমডিবি রেটিং: 7.5

perfume_ver2_xlgসুরের যেমন মৌলিক নোট আছে__ সা, রে, গা, মা ইত্যাদি। তেমনি পারফিউম এর আছে নিজস্ব মৌলিক কিছু স্তর বা নোট__ টপ নোট, মিডল বা হার্ট নোট, বটম বা বেজ নোট আর ব্রিজ ইত্যাদি।

দুই বা ততোধিক সুগন্ধি’র মিশ্রণে তৈরি হয় পারফিউম। পারফিউম এর বিভিন্ন স্তরে প্রথমেই যে সুগন্ধি নাকে এসে ধাক্কা দেয় তীব্র ভাবে, মনকে উতলা করে; তা হল টপ নোট। যদিও এর স্থায়িত্বকাল খুব অল্প। মিডল বা হার্ট নোট এর সুগন্ধি বলতে গেলে পুরো শরীরে ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়ে, বেজ নোট এর সহায়তায় এবং কোন প্রজাতির সুগন্ধি সেটা বয়ান করে। আর এটার স্থায়িত্বকাল কয়েক ঘণ্টা। বেজ বা বটম নোট হল সুগন্ধির ভিত্তি। এটাই বাকী সব মিশ্রিত সুগন্ধি গুলোকে এক সাথে বেঁধে রাখে। এটা সাধারণত তেল জাতীয়। কয়েক ঘণ্টা থেকে দিন পর্যন্ত এর ব্যাপ্তি। ব্রিজ এর কাজ হল একাধিক সুগন্ধি’র বিভিন্ন সময়ে সন্তরণে সহায়তা দান।

উপরের বিষয়ের অবতারণা, শুধুই তাঁদের জন্যে যারা এখনও মুভিটা দেখেননি। জানা থাকলে মুভিটা দেখার আনন্দ অনেকগুণ বাড়বে।

প্রথম বার যখন মুভিটা দেখি, আমার কাছে এর পুরো কাহিনীটার চলচ্চিত্রায়ন অসম্ভব বলে মনে হয়েছে। জার্মান চলচ্চিত্রকার Tom Tykwer (Run Lola Run খ্যাত) আর সেই সাথে মূল লেখক Patrick Suskind এর প্রতি শ্রদ্ধা অবধারিত ভাবেই এসে গিয়েছিল। কারণ আপনি কিভাবে শব্দ দিয়ে সুগন্ধি আর এর অনির্বচনীয় প্রহেলিকা বর্ণনা করবেন? বা সেল্যুলয়েডে ফুটিয়ে তুলবেন?!

ভাবলাম বইটাই পড়ে দেখি। কপাল ভালো Sean Barrett এর Audiobook (174 MB) পেয়ে গেলাম Pirate Bay’তে (http://thepiratebay.sx/torrent/8801871/)… চুম্বকের মতো আটকে ছিলাম ৫০৬ মিনিটের পুরো গল্পটায়। ভুলে গেছিলাম কখন সকাল হয়ে গেছে…!!!

আজ থেকে ৩০০ বছর আগে প্যারিসের এক নোংরা দুর্গন্ধময় এলাকায় জন্ম নেয় এক শিশু, নাম Grenouille (Ben Whishaw). তার বেড়ে উঠা এক মহিলার কাছে ভীষণ অনাদরে, যা অনাথ আশ্রম বললে অত্যুক্তি হয়না। স্বল্পভাষী ও নির্বান্ধব Grenouille তারপরও বৈরি পরিবেশে নিজেকে খাপ খাইয়ে নেয় চমৎকার ভাবে।

অসাধারণ একটা গুণ ছিল তার, আর তা হল আশেপাশের পরিবেশের সব কিছুর গন্ধের বৈচিত্র সে অন্য সবার চেয়ে খুব ভালভাবেই বুঝতে এবং আলাদা করে চিনতে পারতো। তার এই অসাধারণ ইন্দ্রিয় ক্ষমতার জন্যে অল্প বয়সেই, সে সময়কার প্যারিসের নামকরা পারফিউমার Baldini’র (ডাস্টিন হফম্যান) কাছে চাকরি পেয়ে যায়। খুব কম সময়েই Baldini’র পড়তি ব্যবসা উন্নতির চরম শিখরে পৌঁছে যায় নিত্য নতুন অসাধারণ পারফিউম এর কারণে এবং তা শুধু এই অল্প বয়সী Grenouille এর জন্যে।

Grenouille’র এই অনায়াসে নিখুঁত পারফিউম তৈরী তার মধ্যে কোন রূপ পরিবর্তন আনে না। কারণ তার উচ্চাকাঙ্ক্ষা ছিল সে বিভিন্ন সব বস্তু থেকে সুগন্ধি তৈরি এবং সবশেষে মানবদেহের সৌন্দর্য থেকে সুগন্ধি আহরণের বাসনা জাগে। তার এই শেষ সাধনা __ যা এক সময় তাকে বানিয়ে ফেলে একজন বিভীষিকাময় খুনী।

পুরো মুভিতে Grenouille এতো কম শব্দই উচ্চারণ করেছে যে, মুভি’র কিছু ঘটনা আর পরিস্থিতি প্রতিষ্ঠা করতে পরিচালক এখানে ব্যাকগ্রাউন্ডে গল্প বলায় John Hurt কে ব্যবহার করেছেন খুবই চমৎকার ভাবে। তারপরও মুভিটার বক্তব্য অনেক বেশী জোরালো চিত্রায়নের কারণে। Grenouille আর তার অনন্য সাধারণ জগৎ রূপায়নে পরিচালক এর প্রকরণ-শৈলী মনে রাখার মতো। আমরা সত্যিই Grenouille’কে বুঝতে পারিনা, তবুও চোখ ফেরাতে পারিনা তার অদ্ভুত সব কার্যপ্রণালী থেকে।

এটি নিঃসন্দেহে একটি ডার্ক মুভি। কোন নির্দিষ্ট কিছুর উন্মত্ততায় যে, মানব অনুভূতির বাকী সব দরজা বন্ধ হয়ে যায়; তা খুব ভাল ভাবেই ফুটে এসেছে এখানে। আপনার হয়তো ভাল নাও লাগতে পারে, কিন্তু আপনি এর ভয়াবহতা এবং আকর্ষণী শক্তি থেকে পরিত্রাণ পাবেন না, এটা সুনিশ্চিত।

আমি এই গল্পের কেন প্রেমে পড়লাম, তা বলতে পারবো না ! Audiobook টা বারবার টানে। মুভিটা এমন কিছু আনন্দদায়ক নয়, কিন্তু যেভাবে কাহিনীটাকে শেষ পর্যন্ত টেনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে মৃত্যুর কানা গলিতে__ সীমিত পরিসরে তা যেমনই ভীতিকর তেমনই প্রলুব্ধকর এবং একই সাথে মহিমান্বিত করা হয়েছে অনন্য দক্ষতায়।

এটার জন্যে উচ্চ পর্যায়ের সৃজনশীলতা লাগে গল্প বলায়, সাহস লাগে চলচ্চিত্রায়নে, ভাবনা লাগে অভিনয়ে এবং সর্বোপরি দৃশ্য-দর্শনে দর্শকদের চোখই কেবল নয় এজন্যে প্রবল কৌতূহলও লাগে।

ধন্যবাদ।।

বি. দ্র. এখানে প্রথম পোষ্ট, তাই পোস্টিং এর ধরণ বুঝতে একটু সময় লাগবে। আশা করি ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

এই পোস্টটিতে ১৫ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. লেখায় + , আরো কিছু ছবি দিলে ভালো লাগতো আরো

    • Hasan Al Mamun says:

      লিখতে যত না সময় লেগেছে তার চেয়ে বরং বেশী সময় লেগেছে আমার ছবি সংযুক্তি করণে। আর ব্লগে আমি একেবারেই নতুন। তাই পোস্টিং এ কিছুটা হয়রানিতে পরতেই হচ্ছে।

      ধন্যবাদ। সাথেই থাকবেন।।

  2. James Bond says:

    অনেক ভালো লিখেছেন, সুন্দর বর্ণনা।

  3. পথের পাঁচালি পথের পাঁচালি says:

    প্রথম পোস্টেই তো ভালো করে ফেলেছেন। ধরন বুঝে লিখলে না জানি কি আর ঘটাবেন। সুন্দর লিখা। বইটি পড়ব পড়ব করে আর পড়া হয়নি।

    • Hasan Al Mamun says:

      আজকের দ্রুতগতির মানুষের ব্যস্ত জীবনে বড় গল্প বা উপন্যাস পড়ার সময় কৈ? তবে Sean Barrett এর Audiobook টা শুনতে পারেন। বাজারে যে কটা আছে তার মধ্যে এটা সেরা। গল্পের সাথে আঠার মতো জুড়ে যাবেন নিঃসন্দেহে।

      ধন্যবাদ উৎসাহের জন্যে।।

    • রীতিমত লিয়া says:

      পথের পাঁচালীর সাথে একমত

  4. রীতিমত লিয়া says:

    মুভিটা দেখেছি। আপনার লেখা ভাল। আরো রিভিউ চাই সামনে। নিয়মিত লিখুন

  5. রীতিমত লিয়া says:

    পথের পাঁচালীর সাথে একমত

  6. অ্যান্থনি এডওয়ার্ড স্টার্ক says:

    পয়লা পোস্টেই ছক্কা হাঁকিয়েছেন দেখছি। 😀 থাম্বস আপ ফর দ্য পোস্ট। 🙂

    ব্লগিং নাম বাংলা অক্ষরে লেখবার অনুরোধ জানাই। ব্লগে স্বাগতম। 🙂

  7. হাসান আল মামুন says:

    আরও লিখবো অবশ্যই। ধন্যবাদ সবাইকে এমন আশা জাগানিয়া উস্কানি’র জন্যে… 🙂

  8. বাহ দারুণ লিখেছেন … মুভিটা খুব প্রিয়…

  9. অনিক চৌধুরী says:

    ভালো লেগেছিল মুভিটা। রিভিউতে থাম্বস আপ! :2thumbup

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন