King of Devil’s Island

king-of-devils-island-poster2

কিশোর বয়সে খুনের অপরাধে ধরা পড়ে নরওয়েজিয়ান এক নাবিক। বয়স কম বলে তাকে জেলে না পাঠিয়ে, পাঠানো হয় juvenile correction facility. নামে কারাগার না হলেও, যাকে পাঠানো হয়, তার কাছে এটাকে ভিন্ন কিছু মনে হয়না, না হওয়াই স্বাভাবিক। নির্দিষ্ট পোশাক, নিয়ম-কানুন, জাঁদরেল সুপারিন্টেন্ডেন্ট, নিয়ম না মানলে ভয়াবহ শাস্তি – কিছুই তো জেলের চেয়ে ভিন্ন নয়। পার্থক্য একটাই, এখানে সবাই কিশোর বয়সী !!
দিগ্বিদিক ঘুরে বেড়ানো স্বাধীনচেতা নাবিক এই পরাধীনতা মানবে কেন? যাবতীয় শিকল ছুঁড়ে ফেলে সে পালাতে চায় এই অধীনতা থেকে। কিন্তু, চাইলেই তো আর পালানো যায়না, তাও আবার এমন এক দ্বীপ থেকে যার চারপাশে শুধু পানি আর পানি।

এটুকু পড়ার পর যাদের মনে হচ্ছে, এটা কেবলমাত্র একটা নরম্যাল এসকেপ মুভি, তাদের জন্য বলি, এই মুভির প্রধান বৈশিষ্ট্য এটার অসাধারণ প্লট, ফ্যান্টাস্টিক ডিরেকশন, আর অদ্ভূত ক্লাইম্যাক্স। মানুষের ক্ষমতা আর সীমাবদ্ধতার বাস্তব চিত্রায়ন দেখানো হয়েছে এই মুভিটাতে। এটা শুধুমাত্র এসকেপ মুভি না, এটা সক্ষমতার আর অসহায়ত্বের মুভি, বন্ধুত্ব আর প্রতিযোগিতার মুভি, অর্জন আর ত্যাগের মুভি……
মেকিং এতোটাই ভালো যে, ক্যারাক্টারগুলো যা অনুভব করছে, আপনিও ঠিক সেটাই অনুভব করবেন, যদিও তারা overtly feelings express করছে না। দর্শকের ভেতরেও জেদ, ক্রোধ, আশা সঞ্চার করে- এমন চিত্রনাট্য !!
নরওয়েজিয়ান মুভি বলে হয়তো এটার নাম খুব কম মানুষেই জানে। কিন্তু তারপরেও এটার rotten tomatoes এ 93% ফ্রেশ রেটিং পাওয়া……

(Visited 79 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন