Leap Year (Ano Bisiesto)

একটা সিনেমার সবগুলো সিন লং-শট হয় কি করে? ক্যামেরার কোন মুভমেন্ট-ই প্রয়োজন পড়লোনা বলতে গেলে। এত ধৈর্য, এত নিখুঁত কাজ, দীর্ঘদিন মঞ্চে কাজ না করলে এ ধরনের পারফেকশন অসম্ভব !! অভিনয় আর পরিচালনাকে যে কি অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে এটা, না দেখলে বিশ্বাস করা কঠিন। আমার দেখা অন্যতম বেস্ট মেকিং এর মুভি, Ano Bisiesto (Leap Year)………

Ano_Bisiesto-Caratula

পুরো মুভিতে খোলামেলা নগ্ন দৃশ্যের ছড়াছড়ি, কিন্তু কোনভাবেই এটাকে যৌন সুড়সুড়িমূলক মুভি বলা যাবেনা। যৌনতা দেখানো এই সিনেমার উদ্দেশ্য ছিলোনা, নইলে নায়িকার চরিত্রে অত্যন্ত আকর্ষণীয় কোন যুবতীকে নেয়া হতো। সিনগুলো এত বেশি ন্যাচারাল, আমি শুধু মুগ্ধ হয়ে অভিনয় দেখেছি, আর হতভম্বের মত ডিরেকশন শেখার চেষ্টা করেছি !!

অস্বাভাবিক জটিল এক সাইকোলজি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে এই মুভিটাতে; মজার ব্যাপার হচ্ছে ঐ সাইকোলজির উৎপত্তি নিয়ে একটা লাইনও বলা হয়নি সিনেমার কোথাও; কিন্তু আগ্রহী (এবং ভাবুক) দর্শকমাত্রেই বুঝতে পারবে কেন মেয়েটি এই দ্বান্দ্বিকতার শিকার !! তবে অনেকে না বোঝার সম্ভাবনা প্রবল; এটাই হয়তো কারণ যে মুভিটার IMDB রেটিং কম !!

But from me, HIGHLY RECOMMENDED !!

(Visited 90 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন