দ্যা আর্টিস্টঃ নির্বাক এক প্রেমের কাহিনী।।

নির্বাক যুগ চলে গেছে সেই ১৯ সালের প্রথম দিকেই। সবাক যুগ আসল সাথে আসল নতুন প্রযুক্তি,নতুন ধারনা। সিনেমাপ্রেমীরা সবাক সিনেমা সাদরে গ্রহন করল। কারন নির্বাক থেকে সবাক অন্যরকম আলাদা ফ্লেভার।।এমনকি সিনেমার পর্দাও চেন্জ হয়ে গেল সাদাকালো চলে গিয়ে আসল রঙচঙে পর্দা। যুগের সাথে সাথে তাল মিলিয়ে এগুলা এমনভাবে পরিবর্তিত হয়ে গেল যে বর্তমানে যুগে ভাল মুভি হবে জাস্ট প্রযুক্তি ব্যাবহার করে। দুমদাম মারামারি, এক্কারে অবাস্তব সব কাহিনী নিয়ে বানানো হবে এ্যাকশন সিনেমা,এমনকি এসব দিকে খেয়াল বেশি দিতে গিয়ে সিনেমা হচ্ছে নাকি সিনেমার নামে খিচুরি হচ্ছে তা দেখা হয় না। আপনারা তার প্রমান এবছর ই পেয়েছেন (জুপিটার এ্যাসেন্ডিং) দেখে। 😀 এখনকার হরর মুভিগুলোও হয় গ্রাফিক্স এর উপর নির্ভর করে হাউমাউখাউ টাইপের যা পাচ বছরের বাচ্চাও ভয় না পেয়ে হয়ত দুর ছাই বলে উঠবে। 😛 কিন্ত আপনি বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবেন যে আদ্দিকালের পুরনো সাদাকালো রোমান্টিক সিনেমা আপনার পছন্দ না? হুম জানি পারবেন না।মুরনাও,গ্রিফিথ,বাস্টার কিটন,চ্যাপলিনের করা নির্বাক মুভিগুলোকে হেয় করা যায় না, কারন নির্বাক মুভি দেখলে এক ভাললাগা কাজ করে।

 

দ্যা আর্টিস্ট আপনাকে বর্তমান যুগের প্রযুক্তির কাছ থেকে ছিনিয়ে নিজে যাবে সেই পুরনো দিনে।যেখানে দেখবেন নির্বাক ভালবাসা, একটা সাধারন গল্পকে বিশেষ রুপে উপস্থাপন করা, নির্বাক যুগ থেকে সবাক যুগের পরিবর্তন। সিনেমা শেষ হবে অদ্ভুদ এক ভাললাগার মধ্য দিয়ে।

The-Artist-Poster

সিনেমাটি একটি চমৎকার রোমান্টিক ড্রামা।

 

১৯২৭ সালের গল্প।
হলিউড তখন নির্বাক যুগে। সেই নির্বাক যুগের মস্ত নায়ক জর্জ ভ্যালেন্টিন। চারিদিকে তার প্রচুর নামডাক,তিনি অভিনয় করলেই সিনেমা সুপারডুপার হিট।এমনি সময়ে এক বিশাল রাজকীয় অনুষ্ঠানে তার পরিচয় হয় পেপ্পি মিলার নামের এক তরুনীর সাথে।তরুনী প্রচন্ড সাদামাটা সাধারন কিন্ত সেই তুলনায় ভ্যালেন্টিন তো সেইই। মানে কোন তুলনাই হয় না তাদের মাঝে। কিন্ত প্রথম দেখাতেই দুজন প্রেম নামক মায়ার বন্ধনে আটকে যায়। এদিকে তরুনী ভ্যালেন্টিন এর সাথে দেখা করতে স্টুডিও তে আসে এবং ভাগক্রমে অডিশন দিয়ে এক্সট্রা নৃত্যশিল্পীতে চান্স পায়। এভাবে সে কাজ করতে করতে নিয়মিত ভাবে অভিনয় করতে থাকে এবং নির্বাকে কাজ না করে সবাক নায়িকার জায়গা শক্তপোক্ত করতে থাকে। তাকে ভ্যালেন্টিন এর সাথে থাকতে হলে ভালমানের নায়িকা যে হতেই হবে। কিন্ত জটলা পাকায় যুগ,নির্বাক থেকে সবাক যুগ চলে আসে, সবাই সবাক এর দিকে বেশি ঝুকে যায়।মিলার হয়ে যায় সবাক যুগের নায়িকা। ভ্যালেন্টিন সবাক এর সাথে খাপ খাওয়াতে পারে না শুধুই তিনি কেন নির্বাক যুগের সব নায়কনায়িকা দাম কমতে থাকে। কোন পরিচালকই আর নির্বাক যুগের অভিনেতাদের নেয় না।তাই তারা কাজ পায় না।। এভাবেই চলতে থাকে সাদাকালোর চুপচাপ টানাপরার মিস্টি প্রেমের কাহিনী।

252644_436617219704707_2094494280_n
মুভিটির লেখক ও পরিচালক মিশেল হাজানাভিসিয়াস। বেশ খটমটে নাম। কিন্ত দুর্দান্ত কাজ দেখিয়েছে। কারন এ রকম নির্বাক সিনেমা সবাক যুগে নির্মান করা বেশ কস্টসাধ্য। কিন্ত তিনি করে দেখিয়েছেন। ১৯২৭ থেকে ১৯৩২ সালে টানাপড়া যুগের মাঝে নিয়ে ফেলেছেন।দেখিয়েছেন নির্বাক সিনেমার শেষ পরিনতি। মুভিটিতে সংলাপ না থেকেও যেন আছে কারন সিনেমার সংলাপে এমন দুর্দান্ত মিউজিক ছিল যেন মনে হচ্ছিল মিউজিকই সংলাপ। নির্বাক সিনেমায় সবথেকে বড় বিষয় হলো অভিনয়, কথা নেই কিন্ত শারীরিক এক্সপ্রেশন দিয়েই আপনাকে সংলাপ বোঝাতে হবে। এদিক দিয়ে মুভির দুই মেইন চরিত্র সফল। সৃজনশীল অভিনয়, সুন্দরভাবে উপস্থাপন ছিল চোখে পড়ার মত। মুল চরিত্রে আমার দুজনকেই ভাল লাগছে যেন একজন একজনের থেকে সব সময় উতরে যাবার চেস্টা চালিয়েছেন। অভিনয়, প্রযোজনা,মিউজিক,গল্প বলার ধরন ও উপস্থাপনা দিয়ে সব মিলিয়ে এটি একটি দুর্দান্ত রোমান্টিক নির্বাক সিনেমা। একটি আর্দশ ক্লাসিক্যাল মাস্টারপিস।

575196_497572163609212_446828404_n
এই সবাক যুগে প্রচন্ড এক রিস্কের কাজ করেছেন পরিচালক। ফল ও পেয়েছেন।পাঁচটা ক্যাটাগরিতে অস্কারে পুরস্কার পায় সিনেমাটি সাথে গোল্ডেন গ্লোব ও জয় করে। সিনেমা, মিউজিক, পরিচালক,কস্টিউম ও ভ্যালেন্টিন চরিত্রে জেন দুজার্দিন অস্কার লাভ করে।

62143_509575059075589_83945342_n

ফরাসি সিনেমা ইতিহাসে সবচে বেশি পুরষ্কার প্রাপ্ত সিনেমা এটি। সিনেমাটা সরাসরি ১০০ মিনিটের। বোরিং হবার কোন চান্সই নেই।যারা নির্বাক সিনেমা সমন্ধে জানেন তাদের তো কিছু বলার নেই,কিন্ত যারা এ রকম সিনেমার সাথে পরিচিত না তাদের সিনেমাটা মিউট করে দেখার মত লাগবে,কিন্ত কোন ব্যাপার না কারন এসব সিনেমা এমনভাবে করা হয় যে আপনি কাহিনী ধরতে পারবেন বুঝতে পারবেন যে কি বোঝানো হচ্ছে। এটি সবাক ফ্লিমের মত করে বানানো হয় না। তাই আমার মত আর দেরি করে দেখার মত বোকামি না করে আজই দেখে ফেলুন অসামান্য এ মাস্টারপিস সিনেমাটি। গ্যারান্টি দিতে পারব হতাশ হবেন না।

 

নির্বাক সিনেমার উপর পড়াশোনা করার জন্য: https://en.m.wikipedia.org/wiki/Silent_movie

 

ডাউনলোড লিংক: https://kat.cr/the-artist-2011-720p-brrip-x264-650mb-yify-t6233340.html

The Artist (2011)
The Artist poster Rating: 8.0/10 (176,428 votes)
Director: Michel Hazanavicius
Writer: Michel Hazanavicius
Stars: Jean Dujardin, Bérénice Bejo, John Goodman, James Cromwell
Runtime: 100 min
Rated: PG-13
Genre: Comedy, Drama, Romance
Released: 20 Jan 2012
Plot: A silent movie star meets a young dancer, but the arrival of talking pictures sends their careers in opposite directions.

(Visited 87 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ২ টি মন্তব্য করা হয়েছে

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন