Dhuruvangal Pathinaaru- Every Detail Counts
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

আপনি টাইম পাস করার জন্য অনেক সিনেমাই দেখে থাকবেন।কিন্তু কোনদিন ভাবছেন টাইম পাস করার জন্য সিনেমাটা আপনার জীবনে দেখা অন্যতম সেরা সিনেমা হয়ে যাবে? আমার জীবনে ঘটে যাওয়া এমনই এক সিনেমা নিয়ে আজ রিভিউ দিব।
Movie:Dhuruvangal Pathinaaru(D-16)
Genre:Mystery,Thriller.
Director:Karthick Naren
Cast:Rahman,Prakash Vijayaraghavan,Ashwin Kumar.
IMDB:8.7/10
Release:29 December 2016.

‘যেমন কর্ম তেমন ফল’ উক্তিটার সাথে আমরা সবাই পরিচিত।মাধ্যমিকে থাকতে এ নিয়ে অনেক ভাব-সম্প্রাসরন লিখছেন।ভাল কাজ করলে পাবেন সফলতা আর খারাপ কাজ করলে পাবেন ব্যর্থতা।মুভির মুল থিম বলতে গেলে এটাই।পুরো ১ ঘন্টা ৪৪ মিনিট মুভিটা আপনাকে থ্রিলিং আমেজে নিয়ে রাখবে এক সেকেন্ডও বিরক্ত হবেন না।মুভি দেখা শেষ করার পর এক মুহুর্তের জন্য নিজেকে নিয়ে ভাববেন জীবনে এমন কোন খারাপ কাজ করেন নাইত যার জন্য পরে আপনাকে পস্তাতে হবে?

প্লটঃপুলিশ অফিসার দীপক চাকরিজীবন শেষে অবসর জীবনযাপনের জন্য পাচ বছর ধরে ওটিতে বসবাস করেন। একদিন এক যুবক পুলিশে ভর্তি হওয়ার জন্য তার কাছ থেকে উপদেশ গ্রহন করতে তার বাসায় আসে।তারই পরিপ্রেক্ষিতে দীপক তার ক্যারিয়ারের শেষ কেসের ঘটনা তার কাছে খুলে বলে যার জন্য সে এখন পঙ্গু হয়ে জীবনযাপন করছে।

অভিনয়ঃমুভিটির লীড রোলে অর্থাৎ দীপক চরিত্রে অভিনয়ে করেছেন রহমান।দুটি লুকে তিনি খুব দারুন অভিনয় করেছেন পাশাপাশি সাপোর্টিং রোলে যারা ছিলেন তারাও খুব ভালো অভিনয়।প্রত্যেক্টা চরিত্রকে পরিচালক গুরুত্ব দিছেন কাউকেই শোপিজ করে রাখেন নাই।

পরিচালক নিয়ে কিছু তথ্যঃআপনি হয়ত ভাবতে পারেন এরকম অসাধারন একটি ছবির পরিচালক নিশ্চয়ই একজন অভিজ্ঞ পরিচালক হবেন। কিন্তুনা আপনি বিস্মিত হবেন কারন মাত্র ২১ বছর বয়সের যুবক তার গ্রাজুয়েশন শেষ না করেই ছবিটি নির্মাণ করেন তাও আবার নিজ হাতে লেখা চিত্রনাট্যে।এই বয়সেই যদি এতকিছু করতে পারে তাহলে হলফ করে বলতে পারি ছেলেটি আগামীতে তামিল ইন্ডাস্ট্রিকে নেতৃ্ত্ব দিবে।

ইতিবাচকঃমুভির অভিনয়,সিনেমাটোগ্রাফি,ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক সবগুলাই দারুন ছিল।আলাদা করে বলতে গেলে স্টোরিটা ছিল এক অন্য লেভেলের।

নেতিবাচকঃসব মুভির মত এই মুভিরও কিছু ভুল আছে কিন্তু অইরক্ম তুলে ধরার মত কোন ভুল খুজে পাইনি।

নিজস্ব মতামতঃ আগেই বলেছি মুভিটি আমার দেখা অন্যতম সেরা মুভি।ক্লাইমেক্সের ধাক্কটা আমার আজীবন মনে থাকবে। আমার দেখা মিস্ট্রি থ্রিলার জনরা মুভির মধ্যে ‘Fight club’ আর এই মুভিটা সবার আগে থাকবে।

ব্যক্তিগত রেটিংঃ ৪/৫

Error: No API key provided.

এই পোস্টটিতে ৫ টি মন্তব্য করা হয়েছে

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন