A Taxi Driver- একজন ট্যাক্সি ড্রাইভারের আত্মকাহিনী
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

বাস্তব ঘটনা নিয়ে নির্মিত সিনেমাগুলো নিয়ে আমার একটু আলাদা আকর্ষন থাকে।বিশেষ করে বৈদেশিক অনেক অজানা ঘটনা আছে যা মুভির মাধ্যমেই জানতে পারি।তেমনি ১৯৮০ সালে ঘটিত গুয়াংজু অভ্যুত্থানে একজন ট্যাক্সি ড্রাইভারের আত্মকাহিনী নিয়ে নির্মিত কোরিয়ান সিনেমা ‘A Taxi Driver’.
কাহিনীঃ মি. কিম-মান-সিউব সিউলের একজন ট্যাক্সি ড্রাইভার।একসময় সৌদিতে থাকলেও স্ত্রী মারা যাওয়ার পর মেয়েকে নিয়ে সিউলে বসবাস করেন।ট্যাক্সি ড্রাইভিং করে জীবিকা নির্বাহন করলেও মাস শেষে বাড়ির ভাড়াটাও ঠিকমত জোগান করতে পারেন না।অন্যদিকে গুয়াংজু সহিংসতার চিত্রধারণ করার জন্য জাপান থেকে কোরিয়ায় আসেন এক জার্মান সাংবাদিক।মি.কিম জানতে পারেন সেই সাংবাদিককে নিয়ে গুয়াংজু যেতে পারলে ভাড়া হিসেবে তাকে ১০০০০০ ইয়ন দেয়া হবে।তাই টাকার লোভে অন্য গাড়ি ভাড়া করার আগেই কৌশলে তাকে নিয়ে গুয়াংজুর পথে যাত্রা শুরু করেন।
অভিনয়ঃ ট্যাক্সি ড্রাইভার চরিত্ত্রে অভিনয় করেছেন সং-কাং-হ।এ লোকটা আমার দেখা কোরিয়ার সেরা অভিনেতা প্রত্যেক্টা ছবির মত এই ছবিতেও তিনি নিজের চরিত্রে অনভদ্য কাজ করেছেন।সাংবাদিক চরিত্রে হলিউড অভিনেতা থমাস ও খুব ভালো অভিনয় করেছেন বিশেষ করে ছাত্ত্রদের প্রতি তার ইমোশনাল হওয়াটা যে কাউকেই ইমোশনাল করে দিবে।সাপোর্টিং ক্যারেক্টার গুলার অভিনয়ও ভালো ছিল।
পরিচালকঃছবিটি পরিচালনা করেছেন জাং-হুন।পরিচালক হিসেবে আমার দেখা প্রথম ছবি তার।পরিচালনাটা তিনি ঠিকঠাক ভাবেই চালিয়েছেন।
ইতিবাচকঃ ছবিটির মুল থিম ছিল ১৯৮০ সালে ঘটে যাওয়া গুয়াংজু অভ্যুত্থান নিয়ে।বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্ত্রদের উপর সামরিক বাহিনীর অত্যাচার যে কাউকেই আবেগী করে তুলবে যা দেখে খোদ সাংবাদিক ভিডিও করতে করতে নিজেই কেদে ফেলেন। পরিচালক সেই জায়গাটা ভালভাবে ফুটিয়ে তুলেছেন।আর স্টোরি এডিটিংও খুব ভাল ছিল।
নেতিবাচকঃ ছবির কিছু কিছু ক্ষেত্রে সিনেমাটোগ্রাফী খুব নিম্নমানে লাগছে।
কিছু তথ্যঃ ১.অস্কার নমিনেশন পাওয়ার জন্য কোরিয়া এই মুভিকে নির্বাচন করেছে।                                                                                       ২.মুভিটি মুক্তি পাওয়ার পর আসল ট্যাক্সিড্রাইভারের সন্ধান পাওয়া যায়।
সবকিছু বিবেচনা করে বললে এই ছবিটি সবার জন্য মাস্টওয়াচ।
ব্যক্তিগত রেটিংঃ ৪\৫

Error: No API key provided.

এই পোস্টটিতে ৫ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Sujoy Das says:

    আপনার রিভিউটা বেশ খাপছাড়া হয়েছে।
    মনেহচ্ছে, আলসে করে অনেককিছু না লিখেই পোস্ট করে দিয়েছেন।
    যাইহোক, এটা আমার ব্যক্তিগত চিন্তাভাবনা।
    না বলে পারলাম না, তাই বলে দিলাম, ভুল বুঝবেন।না।

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন