‘Swiss Army Man’ (2016) জীবনকে নতুন করে খুঁজে পাবার ও ভালবাসার গল্প… !!!
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

swast_89_m2-0v4-0

 

 

 

কি হবে যদি আপনি প্রশান্ত মহাসাগরের মাঝে একাকী একটি দ্বীপে আটকা পড়ে যান ? আপনার কোন খাবার নেই, পানি নেই এবং সর্বোপরি বেঁচে থাকার কোন আশাও নেই। আপনি সিদ্ধান্ত নিলেন শেষ পর্যন্ত আপনি সুইসাইড করবেন। যখন গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়তে যাবেন, এমন সময় দেখলেন পানিতে ভেসে এসে সমুদ্রের তীরে একটি মানুষের দেহ পড়ে আছে। আপনি ভাবলেন, এই বুঝি অবশেষে একজন সঙ্গী পাওয়া গেল। বেঁচে থাকার একটু ক্ষীণ আশা ফুটে উঠলো আপনার মনে। সাথে সাথে ছুটে গেলেন তীরে, গিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখলেন যে এটি একটি মৃত লাশ। সাথে সাথে আপনি আবার হতাশায় ডুবে গেলেন। কিন্তু আপনি চাইছেন না ঐ লাশটিকে ছেড়ে পুনরায় একাকী হয়ে যেতে। অবশেষে আপনি সেই লাশটিকেই পিঠে বেধে শুরু করলেন আপনার বেঁচে থাকার জার্নি। চলার পথে লাশটির সাথে আপনি কথা বলেন, সেও আপনার কথার উত্তর দেয়। তাকে আপনি মানব সভ্যতা সম্পর্কে শেখান, বেঁচে থাকার আশা দেন, আপনার ভালবাসার মানুষের গল্প বলেন, ভালবাসতে শেখান। এভাবে আস্তে আস্তে একজন আশাহত মানুষের আশার বাণীতে জীবিত হয়ে ওঠে লাশটি।

 

 

 

swa_86_online

 

 

 

 

‘সুইস আর্মি ম্যান’ শব্দটি এসেছে ‘সুইস আর্মি নাইফ’ থেকে, যা মূলত এক ধরণের বিশেষ শ্রেণীর পকেট ছুরি যেখানে বিভিন্ন ধরণের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম আছে। এই ছুরি ও তার সরঞ্জাম দিয়ে বিপদ বা প্রতিকূল মুহূর্তে যে কোন ধরণের প্রয়োজন ও পরিস্থিতির মোকাবিলা করা যায়। এ মুভিতে ‘সুইস আর্মি ম্যান’ হচ্ছে সেই মৃত লাশটি যা প্রতিটি প্রতিকূল মুহূর্ত, প্রয়োজন ও বিপদে ঐ আশাহত মানুষটির কাজে এসেছে ও তাকে হার না মেনে বেঁচে থাকার আশা যুগিয়েছে। খুবই হাই থটের এ মুভিটি আগা গোড়াই চরম মাত্রার অ্যাডাল্ট হিউমার ও সুপারন্যাচারাল অ্যাক্টিভিটিতে পরিপুর্ণ। মুভিটি দেখা শেষে দর্শকের মাথায় প্রচুর প্রশ্ন খেলা করবে যে আসলে এতক্ষণ ধরে কি দেখলাম মুভিতে ? আবার, অনেকের কাছে এমনও মনে হতে পারে যে এতক্ষণ ধরে একটা ফালতু মুভি দেখে আমার জীবনের মুল্যবান সময় গুলো নষ্ট করলাম। এটি নির্ভর করছে যার যার নিজস্ব পয়েন্ট অফ ভিউয়ের উপর, কে কেমন ভাবে এই মুভিটিকে উপলব্ধী করতে ও বুঝতে পারছে তার উপর।

 

 

 

swiss-army-man-photo-5

 

 

 

ভালবাসা ছাড়া মানুষের জীবন চলতে পারে না। ভালবাসা নেই তো জীবনে বেঁচে থাকার কোন আশাও নেই। যখন একটি মানুষ নিজের মধ্যে ভালবাসার অনুভূতীটা সৃষ্টি করতে পারে, তখন সে মৃত হলেও পুনরায় জন্ম হয় তার। ভালবাসা তাকে নতুন করে বাঁচতে শেখায়, জীবনে বেঁচে থাকার জন্য একটি কারণ হয়ে দাঁড়ায়। শত প্রতিকূল পরিবেশেও মনের মাঝে আশার সঞ্চার করে। আমরা যতই সভ্য জাতি হই না কেন, আমাদের মনের মাঝে যে অসভ্য প্রবৃত্তি গুলো আছে সেগুলোকে আমরা সব সময় শেঁকল পরিয়ে সমাজে একে অন্যের সামনে এক মুখোশের আঁড়ালে নিজেদের ঢেকে রাখি। আমাদের চোখে কেউ খারাপ, কেউ ভাল কিন্তু ভিতরে আমরা সবাই সমান। আমরা কখনো আমাদের আকাংক্ষা, আসক্তি, যৌন চাহিদা গুলো নিয়ে সবার সামনে কথা বলি না, এগুলো আমরা সব সময় লুকোতেই পছন্দ করি কিন্তু একটি মানুষকে প্রকৃত রূপে চেনা যায় তার এই আকাংক্ষা, আসক্তি ও চাহিদা দ্বারাই। আমরা এগুলো লুকোতে পারি বলেই আমরা পৃথিবীর বুকে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা কারণ আমরা মনে অনুভব করি একরকম আর মুখে ও কাজে প্রকাশ ও করি আরেক রকম। আমরা আমাদের মনের মানুষকে নিজের মনের কথা বলতে পারি না। নানান রকম লজ্জা, সংকোচ, নিজের প্রতি হীনমন্যতা কাজ করে তখন। আমরা আমাদের ভালবাসাকে উজার করে প্রকাশ করতে পারি না, সব সময় দাবিয়ে রাখি নিজেদের মনের কারাগারে। আর এই ফাঁকে আমাদের ভালবাসার মানুষটি চলে যায় অন্য কারো সাথে ঘর করতে অথচ সে কখনো জানতেও পারে না, তাকে ভালবেসে ও তাকে পাবার স্বপ্ন দেখে অন্য একজন বেঁচে থাকার প্রেরণা পাচ্ছে।

 

 

 

swiss-army-man

 

 

 

অসম্ভব সুন্দর এ মুভিটি ব্যাখ্যা করার মত পর্যাপ্ত পরিমাণ জ্ঞান আমার নেই। তারপরেও কিছুটা হলেও চেষ্টা করলাম। এই মুভিটি সকল ব্যাখ্যার অতীত। মুভির এমন অনেক অন্তঃনিহিত মেসেজ আছে যা আমাদের বোধগম্যের সম্পুর্ণ বাহিরে। যেহেতু গোটা মুভিটিই সুপারন্যাচারাল ক্যাটাগরির ও অ্যাডাল্ট হিউমারে সমৃদ্ধ, সুতরাং এইসব এন্টারটেইনিং পার্ট গুলোর ভিতর থেকে মুভির প্রকৃত গল্প খুঁজে বের করা ছিল খুবই টাফ। মুভিটির মেকিং অসাধারণ রকমের সুন্দর যাকে আমি বলবো আউট অফ দ্য ওয়ার্ল্ড। প্রতিটি দৃশ্যের সাথে গান ও ব্যাক গ্রাউন্ড মিউজিকের ব্যবহার আপনাকে নিয়ে যাবে এক অন্য দুনিয়ায়। অভিনয়ের কথায় যদি আসি, মুভিটির একাকী দ্বীপবাসীর চরিত্রে অভিনয় করেছে ‘নাইট এন্ড ডে’, ‘টুয়েল্ভ ইয়ারস এ স্লেভ’ ও ‘প্রিজনারস’ খ্যাত ‘পল ডানো’। এই অভিনেতাটি খুব কমই সুযোগ পেয়েছে অন্যান্য মুভিতে তার অভিনয় দেখানোর। তবে এ মুভিতে সে একেবারে নিজেকে ঢেলে দিয়েছে। কোনই কমতি ছিল না তার অভিনয়ে। মুভির একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করেছে ‘ফাইনাল ডেস্টিনেশন থ্রি’, ‘লিভ ফ্রি অর ডাই হার্ড’, ‘আব্রাহাম লিঙ্কন-ভ্যাম্পায়ার হান্টার’ ও ‘টেন ক্লোভারফিল্ড লেন’ খ্যাত ‘ম্যারি এলিজাবেথ উইনস্টেড’।

 

 

 

chk_captcha

 

 

 

তবে যার কথা বিশেষ ভাবে বলতে হয়, সে হচ্ছে মৃত লাশের ভূমিকায় অভিনয়কারী ‘হ্যারি পটার’ খ্যাত ‘ড্যানিয়েল রেডক্লিফ’। অনেকেরই অভিযোগ আছে যে, এই নায়ক অভিনয় পারে না। তাদের উচিত ‘সুইস আর্মি ম্যান’ মুভিটি দেখা। ‘ড্যানিয়েল রেডক্লিফ’ যে কি জিনিস, সে তার জাত চিনিয়ে ছেড়েছে এই একটি মুভিতেই। এক কথায় অনবদ্য অভিনয় করেছে সে। একদম মন-প্রাণ ভরিয়ে দিয়েছে। ‘ড্যানিয়েল’ এর লাইফের এ যাবৎ কালের শ্রেষ্ঠ মুভি এটি। এই মুভির জন্য ‘ড্যানিয়েল’ যদি সামনের বছর ‘অস্কার’ নমিনেশন না পায় তবে সেটা চরম অন্যায় হয়ে যাবে। সুপারন্যাচারাল ইয়ং-অ্যাডাল্ট বুক অ্যাডাপ্টেশন মুভি সিরিজ থেকে যত নতুন নায়ক এসেছে হলিউডে যেমন ‘রবার্ট প্যাটিনসন’ ও ‘টেইলর লটনার’ (‘টোয়ালাইট’ সিরিজ), ‘লোগান লারমান’ (‘পার্সি জ্যাকসন’ সিরিজ), ‘আসা বাটারফিল্ড’ (‘হিউগো’ ও ‘এন্ডারস গেম’), ‘ডাইলান ও ব্রায়ান’ (‘মেজ রানার’ সিরিজ) এদের প্রত্যেকের তুলনায় অভিনয়ের দিক থেকে চরম মাপের ট্যালেন্টেড হচ্ছে ‘ড্যানিয়েল রেডক্লিফ’ এবং এদের সবার থেকে সব থেকে সফল সিরিজের জনপ্রিয় নায়ক হবার পরেও ‘ড্যানিয়েল’ সর্বদা বেছে নিয়েছে অফ-ট্রাকের মুভি গুলো (‘ডিসেম্বর বয়েজ’, ‘কিল ইয়োর ডার্লিংস’, ‘হোয়াট ইফ’, ‘হর্নস’, ‘সুইস আর্মি ম্যান’, ‘ইম্পেরিয়াম’) যা বক্স অফিস আয়ের থেকে নানান ফেস্টিভেলে সমালোচকদের মন জয় করেছে বেশী। ‘ড্যানিয়েল রেডক্লিফ’ এর ‘হ্যারি পটার’ সিরিজের বাহিরে কমার্শিয়াল মুভি আছে মাত্র ৩টি, (‘দ্য উম্যান ইন ব্ল্যাক’, ‘ভিক্টর ফ্রাঙ্কেনস্টাইন’ ও ‘নাউ ইউ সি মি টু’ যাদের মধ্যে ‘ভিক্টর ফ্রাঙ্কেনস্টাইন’ ও ‘নাউ ইউ সি মি টু’ ছিল ফ্লপ)। সুতরাং আকাশ ছোঁয়া জনপ্রিয়তা পাবার পরেও এ ধরণের ভিন্নধর্মী ও সাহসী ক্যারিয়ার বেছে নেয়ার জন্য অবশ্যই তার প্রশংসা করা উচিত।

 

 

 

swiss-army-man-paul-dano-daniel-radcliffe-a24-dark-comedy

 

 

 

‘সুইস আর্মি ম্যান’ মুভিটি সর্ব প্রথম ২২ জানুয়ারী ২০১৬ তে প্রিমিয়ার করা হয় ‘সানড্যান্স ফিল্ম ফেস্টিভল’ এ এবং উক্ত ফেস্টিভলে এ মুভির পরিচালকদ্বয় ‘ডান কেওয়ান’ ও ‘ড্যানিয়েল সিনার্ট’ একত্রে বেস্ট ডিরেক্টর অ্যাওয়ার্ড জিতে নেয়। পরবর্তীতে ২৪ জুন ২০১৬ তে ৩ মিলিয়ন বাজেটের R রেটেড এই মুভিটি মাত্র ৬৩৬টি লিমিটেড হলে মুক্তি পেয়ে সর্বমোট আয় করে ৪ মিলিয়ন। মুভিটি ‘পঁচা টমেটো’ থেকে ৭৩% ফ্রেশ রেটিং পেয়ে সমালোচকদের মন জয় করে ও ‘IMDb’ থেকে লাভ করে 7.3 রেটিং। অবশেষে, ‘সুইস আর্মি ম্যান’ মুভিটি এমন একধরণের মুভি যা আপনি দেখেননি এর আগে কখনো। এ মুভিটি আপনাকে হাসাবে, আপনাকে ভাবাবে এবং সর্বোপরি আপনাকে হাস্য-রস ও ব্যাঙ্গাত্বক ভাবে জীবনের এমন কিছু বিষয় শেখাবে যা আপনাকে জীবন সম্পর্কে নতুন করে ভাবতে বাধ্য করবে… !!!

 

 

 

maxresdefault

 

 

 

মুভিটির ট্রেলার –

https://www.youtube.com/watch?v=oDxxYeFgDLg

 

 

ডাউনলোড লিঙ্ক –

http://yts.ac/swiss-army-man-full-movie-2016-yify-download…/

Swiss Army Man (2016)
Swiss Army Man poster Rating: 7.5/10 (12,558 votes)
Director: Dan Kwan, Daniel Scheinert
Writer: Dan Kwan, Daniel Scheinert
Stars: Paul Dano, Daniel Radcliffe, Mary Elizabeth Winstead, Antonia Ribero
Runtime: 97 min
Rated: R
Genre: Adventure, Comedy, Drama
Released: 01 Jul 2016
Plot: A hopeless man stranded on a deserted island befriends a dead body and together they go on a surreal journey to get home.

এই পোস্টটিতে ৪ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. অনেক সুন্দর মুভি,,,reality of life that we can’t understand. কিছু আশাহত মানুষের পাশে হাল হয়ে আমাদের দারানো দরকার,কিন্তু আমরা প্রান দিতে জানি না, প্রাণহীন মানুষদের

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন