‘Azhar’ (2016) ইন্ডিয়ান ক্রিকেটের এক কালো অধ্যায়… !!!
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0
 
ety
গত কয়েক বছর ধরে বলিউডের দর্শকদের মুভি দেখার টেস্ট একটু হলেও চেঞ্জ হয়েছে। যার কারণে কাহিনী নির্ভর মুভি গুলো এখন বক্স অফিসে ব্যবসা সফল হচ্ছে যেখানে অ্যাডাল্ট সেক্স কমেডী গুলো আর দর্শক টানতে পারছে না। তবে বলিউডের দর্শকেরা ইদানিং বায়োপিক মুভি গুলো বেশী গ্রহণ করছে যার উদাহরণ ‘পান শিং তোমার’, ‘ভাগ মিলখা ভাগ’, ‘ম্যারি কম’, এবং এ বছর ‘নিরজা’ ও ‘এয়ারলিফট’ সব গুলো মুভিই ছিল ব্যবসা সফল। তবে দেখার বিষয় হচ্ছে এই বায়োপিক মুভি গুলোর মধ্যে অধিকাংশই ছিল খেলোয়াড়দের জীবনী। তাই বলিউড এখন আট ঘাট বেধে নেমেছে তাদের বিখ্যাত খেলোয়াড়দের জীবনকে মুভির পাতায় নিয়ে আসতে, যার উদাহরণ, এ বছর আসছে ইন্ডিয়ান সাবেক ক্রিকেট ক্যাপ্টেন ‘মোঃ আজহারউদ্দিন’ এবং বর্তমান ক্যাপ্টেন ‘মহেন্দ্র শিং ধনি’ এর জীবনী নিয়ে দুই মুভি এবং শোনা যাচ্ছে, ‘শচীন টেনডুলকার’ এর জীবনী নিয়েও নাকি কাজ চলছে যেখানে ‘শচীন টেন্ডুলকার’ এর স্বয়ং নিজের চরিত্রেই অভিনয় করার কথা আছে।
azhar
 
‘মোঃ আজহারউদ্দিন’ ইন্ডিয়ান ক্রিকেটে এমন একটি নাম যে নামের সাথে জড়িয়ে আছে ব্যাপক সাফল্য সেই সাথে ব্যর্থতা, বিতর্ক, স্ক্যান্ডাল, এবং ম্যাচ ফিক্সিং এর দায়। তিনি এমনই এক ব্যক্তি যার জীবনটা একটা মুভির মত। একটা মুভিতে যা যা থাকা দরকার সবই আছে তার জীবনে। ‘মোঃ আজহারউদ্দিন’ ১৯৯০ এর দিকে অধিকাংশ ম্যাচে ক্যাপ্টেনের দ্বায়িত্ব পালন করেছেন এবং তাকে ধরা হয় ইন্ডিয়ার অন্যতম সফল ক্যাপ্টেন হিসেবে। তিনি তার জীবনে ক্যাপ্টেন হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন সময়ে সর্বমোট ৯০টি ওয়ানডে ম্যাচ জিতিয়েছেন ইন্ডিয়াকে। অতঃপর ২ সেপ্টেম্বর ২০১৪ তে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ক্যাপ্টেন ‘মহেন্দ্র শিং ধনি’ তার লাইফের ৯১ তম ম্যাচ জিতিয়ে ‘আজহারউদ্দিন’ এর এই রেকর্ড ভেঙ্গে দেয়। পাশাপাশি তার ঝুলিতে আছে ক্যাপ্টেন হিসেবে ১৪টি টেস্ট ম্যাচ জিতানোর রেকর্ড যা পরবর্তীতে ‘সৌরভ গাঙ্গুলী’ ভেঙ্গে দেয় ক্যাপ্টেন হিসেবে ২১টি টেস্ট ম্যাচ জিতিয়ে। ‘আজহারউদ্দিন’ টোটাল ২২টি সেঞ্চুরী করেন টেস্ট ক্রিকেটে অ্যাভারেজ হিসেবে ৪৫ এবং ৭টি সেঞ্চুরী করেন ওয়ানডেটে অ্যাভারেজ হিসেবে ৩৭। এখন পর্যন্ত তিনিই একমাত্র ক্রিকেটার যিনি তার প্রথম ৩টি টেস্টেই সেঞ্চুরী অর্জন করেছেন। তার সর্বোচ্চ টেস্ট স্কোর ১৯৯ শ্রীলংকার বিরুদ্ধে এবং একজন ফিল্ডার হিসেবে তিনি ওয়ানডে ম্যাচে ধরেছেন সর্বমোট ১৫৬টি ক্যাচ। ১৯৯১ সালে তাকে নাম দেয়া দেয়া হয় ‘Wisden Cricketer of The Year’।
 
naureen-and-mohammad-azharuddin-2nd-marriage-photos_1
‘Mohammad Azharuddin’ with his first wife ‘Naureen’
azharuddin_640x480_71432223976
‘Mohammad Azharuddin’ with his second wife ‘Sangeeta Bijlani’
azher_shannon
‘Mohammad Azharuddin’ with his third wife ‘Shannon Marie Talwar’
ব্যক্তিগত জীবনে ‘মোঃ আজহারউদ্দিন’ প্রথম বিয়ে করেন ‘নওরিন’কে এবং দুই ছেলের জন্ম দেন, ‘আসাদ ও ‘আয়াজ’। ৯ বছর পর তিনি ‘নওরিন’কে ডিভোর্স দেন এবং ১৯৯৬ সালে বিয়ে করেন মডেল-অভিনেতী ‘সংগীতা বিজলানী’কে কিন্তু ২০১০ সালে তাদের বিচ্ছেদ ঘটে। এরপর তিনি তৃতীয় বারের মত বিয়ে করেন দিল্লি অধিবাসী ‘শ্যানন ম্যারি তালয়ার’কে যার বাড়ি আমেরিকার লজ অ্যাঞ্জেলেস’। ২০১১ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর তার ছেলে ‘আয়াজউদ্দিন’ ১৯ বছর বয়সে রোড অ্যাক্সিডেন্টে মারা যায়।
 
‘আজহারউদ্দিন’ এর ক্রিকেট ক্যারিয়ারের ইতি ঘটে যখন তার বিরুদ্ধে ম্যাচ ফিক্সিয়ের অভিযোগ আনা হয় এবং তাকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। সাউথ আফ্রিকান ক্যাপ্টেন ‘হানসি ক্রনজি’ তার ম্যাচ ফিক্সিয়ের কনফেশনে বলেন যে ‘আজহার’ তাকে সর্ব প্রথম বুকির সাথে পরিচয় করিয়ে দেয় অতঃপর ‘CID’ এই কেসের তদন্ত করে এবং ‘আজহারউদ্দিন’কে দোষী প্রমাণ করে রিপোর্ট প্রদান করে যার ফলে ‘ICC’ এবং ‘Board of Control for Cricket in India’ (‘BCCI’) ২০০০ সালে ‘আজহারউদ্দিন’কে সারা জীবনের জন্য ব্যান করে। পরবর্তীতে ‘BCCI’ ২০০৬ সালে তাদের ব্যান তুলে নেয় এবং ‘2006 ICC Champions Trophy’ অনুষ্ঠানে অন্যান্য টেস্ট ক্যাপ্টেনদের সাথে তাকেও সম্মানিত করে। যদিও ‘ICC’ এ ব্যাপারে বিবৃতি দেয় যে ‘BCCI’ ইচ্ছা করলে ব্যান তুলে নিতেই পারে, তবে তাদের এই সিদ্ধান্ত ‘ICC’ প্রদত্ত ব্যানে কোন ভূমিকা পালন করবে না। অবশেষে, ২০১২ সালে লম্বা সময় ধরে কেস চলার পর ‘অন্ধ্র প্রদেশ হাই কোর্ট’ ‘আজহারউদ্দিন’ এর উপর ম্যাচ ফিক্সিয়ের এর কারনে প্রদত্ত ব্যান ডিসমিস করে দেয়। এই ঘটনার পর দিল্লিতে এক প্রেস কনফারেন্সে তিনি বলেন “এটি একটি দীর্ঘ আইনি লড়াই ছিল, যা ছিল অত্যন্ত বেদনাদায়ক। আমরা 11 বছর ধরে লড়েছি। এই কেস অনেক স্থগিত হয়েছে, পরিবর্তিত হয়েছে কিন্তু অবশেষে রায় এসেছে এবং আমি খুশি যে শেষ পর্যন্ত আদালত দ্বারা নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে।” এর মাঝে তিনি ২০০৯ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারী ‘কনগ্রেস’ এ যোগ দেন।
watch-emraan-hashmis-first-look-in-azhar-film-2
695532
azhar-nargis-fakhris-first-look-0001
 
‘মোঃ আজহারউদ্দিন’ এর বিশাল ঘটনা বহুল সাদা/কালো জীবনকে মুভির পর্দায় উপস্থাপনের দ্বায়িত্ব নিয়েছেন আমেরিকার সাহিত্যিক, সাংবাদিক, প্রবন্ধকার, সমালোচক, পর্যটক ও ছোট গল্প লেখক ‘টনি ডিসুজা’ এবং এই মুভি প্রযোজনা করছেন ‘একতা কাপুর’ তার ‘বালাজী মোশন পিকচার্স’ থেকে। মুভিতে ‘আজহারউদ্দিন’ এর নাম ভূমিকায় ‘সাইফ আলী খান’, ‘রনবীর কাপুর’ ও ‘রনবীর শিং’কে হটিয়ে অভিনয় করেছেন ‘এমরান হাশমী’। তার প্রথম স্ত্রী ‘নওরিন’ এর ভূমিকায় ‘প্রাচী দেশাই’ এবং দ্বিতীয় স্ত্রী ‘সংগীতা বিজলানী’ এর ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ‘নার্গিস ফকরি’। পাশাপাশি ‘গৌতম গুলাটি’ আছেন ‘রবি শাস্ত্রী’ এবং ‘লারা দত্ত’ ও ‘কুনাল রয় কাপুর’ দুজনে আছেন দুই আইনজীবী হিসেবে। এই মুভিতে ‘আজহারউদ্দিন’ এর ছোট বেলার জীবন থেকে সে কিভাবে ক্রিকেটে যোগ দিল, কিভাবে তার ‘নওরিন’ এর সাথে অ্যারেঞ্জ ম্যারেজ হল, কিভাবে সে ক্রিকেটে আস্তে আস্তে সফলতা অর্জন করলো, কিভাবে ‘সংগীতা বিজলানী’র সাথে সম্পর্ক হবার পর তার বৈবাহিত জীবনে ও ক্যারিয়ারে প্রভাব পড়লো এবং সর্ব শেষে কিভাবে সে ম্যাচ ফিক্সিয়ের সাথে জড়িয়ে পড়লো এবং এই ম্যাচ ফিক্সিয়ের পিছনে প্রকৃত সত্যটা আসলে কি ছিল যা কেউ জানে না তার সবই দেখানো হবে। একজন ক্রিকেটার কিভাবে সফলতার চূড়ায় উঠে সেখান থেকে অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়ে কালের গর্ভে হারিয়ে যায় তার এক বাস্তব উদাহরণ এই ‘আজহার’।
emraan080715_1c(1)
 
২০১৩ সালের জুনে ‘একতা কাপুর’ ‘মোঃ আজহারউদ্দিন’ এর সাথে চুক্তিবদ্ধ হন তার জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ও বিতর্কিত ঘটনা গুলোকে নিয়ে একটি মুভি বানানোর। প্রথমে ‘আজহারউদ্দিন’ মোটেও সিরিয়াস ছিলেন না এ ব্যাপারে বরং এই মুভিকে ব্যাঙ্গ করে উড়িয়ে দিয়েছিলেন কিন্তু যখন ‘টনি ডিসুজা’ তাকে এই মুভির স্ক্রিপ্ট দেখান, তা পড়ার পর তিনি এতটাই সিরিয়াস হয়ে পড়েন যে তিনি স্বয়ং নিজে ‘এমরান হাশমী’কে ক্রিকেটের ট্রেনিং দিয়ে মুভির একজন যোগ্য ‘আজহার’ এ পরিণত করেন। মুভিটি ‘এমরান হাশমী’র জন্যও তার ক্যারিয়ারের অনেক গুরুত্বপুর্ণ একটি টার্নিং পয়েন্ট লাগাতার ফ্লপের পর আবার ঘুরে দাঁড়ানোর একটি উপায় হিসেবে। সম্প্রতি রিলিজ হয়েছে মুভিটির ট্রেলার, যেখানে ‘আজহারউদ্দিন’ হিসেবে ‘এমরান হাশমী’ অত্যন্ত প্রশংসীত হয়েছে। মুভিটি রিলিজ পাবে ১৩ মে ২০১৬।
azhar7-763x420
 
অবশেষে, ইন্ডিয়ান ক্রিকেট অনেক বড় একটি জগত। এখানে রাজনীতী আছে, কালো টাকা আছে, স্বজনপ্রীতি আছে, মাফিয়াদের ছায়া আছে এবং সর্বপরি ম্যাচ ফিক্সিং নামক এক ন্যাক্কার জনক সিস্টেম আছে। এসবের কবলে পড়ে এক নিমিষেই শেষ হয়ে যায় একজন তরুন সম্ভাবনাময় ক্রিকেটারের সারা জীবনের স্বপ্ন যার বাস্তব উদাহরণ আমাদের ‘আশরাফুল’। আমরা ‘আশরাফুল’কে হয়তো এখনো মাফ করতে পারিনি যেমনটা পারেনি ইন্ডিয়ান জনগণ ‘আজহারউদ্দিন’কে, কিন্তু এই দুই মানুষই তাদের সারাটা জীবন লড়ে গেছে নিজের দেশের জন্য, দেশের মানুষের সম্মানের জন্য। তখন সারা দেশের মানুষ তাদের পাশে ছিল, তাদের প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিল সবাই কিন্তু হঠাৎ একটি ভুল আর সব কিছু এক নিমিষেই শেষ। যারা এতদিন তাদেরকে নিজেদের দেবতা বলে মেনে এসেছিল আজ তারাই তাদেরকে নামিয়ে দিয়েছে সর্ব নিম্ন স্তরে। বিতর্ক, সমালোচনা, স্ক্যান্ডাল দ্বারা মিডিয়া শেষ করে দিয়েছে তাদের জীবনটাকে। কিন্তু কেউ কখনো জানতে চায়নি, কেন তারা এমন ভুল করলো ? কে বা কাদের কবলে পড়ে, কোন পরিস্থিতিতে পড়ে তাদের মত স্বনামধন্য ব্যক্তিরা এই ভুল পথে পা দিতে বাধ্য হল ? এর পিছনে আসলে কারা দায়ী ? এই ঘটনার পিছনে আসলে কি হয়েছিল ? প্রকৃত সত্যটা আসলে কি ? মিডিয়াতে যা দেখানো হয় তাই কি প্রকৃত সত্য ? কেউ জানতে চায়নি। সেই সকল মানুষ যারা এক নিমিষেই দেবতাকে নামিয়ে দিতে পারে শয়তানের স্তরে, ভুলে যেতে পারে একজন মানুষের সারা জীবনের ত্যাগ ও অবদান, একটি মাত্র ভুল দ্বারা বিচার করতে পারে একজন মানুষের গোটা জীবনকে তাদের প্রতি ‘আজহার’ একটি প্রকৃত জবাব স্বরুপ। সব শেষে, ‘আজহার’ মুভির একটি ডায়লগ দ্বারা শেষ করতে চাই,
“সকলের জানা উচিত, ইন্ডিয়াতে ক্রিকেটের নামে আসলে কি কি হয়।”… !!!
Emraan-Hashmi-First-Look-in-a-Azhar-HD-Movies-Poster
 
‘আজহার’ মুভির ট্রেলার লিঙ্ক :-
 
https://www.youtube.com/watch?v=YGf8j9Fxn4w

Azhar (2016)
Azhar poster Rating: N/A/10 (N/A votes)
Director: Anthony D'Souza
Writer: Rajat Arora (story)
Stars: Emraan Hashmi, Atul Sharma, Lara Dutta, Prachi Desai
Runtime: N/A
Rated: N/A
Genre: Biography, Sport
Released: 13 May 2016
Plot: Indian biographical sports film directed by Tony D'Souza based on the life of the former Indian international cricketer, Mohammad Azharuddin. It will star emraan hashmi in the lead role ...

এই পোস্টটিতে ৫ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. So basically its a movie about someone who was a looser both in professional aand personal life?? …. sorry not interested. :v

    • Vai mind korben nah. Ami nije kono bollywood movie jodio dekhi nah. But apnar kotha ta ami grohon joggo mone korchi nah. Arrogance is not a good attitude. We have lot of things to learn from a looser. We can improve the areas where he have done the things wrong just only by seeing him. But not living his life. Any way he is a human being. And every human make mistakes. Thats what i belive. There is always something to learn from a looser brother. PLEASE DONT TAKE IT PERSONALLY. THANKS

    • Listen brother ami apnar moto otota classy na tai kisu hindi movie dekhi. Somossa hoilo giya, you will watch this movie to learn and know something, but all u will get is some song is slapped on the face of a missinformative। overdramatized plot which is far far away from the real story. তাই এটাকে এরোগেন্স না বলে ক্ষোভ ও বলতে পারেন। If you really want to watch something and learn watch Airlift, Wazir and…. there are so many…. I hope u watched them already…. but if u are planning to watch azhar, plz don’t, coz I think ur time is also valuable

    • অনির্বাণ অনিক অনির্বাণ অনিক says:

      আপনি আজহার না দেখেই কিভাবে বলে দিলেন যে এই মুভিতে কিছু গান আর ওভারড্রামাটাইজ প্লট ছাড়া আর কিছুই নেই ? আপনি যে ওয়াজির ও এয়ারলিফট মুভির উদাহরণ টানলেন, ওয়াজির তো কোন সত্য ঘটনা অবলম্বনে বানানো নয় আর এয়ারলিফট মুভিতে সত্য ঘটনাটাকে মুভির মূল ব্যক্তির নাম পরিচয় এবং অনেক ঘটনা চেঞ্জ করে ইন্ডিয়ান ড্রামাটিক স্টাইলে নাচ গান দিয়ে দেখানো হয়েছে। সেই খবর কি আছে আপনার ? আর আজহার মুভির স্ক্রিপ্ট স্বয়ং আজহারউদ্দিন দেখে সিলেক্ট করে তবেই এই মুভির কনট্রাক্টে সাইন করেছে তাই এখানে আপনি কোন লজিকে বলেন যে এই মুভির গল্প সত্য থেকে অনেক দূরে অবস্থান করবে ? লজিক দিন। কেন, ভাগ মিলখা ভাগ, ম্যারি কম, পান শিং তোমার এগুলো ড্রামাটিক ও গানে ভরপুর ছিল না ? ভাগ মিলখা ভাগ তো পুরোটাই ড্রামাটিক তাই বলে কি সেই মুভি গুলো সত্য থেকে সরে গেছে ? আগে মুভিটা ভাল করে দেখুন তারপর এসব কমেন্ট করুন। আন্দাজে মুভি না দেখেই কোন কমেন্ট করবেন না।

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন