মুভি রিভিউ – শাইলোহ (১৯৯৬) : কুকুরের প্রতি মমত্ববোধের অসাধারণ একটি সিনেমা
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

MPW-37769

১৯৯১ সালে ফিলিস রোনালড নেইলরের উপন্যাস ‘শাইলোহ’-কে ১৯৯৬ সালে সিনেমায় রূপ দেন পরিচালক ডেল রোজেনব্লুম। প্রথম ছবির জনপ্রিয়তার পর পরিচালক পরবর্তীতে আরও দুইটি সিকুয়াল নির্মাণ করেন। তবে আজকের আলোচনা শুধুমাত্র সিরিজের প্রথম ছবিটি নিয়ে।

 

শাইলোহর কাহিনী আবর্তিত হয় শাইলোহ নামের এক কুকুরকে ঘিরে যে কিনা তার মনিব জাডের কাছ থেকে নির্যাতিত হয়ে পালিয়ে আসে। পথিমধ্যে দেখা হয় মারটি নামের এক কিশোরের সাথে। তার পিছু নেয় শাইলোহ। শাইলোহর প্রতি মমতা বোধ করে মারটি। নিজের কাছে রাখতে চায় সে শাইলোহকে। কিন্তু বাড়িতে কুকুর পুষে খরচ বাড়াতে নাকচ করে মারটির বাবা। এদিকে কুকুরটা যে এলাকার জাডের তা জানতে পেরে মারটির বাবা কুকুরটা জাডকে হস্তান্তর করে। সুযোগ পেয়ে শাইলোহ আবার পালায় এবং মারটির কাছে ফিরে আসে। মারটি নিজের কাছে রাখতে চায় শাইলোহকে। নিজের বাড়িতে রাখার অনুমতি পাবে না বলে বাড়ির অদূরে এক পরিতাক্ত ঘরে রাখে শাইলোহকে। এরপরের কাহিনী আর বলছি না। কাহিনী জানতে দেখতে হবে ‘শাইলোহ’ সিনেমাটি।

 

১১০ মিনিট ব্যাপ্তি ছবিটির কাহিনী যে অসাধারণ তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। সময়ের সাথে তুলনা করলে ক্যামেরার কাজ ছিল ভালোই। সকলের অভিনয়ও নজরকাড়ার মত, বিশেষ করে ছোটদের চরিত্রগুলোর অনবদ্য অভিনয় চোখে লেগে থাকার মত।


মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন