মুভি রিভিউঃ Desert Dancer

dancerইরানের প্রেক্ষাপটে সত্য ঘটনার অবলম্বনে নির্মিত ছবিটির নাম Desert Dancer । আফশিন ঘাফারিয়ান নামের এক তরুণ সেই ছোটবেলা থেকেই স্বপ্ন দেখে নৃত্যশিল্পী হওয়ার। কিন্তু দেশে সেইরকম কোন সুযোগ না থাকায় সেইভাবে আর শেখা হয়ে ওঠে না নাচ। ইন্টারনেটে ভিডিও দেখে দেখে নাচ শেখে আফশিন আর তার নাচ পাগল কিছু বন্ধু।
সময়টা ২০০৯ সাল। ইরানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে দেশটিতে চলছিল অস্থিরতা। আর তার জন্য দেশে জনসাধারণের জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার বন্ধ করে দেওয়া হয়। আর তাই আফশিন এবং তার বন্ধুরা আর ভিডিও দেখে নাচ শিখতে পারে না। কিন্তু থেমে থাকেনা তাদের নাচ। মাঝে যদিও রাজনৈতিক বেড়াজালে বন্দি হয়ে তাদের নানা ধরণের সমস্যার সম্মুখিন হতে হয়। কিন্তু সব অন্তরায় পেরিয়ে তারা পৌঁছে যায় সফলতার স্বর্ণ শেখরে।
বলা বাহুল্য ৯৮ মিনিট ব্যাপ্তি ছবিটির কোরিওগ্রাফার করেছেন বাংলাদেশী বংশদ্ভুত আকরাম খান। ছবিটির পরিচালক রিচারড রেমনড এর আগে বেশ কিছু স্বল্পদীর্ঘ চলচ্চিত্র নির্মাণ করলেও Desert Dancer তার প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ চলচ্চিত্র। পরিচালনার দিক থেকে পরিচালককে দশে নয় দেওয়া যায় সহজেই। চলচ্চিত্রটিকে বাস্তবধর্মী করতে একটুও কার্পণ্য করেননি পরিচালক। চলচ্চিত্রের প্রধান চরিত্র আফশিনের ভুমিকায় অভিনয় করা রেসে রিটচে সহ সবার অভিনয়ই প্রশংসা পাওয়ার দাবিদার। নৃত্যশিল্পী চরিত্রে যারা ছিলেন তারা সবাই পূর্বে নাচের সাথে যুক্ত। কিন্তু ইলাহে চরিত্রে অভিনয় করা ভারতীয় বংশদ্ভুত ফ্রিদা পিনটোর কোন পূর্ব ধারণা ছিলনা নাচের ব্যাপারে। কিন্তু চরিত্রের প্রয়োজনে দুই সপ্তাহ যাবত প্রতিদিন আট ঘণ্টা নাচ অনুশীলন করেছেন।
ইংল্যান্ডের এই ছবিটি ২০১৪ সালের জুলাইতে প্রথম মুক্তি পায় জার্মানিতে। পর্যায়ক্রমে এটি ইটালি, হংকং এবং যুক্তরাষ্ট্রে মুক্তি দেওয়া হয়।

(Visited 60 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১টি মন্তব্য করা হয়েছে

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন