অসাধারণ নাচের সিনেমা ‘এবিসিডি ২’

সিরিজের প্রথম সিনেমা এবিসিডি ছিল ড্যান্স সিনেমা। থ্রিডি সিনেমা। এবার সিরিজের দ্বিতীয় সিনেমার ক্ষেত্রে মজাটা কম নয়। এই সিনেমাও দেখতে আপনাকে চোখে লাগাতে হবে থ্রি ডি চশমা। কিন্তু আপাতত থ্রিডি চশমা ছাড়াই দেখে ফেললাম কোরিওগ্রাফার-পরিচালক রেমো ডি’ সুজার নাচের ছবি ‘এবিসিডি ২’। ছবিতে প্রধান ভূমিকায় অভিনয় করেছেন বরুণ ধাওয়ান, শ্রদ্ধা কাপুর ও প্রভুদেবা।
২০১৩ সালের ব্যবসাসফল ছবি ‘এবিসিডি : এনিবডি ক্যান ড্যান্স’-এর সিক্যুয়েল হিসেবেই এসেছে ‘এবিসিডি ২’। পরিচালনা করেছেন যথারীতি ভারতের অন্যতম সেরা কোরিওগ্রাফার রেমো ডি সুজা।
এবিসিডি-২ সিনেমার ট্রেইলারে কিছুটা ঝলক দেখা গিয়েছিলো। ট্রেইলারেরই জানিয়েছিলেন নাচের ধামাকা নিয়ে বলিউড মাতাতে তৈরি বরুণ ধাওয়ান-শ্রদ্ধা কাপুর। শুধু তারা নন দলীয়, একক গানেও অন্যান্য কলাকুশলীদের পারফরম্যান্স প্রাণবন্ত। সিনেমাতে অন্যান্য চরিত্রে যারা অভিনয় করেছেন তারা প্রত্যেকেই প্রফেশনাল ড্যান্সার ফলে বিভিন্ন ধরনের নাচ আর কসরতের জন্য নিজেদের বেশ আলাদাভাবে গড়ে তুলতে হয়েছে নায়ক-নায়িকা বরুণ ও শ্রদ্ধাকে। নাচ শেখার কড়া ট্রেনিং নিয়েছেন তারা। যার চিত্র দেখতে পাবেন সিনেমায়। তবে অন্যান্যদের অসাধারণ নাচের ভিড়ে আলাদাভাবে প্রশংসা করা যাবে না তাদের। আমি বলবো গ্রুপের অন্যান্য ডান্সাররাই বরং কয়েকবার অসাধারণ নাচের ঝলক দেখিয়েছেন।
এবার গল্পের দিকে যাই। গল্পের শুরুতেই দেখানো হয় একটি ভারতীয় ডান্স কম্পিটিশনকে। সেখানে ফিলিপাইনের একটি দলকে নকল করে ডান্স পরিবেশন করে শ্রদ্ধা ও বরুনের টিম মুম্বাই স্টানার্স। ফলে তাদেরকে নকল করার অপরাধে ঐ কম্পিটিশন থেকে বাদ দেওয়া হয়। টিমের সকলকে চিটার উপাধী দেয় সারা দেশ। কিছু সদস্য দল ছেড়ে চলে যায়। সকলে নানা জায়গায় চিটার গালি শুনতে থাকে। তখন বরুন খোঁজ পান লজ ভেগাসে ওয়ার্ল্ড হিপহপ কম্পিটিশন হবে তিনমাস পর। সবাইকে জানালে তারা প্রথমে রাজি হননি কেউ। কিন্তু তাদের সবাইকে একসময় রাজি করান বরুন। তখনই বরুন খোঁজ পান বিঞ্চু স্যার রুপী প্রভুদেবাকে। তার নাচ দেখে মুগ্ধ হয়ে বরুন তাকে অনুরোধ করে তাদের এই কম্পিটিশনের জন্য কোরিওগ্রাফ করানো জন্য। প্রভুদেবা রাজি হননি। সবাই মিলে অনুরোধ করে। তারপরও রাজি হননি। একসময় রাজি হন। লজ ভেগাসের কম্পিটিশনে যাওয়ার জন্য তাদের স্থানীয় কম্পিটিশনে পার্টিসিপেট করতে হয়। সেখানে চিটার হিসেবে প্রথমে ডিসকোয়ালিফাই করলেও পরবর্তীতে সুযোগ দেওয়া হয় এবং তারা চ্যাম্পিয়ন হন এবং লজ ভেগাসে যান সকলে। সেখানে নানা দলকে হারিয়ে প্রথম রাউন্ড পার হন তারা। পরের রাউন্ডের আগে চোট লাগে শ্রদ্ধার পায়ে। তখন তারা খুঁজে পান ‘ঝালাক দিখলাজা’ খ্যাত লরেনকে। এই রাউন্ডেও জিতে যান তারা। পরের রাউন্ডে যাওয়ার আগে আয়োজকদের টাকা দেওয়ার সময় দেখা যায় টাকা বহনকারী প্রভুদেবা নেই। সিনেমার চমক এখানে। দেখানো হয় প্রভুদেবা মূলত এদের সাহায্যের জন্য লজ ভেগাসে আসেননি। এসেছেন মূলত নিজের ছেলেকে দেখতে।  তার ছেলের সাথে তার যখন দেখা হয় সে ওয়ার্ল্ড হিপহপ কম্পিটিশনের কোরিওগ্রাফার হিসেবে তাকে চিনতে পারে। তখন প্রভুদেবা আবার ফিরে যান ‘ইন্ডিয়ান স্টানার্স’-দের কাছে। তারা হারিয়ে দেন ফিলিপাইনের সেই দলকে যাদের নকল করার কারণে চিটার উপাধি পেতে হয়েছিল তাকে। অবশেষে ফাইনালে পৌছে যায় দলটি। এরমাঝে শ্রদ্ধা ও বরুণের মধ্যে লরেনের ঢুকে যাওয়া এবং অবশেষে শ্রদ্ধা-বরুণের প্রেমে স্বীকারোক্তি প্রেমে সামান্য আব্হ নিয়ে আসে। আর ফাইনালে কি হয় তা জানুন সিনেমা দেখেই।
ডান্স সিনেমা হিসেবে পুরো সিনেমায় ডান্সের কোন অভাব নেই। অসাধারণ নাচ থ্রিডিতে দেখলে যে আরও ভাল লাগবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সিনেমার একটি ভাল দিক নায়ক-নায়িকাকে অতিরিক্ত দেখানোর চেষ্টা করা হয়নি। কিছু কিছু অসঙ্গতি চোখে পড়লেও ওভারঅল সিনেমাটিকে ভালোর কাতারেই ফেলতে হবে।
মুক্তির পরপরই ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বরুণ-শ্রদ্ধা জুটির নাচ নির্ভর সিনেমাটি। বক্স অফিসে রেকর্ড গড়ে যাত্রা শুরু করেছে। এ বছরে এখন পর্যন্ত প্রথম দিনের আয়ের শীর্ষে রয়েছে এবিসিডি ২ সিনেমাটি। এতদিন প্রথম দিনের সর্বাধিক আয়ের শিরোপাটি ছিল গাব্বার ইজ় ব্যাক এর দখলে। ওপেনিং ডে-তে ১৩.০৫ কোটি টাকা ঘরে তুলেছিল সিনেমাটি। তারপরেই ছিল দিল ধাড়কানে দো।  ১০.৫৩ কোটি। কিন্তু সে সব টপকে এবিসিডি ২ প্রথম দিনে ব্যবসা করেছে ১৪.৩০ কোটি। শুধু ভারতে নয়, ভারতের বাইরেও সিনেমাটি ভালো ব্যবসা করছে বলে জানা গেছে।
ছবিটির মুক্তির আগে খানিকটা সমালোচনা হলেও জবাবটা ভালোই হল ডেভিড পুত্রের। দিনশেষে স্বস্তির শ্বাস ছেড়ে খোলামেলা কথাও বলেছেন বলিউড হাঙ্গামায়। একটু চড়া গলায় বলেছেন, ‘সত্যি বলতে আমি ছবির গল্পটা শুনেই এর প্রেমে পড়েছি। আর সমালোচনা করার অধিকার সবারই আছে। কিন্তু কিছু কিছু সমালোচক জানেনই না কতটুকু বৈধ আর কতটুকু নয়।’
তবে মুক্তির পর মন ভিজেছে সমালোচকদের। এনডিটিভির সমালোচনায় শৈবাল চট্টোপাধ্যায় লিখেছেন, ছবির প্রধান চরিত্রগুলোতে একমাত্র শ্রদ্ধাই প্রফেশনাল নাচিয়ে নন। তবুও ছবিতে তার মিশে যাওয়াই মন গলানোর মতোই।
গানগুলোর সবগুলোকে ভাল বলা না গেলেও ‘বেজুবা’ গানটি সুপার হিট। রেমো ডি সুজার সিনেমায় কোরিওগ্রাফির কথা নাই বললাম। সর্বোপরি তরুণদের জন্য এবং ডান্স প্রেমিদের জন্য একটি পারফেক্ট সিনেমা ‘এবিসিডি ২’।

Any Body Can Dance 2 (2015)
Any Body Can Dance 2 poster Rating: N/A/10 (N/A votes)
Director: Remo
Writer: Mayur Puri (dialogue), Remo
Stars: Shraddha Kapoor, Varun Dhawan, Lauren Gottlieb, Prabhudheva
Runtime: N/A
Rated: N/A
Genre: Musical
Released: 26 Jun 2015
Plot: Two guys go to Mumbai to fulfill their dreams.

(Visited 264 time, 1 visit today)

এই পোস্টটিতে ১০ টি মন্তব্য করা হয়েছে

  1. Masbah Arman says:

    ager ta valo chilo ,,,but eta commercial hoise ,,,

  2. AH Robin says:

    Step up এর আদলে বানানো

  3. Copy Jinia dhur sala kono natunatto nai.. sob step e compu
    …but kisu indian old dances chara

  4. Ehsan Mir says:

    The hero is a shame to the industry.Just watch ‘Badlapur’ how pathetically he ruined the movie.

  5. Golam Kibria says:

    ABCD ও 3D ছিল আর ইন্ডিয়ার প্রথম 3D মুভি হল Haunted

  6. আহসান রনি আহসান রনি says:

    আপনি ঠিক। আমি এক জায়গা থেকে ভুল তথ্য পেয়েছিলাম। তবে ফার্স্ট থ্রি ডান্স মুভি কিন্তু এবিসিডি। ধন্যবাদ।

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন