ক্যান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল—২০১৮
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

Shoplifters (2018)

শেষ হোলো ১২ দিন ব্যাপী চলা পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র উৎসব ৭১তম ক্যান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল। সিনেমার মক্কা বলে বিবেচিত ক্যান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল নিয়ে আলোড়ন থাকে সারা বিশ্বব্যাপী। কলাকুশলী থেকে শুরু করে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির তাবৎ রথী–মহারথীদের সমাগম হয় এখানে। এক্‌সেন্ট্রিক এই ফেস্টিভ্যাল যেন এই পৃথিবীর মাঝে আরেকটা মিনিয়েচার পৃথিবী—যার নিজস্ব রীতিনীতি, আদব–কায়দা রয়েছে।

 

চলচ্চিত্রের সবচেয়ে বড় এই আসরের মেইন সেকশন ‘ইন কম্পিটিশন’ এর বিজয়ীদের ঘোষণা হয়েছে ফেস্টিভ্যাল সমাবর্তনি অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে। বিশ্বের সর্বোচ্চ সম্মাননা পাওয়া এই বিজয়ীরা হলেন—

 

Palme d’Or: ‘Shoplifters’—Hirokazu Kore-eda

Grand Prix: ‘BlacKkKlansman’—Spike Lee

Director: Pawel Pawlikowski—’Cold War’

Actor: Marcello Fonte—’Dogman’

Actress: Samal Yeslyamova—’Ayka’

Jury Prize: Nadine Labaki—’Capernaum’

Screenplay — TIE: Alice Rohrwacher—’Happy as Lazzaro’ & Jafar Panahi, Nader Saeivar—’3 Faces’

Special Palme d’Or: Jean-Luc Godard

 

এই শতাব্দীতে ২য় বারের মতো এশিয়ান কোন ফিল্ম ক্যানের সর্বোচ্চ সম্মান সূচক পুরষ্কার পাম দ’র জিতলো! থাই ফিল্ম Uncle Boonmee Who Can Recall His Past Lives ১ম এশিয়ান সিনেমা যা ২০১০–এ পাম দ’র জেতে।

 

জাপানিজ স্বনামধন্য ফিল্মমেকার হিরোকাজু কোরেডার ‘শপলিফটারস’ সারপ্রাইজ বিজয় হিসেবে বিবেচিত। তার দুর্দান্ত সব প্রিভিয়াস ফিল্মের জন্য অবশ্য তিনি ক্যান–ফেভারিট বহু আগে থেকেই। টানা ৬ বছর ক্যানে নিয়মিত এই পরিচালকের Like Father Like Son, Nobody Knows, I Wish এর মুগ্ধতা সহজে কাটানো অসম্ভব!

 

স্পাইক লি তার ‘ব্ল্যাকক্লানসম্যান’ নিয়ে ফেস্টিভ্যাল পুরো ফাটিয়ে দিয়েছেন এবার! মরিয়া হয়ে অপেক্ষা করছি এটা দেখবার জন্য। ক্যারিয়ারের উত্তাল সময়ে সিনেমাটা পরিচালকের জন্য নোঙ্গর সমান বলে প্রতীয়মান হয়েছিল। এবং সকল জল্পনা–কল্পনা, বাঁধা–বিপত্তি পেরিয়ে অবশেষে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা পুরষ্কার অর্জন করে নিয়েছেন।

 

অস্কারজেতা ‘Ida’–পরিচালক পাভেল পাভলিকোভস্কি এতগুলো বছর বাদে ফিরেছেন ক্যানে এবং সেরা পরিচালকের পুরষ্কারটা ঠিকই বাগিয়ে নিলেন!

 

গৃহবন্দী জাফর পানাহি আবারো ক্যানে স্বীকৃতি পেলেন ‘৩ ফেসেস’ এর জন্য। জাফর পানাহি আর তার সিনেমার প্রতি ভালবাসার নিদর্শনের কথা কেই না বা জানে। নিজ দেশের সরকারের চাপের মুখে পেনড্রাইভে করে ক্যানে ফিল্ম প্রিমিয়ার করার ইতিহাস তো আর কারো নেই, তাই না! পুরষ্কার জেতা এ সিনেমার জন্যও তো কম ঝামেলা সহ্য করতে হলো না। নিজে গাড়িতে লুকিয়ে থেকে সিক্যুয়েন্স শট ক্লিয়ার করে বুঝিয়ে দিয়ে চুপি চুপি অত্যন্ত স্বল্প ইক্যুপমেন্ট দিয়ে নির্মাণ করা এই সিনেমাও আরেকটা বড় উদাহরণ।

 

২০০৪ থেকে ক্যানে না আসা মায়েস্ত্রো জঁ-লুক গদার জিতেছেন বিশেষ পাম দ’র!

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন