The Doors (1991) ____ সাইকাডেলিক রকের কিংবদন্তী জিম মরিসনের গল্প
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

||
প্রয়াত জিম মরিসন, কিংবদন্তী রক সিঙ্গার এর ব্যান্ড দলের নাম “The Doors” মরিসনকে স্মরন করা হয় প্রকৃতপক্ষে ওর “Psychedelic rock” এর জন্যে। বিশেষ এই ক্ষেত্রে ওর প্রতিযোগী পাওয়া মুশকিল। ‘৬০-এর দশকে ওর জনপ্রিয়তা এত ব্যাপকভাবে বিস্তৃত হয় যে, ধরে নেওয়া হত ও চাইলে নতুন কোন রিলিজিয়নও গড়ে তুলতে পারত। নতুন কোন গোষ্ঠি যাদের জীবনীশক্তি হত “Psychedelic Rock” মরিসন নিজে মহাপাগল ছিল আর ওর ফ্যানরা সমসাময়িক কাল থেকে এখন পর্যন্ত পাগল। ওর এই বিশেষ Genre-এর গানের লিরিক যেমন ছিল ভিন্নধর্মী তেমনই ওর পারফর্মও ছিল পুরোই অন্যরকম। মরিসনের গানের আরেকটা উল্লেখযোগ্য দিক ছিল, ও পারফর্ম করার সময় “কথিত শব্দ” দিয়ে পোয়েট্রি করত যা শুনে শুধু স্তব্ধ হয়ে যাওয়া ছাড়া কোন উপায় ছিল না। জিম মরিসন এমন-ই ধরনের সিঙ্গার ছিলো যে ওর সমাধিফলকে “রকস্টার” না দিয়ে “পোয়েট” খোদাই করা হয়েছিল


“The Doors (1991)” মুভিটাতে মরিসনের ব্যান্ড গঠন থেকে মৃত্যু পর্যন্ত জীবনের দিকগুলো আলোকপাতের চেষ্টা করা হয়েছে। তবে তুলনামূলক আলোচনা করলে মরিসনের ২৭ বছরের ছোট্ট জীবনের ব্যাপকতার কাছে এই মুভিটা সামান্য জলকণা ছাড়া আর কিছুই না। তবুও যতটুকু দেখানো হয়েছে তা থেকেই এইটাকে অসামান্য মুভি বলা যায়। মুভির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দিক হল ব্যাক-মিউজিক। উফফফ শুনতে শুনতে হারিয়ে যাচ্ছিলাম। নতুন ধরনের পৃথিবীর সন্ধানে ছুটতে ছিলাম মনে হচ্ছিল, অবশ্য মরিসন সাথেই ছিল। সংলাপের যে ভিন্ন ধরনের মিশ্রণ ছিল তা উল্লেখ করার মত। সংলাপের তীব্রতা, যন্ত্রনা, ভাল লাগা; উফফফ নেশাগ্রস্থ করার জন্য যথেষ্ট।

দু’টো কো’ট করি এই ফাকে,
“All the poems have wolves in them, all but one. The most beautiful one of all. She dances in a ring of fire and throws off the challenge with a shrug.”

“Choose, they croon, the ancient ones. The time has come again. Choose now, they croon, beneath the moon, beside an ancient lake. Enter again the sweet forest. Enter the hot dream, come with us. Everything is broken up and dances.”

মরিসনের চরিত্রে Val Kilmer ছিল পুরো পারফেক্ট। আমি জানিনা ও কেমন ফিল করেছে এই চরিত্রে অভিনয় করে, তবে আমার নিজস্ব অভিমত এই চরিত্রে ও যেমন ছিল তা দিয়ে বাকি লাইফটা পার করে দেওয়া যায় অনায়াসে।

মুভিতে মরিসন এটাই শিক্ষা দেয় “We are all, all is one” জীবনের বৃত্তের গন্ডীতে আবদ্ধ না হওয়ার জন্যে ওর যে চেষ্টা, আমি মুগ্ধ। বিন্দুর বাইরেও কিছু আছে। সময়ের চাকা যেহেতু থামবে না, সময় থাকতেই সময়ের পূর্ন ব্যবহার করা উত্তম। যে সুতোয় পুরো মহাবিশ্ব গাথা তার এই ছোট্ট অংশের উপাদান হয়ে ছোট্ট সমস্যাকে কতটুকুই প্রায়রিটি দেওয়া উচিত বুঝে নেওয়া সম্ভব অন্তত মুভিটা দেখে। ব্যাপকতার সাথে নিজেকে ব্যাপকভাবে মিশ্রিত করা, বিস্তীর্নতার সাথে বিস্তৃত হওয়া, বৃত্তের বাইরে বের হওয়া আদপেই কি সম্ভব? :/

People Are Strange__ জিমের চরম একটা গান, মুভির মধ্যে সেভাবে খুঁজে নিতে একটু কষ্ট হতে পারে তাই আলাদা করে লিঙ্ক দিচ্ছি। অদ্ভুত মানুষদেরকে নিয়ে করা বেস্ট সাইকাডেলিক রক আমার কাছে এটা।

মুভি ডাউনলোড লিঙ্ক => ৭২০পি ব্লুরে ৯৫০মেগা

 

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন