La Haine (1995) ____ এক ঘৃণার জন্ম ও পরিণতি

||
সকাল ১০.৩৮, শুরু হল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তি ফ্রান্সের একটা পল্লী এলাকার তিনটা যুবক Vinz, Hubert, Sayid কে কেন্দ্র করে বেড়ে ওঠা “La Haine” মুভিটা। ‘La Haine’ কথাটার অর্থ ‘Hate’ বা ‘ঘৃণা’, এই নামটা এসেছে Hubert-এর “Hatred Breeds Hatred” এই লাইন থেকে। ঘৃণা জন্ম দিচ্ছে ঘৃণার! কিসের ঘৃণা? কেনই বা এমন? যুদ্ধ পরবর্তি সময়ে তৎকালীন সময়ের আর্থ-সামাজিক অবস্থার প্রেক্ষিতে মানুষের সাইকোলজিক্যাল অবস্থানের কথা চিন্তা করলে কিছুটা আন্দাজ করা যায় এই ঘৃণার উৎস। যুদ্ধপরবর্তি নিওরিয়েলিজম খুব ভাল করে দেখানো হয়েছে মুভিটিতে। পরবর্তি দিন সকাল ৬.০২___ দেখা হয়ে গেল, বোঝা হয়ে গেল ঘৃণার পরিসমাপ্তি। প্রায় উনিশ ঘন্টার তিন বন্ধুর জীবনকে ১.৩৮ ঘন্টার ফ্রেমে যেভাবে ধারণ করা হয়েছে সেটা প্রশংসার ঊর্ধ্বে। বন্ধুত্ব, ঘৃণা, অপরাধ, অনুশোচনা, নিয়তি এই পাঁচের এক অসাধারণ মিশ্রণ মুভিটি।

গল্পের প্লটটা এমন, জাতিগত বিদ্বেষ, মাদক দ্রব্যের অবাধ পদচারণা, রাজনৈতিক কোন্দল-দাঙ্গা এসবের মধ্যে বেড়ে উঠা এই তিন যুবকের দৈনন্দিন জীবনে পরিবর্তন এলো যখন এরকম একটা দাঙ্গায় পুলিশের প্রহারে মারাত্মকভাবে আহত হয় তাদের বন্ধু ‘Abdel’, হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়ছে সে। বন্ধুর সাথে দেখা করতে যাবারও কোন উপায় নেই, কতৃপক্ষের কড়া নিষেধ। ঘটনাক্রমে পুলিশের একটা পিস্তল কুড়িয়ে পায় Vinz এবং প্রতিজ্ঞা করে যদি বন্ধু মারা যায় হাসপাতালে তাহলে সে পুলিশ হত্যা করবে। এর পরে কি হয় সেটা জানতে হলে দেখতে হবে মুভিটা।

প্রধান তিন চরিত্রের সাথে একটা সমাজের বিভিন্ন অংশের মানুষের প্রতীকী তুলনা দেওয়া যায়। সেটা এরকম,
Vinz___ একজন ক্রোধে উন্মত্ত মানুষের চরিত্র। সবসময়েই তার উগ্রপন্থী ব্যবহারটা সমাজের এক অংশের প্রতীক।
Hubert___ যুক্তিবাদী, ধীর-শান্ত স্বভাবের মানুষের প্রতীক। পরিস্থিতি বোঝার এবং সে অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়ার মতন সক্রিয় মানুষ।
Sayid___ সমাজের মধ্যমপন্থি মানুষের উদাহরণ। দুই ভিন্ন স্বভাবের মানুষের মাঝে যোগসূত্র স্থাপনকারী।

সমাজের বিদ্রুপার্থে মুভি থেকে নেওয়া এই উক্তিটা মনে রাখার মত,
“Heard about the guy who fell off a skyscraper? On his way down past each floor, he kept saying to reassure himself: So far so good… So far so good… So far so good. How you fall doesn’t matter. It’s how you land!”

আমি শুধু হাইলাইট করার চেষ্টা করেছি কিছু কিছু পয়েন্ট, তবে এমন ব্যাপক অর্থবহ মুভিকে এমন করে বুঝিয়ে দেওয়া আমার পক্ষে সম্ভব না এখনো। এমন চূড়ান্ত বিদ্রুপ, এমন তীক্ষ্ণ খোঁচা, চোখের পর্দা সরিয়ে দেওয়ার মত মুভি খুব কম দেখেছি। এটা একটা পিচ, বলতে গেলে ওয়ান অফ আ কাইন্ড।

ডাউনলোড লিঙ্ক => ৭২০পি ব্লুরে ৭০০মেগা

পূর্ব-প্রকাশঃ সামু

(Visited 42 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন