That Thing Called Tadhana নিয়ে কিছু কথা! (ফিলিপাইন ড্রামা)

তীর আর হার্ট এর গল্প হয়তো অনেকেই শুনেছেন বা না শুনে থাকলেও দেখেছেন। একটি তীর তার শলকার ভেতর একটি হৃদয় কে নিয়ে উড়ে বেড়াচ্ছে। কেও কেও বলে হৃদয় ফুটো করে তীর ঢুকে গিয়েছে। যে যেভাবে নিতে পছন্দ করে। গল্পটি অনেক টা এরকম-

“একদা একটি তীর বাতাসে ভেসে বেড়াচ্ছিলো, নিজের মত করে। কিন্তু হঠাৎ করেই সে তার শলকায় কিছু একটি ভারী কিছুর ভড় অনুভব করলো। সে অবাক হয়ে দেখলো তার শলকা দিয়ে একটি হার্ট অনুপ্রবেশ করেছে।

‘তুমি কোথা থেকে এসেছো?’ সে জিজ্ঞেস করলো
(কিন্তু কোনো উত্তর এলো না)
সে ভাসতেই থাকলো, একা একাই নিজেকে প্রশ্নগুলো জিজ্ঞেস করতে লাগলো, “তুমি কি হার্টটি হারিয়ে ফেলেছো?”

কিন্তু সে সেই হার্টটার মালিক কে খুঁজে পেলো না।
সে সিদ্ধান্ত নিলো হার্ট এর এই ভড় কে ইগ্নোর করেই সে যা করছিলো তাই করতে থাকবে,যে ভাবে আছে সেভাবেই থাকুক সব।

এভাবেই অনেক সময় পরে, সে সেভাবে আর ভড় অনুভব করতে লাগলো না, ভড় তার কাছে কম মনে হতে লাগলো। হয়তোবা সে ভড় নিতে নিতে অভ্যস্ত হয়ে পড়ছিলো, বা হার্ট টি তার ভড় নিজেই বয়ে বেড়াচ্ছিল। একদিন, হার্ট টি আস্তে আস্তে তীর টি থেকে বেরিয়ে এলো। তীর তো মহাখুশি, কারন তাকে আর হার্ট টিকে বয়ে বেড়াতে হবে না যে হার্ট টি তার ভেতর ঢুকে গিয়েছিলো। তো তীর তার নিজের রাস্তায় চলতে শুরু করলো কিন্তু সে একটা ব্যাপার ফীল করতে শুরু করলো! আর তা হচ্ছে, তার উপর এখনো কোনো একটা কিছু খুব ভড় প্রয়োগ করছে। কিন্তু সেই হার্ট টা তো তার শলকায় আর নেই তাহলে তো তার আর এমন বোঝা অনুভব করার কথা না। ধুর, তীর টি সব চিন্তা বাদ দিলো এবং তার নিজের লাইফ নরমাল ভাবে জাপন করা শুরু করলো।

কিন্তু কিছু একটা আলাদা, ডিফেরেন্ট কাজ করতে শুরু করলো। তীর টি বুঝতে শুরু করলো সে আর সেই পুরনো তীর টি নেই যে তীর টি সেই হার্ট টি অনুপ্রবেশ করার পূর্বে ছিলো। কিছু একটা যেন নেই, তবুও তীর বাতাসে ভেসেই চলল।

যতক্ষন না সে একটি খুব পরিচিত কণ্ঠ শুনতে পেলো, “তুমি কি তোমার হার্ট টিকে হারিয়ে ফেলেছো?”
এই সেই হার্ট যে তীরটির ভেতর অনুপ্রবেশ করেছিলো।
তীর কোনো উত্তর দিলো না, কারন তার সে উত্তর দেয়ার কোনো প্রয়োজন ছিলো না।”

“”তাদের জন্য যারা জীবনে সত্যি ভালবেসেছেন, হারিয়ে ফেলেছেন, আবার ভালবেসেছেন। সংক্ষেপে, তোমরা ইডিয়েট গুলা জানই ভালবাসার গল্প টা কি, তাইনা?””

1

মুভি নিয়ে বেশী কিছু বলবো না, যারা রোম্যান্টিক লাভার তাদের জন্য নতুন বোতলে পুরনো মদ টাইপ একটু লাগতে পারে গল্পটি তবে যেহেতু এটা একটি ফিলিপাইন ড্রামা সেহেতু সে হিসেবে সবই নতুন লাগবে, ভালো লাগবে, আলাদা লাগবে, আবেগিও লাগবে। “That Thing Called Tadhana ” মানে “That Thing Called meant to be.” মুভির গল্প নিয়ে একটা কিছুইও বলবো না যা দেখার, বোঝার, ফীল করার দেখে নিজে থেকেই করে নিবেন। বলবো নিজের আবেগের কথা অল্প কিছু শব্দে “অনেকদিন পর কোন গল্প এতোটা ছুয়ে দিলো, এতোটা ভালো লাগালো, অনুভুতি গুলোকে যেন শব্দহীন করে দিলো। মুভির একদম প্রথম দৃশ্য থেকেই Angelica Panganiban মানে নায়িকা এর প্রেমে পড়ে গিয়েছিলাম, আর JM de Guzman নায়ক হিসেবে যথেষ্ট চার্মিং এবং অভিনেতা হিসেবেও খুব ভালো একজন অভিনেতা। দুজনের অভিনয়ের কেমেস্ট্রি এবং গল্পের গভীরতা সব মিলিয়ে মনে হয়েছিলো আমিও হারিয়ে গিয়েছিলাম কোনো এক ভ্রমনে যেখানে কোনো এক পাহাড়ের দেশে খুব ভোরে যখন একটি খুব ডাম্ব আর আবেগি মেয়ে আমার সামনেই তার নিজের এক্স বিএফ এর বেদনায় গলা ফাটিয়ে কান্না করছিলো, যে চিল্লানোর প্রতিধ্বনি পাহার গুলো হয়ে আবার ফিরে আসছিলো, সেখানে যেন নিজের দুখ-কস্ট-বেদনা একদমই তুচ্ছ। তাকে নিজের বুকের এক কোণে মাথা রাখার জায়গা করে দেয়াই যেন তখন সব থেকে বড় কর্তব্য বা এই পৃথিবীর তথা ইউনিভার্স এর সব থেকে সঠিক কাজ। আচ্ছা ওটাকে কর্তব্য বলে না ভালবাসা?
এইতো, হ্যাঁ… সেইটাই মানে ঐটাকেই বলে That Thing Called meant to be।

13775347_1361466997215613_1428464363948175591_n
লেখাটি অন্য ভাবে লেখার ইচ্ছে ছিলো, মানে মুভিটির গল্প বা প্লট ধরে কিন্তু সে ক্ষেত্রে মনে হয়েছে আমি মুভিটি দেখার আসল মজা স্পয়েল করে দিতাম তাই নিজের লেখা কেই স্পয়েল করে আপনাদের কাছে মুভি দেখার মজা টা স্পয়লার ফ্রী করে দিলাম। 🙂

আর তীর- হার্টের যে গল্পটি বলেছি সেটা মুভির প্রথমেই স্ক্রিনে ভেসে উঠবে।

কস্ট করে রিভিও পড়লে মুভিও টি না হয় দেখে ফেলেন।
মুভি টি দেখতে চাইলে- (সাবটাইটেল সহ)
https://kat.cr/that-thing-called-tadhana-2014-hdrip-720p-x264-rsg-t12939483.html

13690830_1761919157384612_5985617159788409341_n

Error: No API key provided.

(Visited 159 time, 1 visit today)

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন