Zero Dark Thirty – ভাল, তবে দুর্বল লেখনীর কারনে বোরিং [Oscar winner 2012]
Share on Facebook0Share on Google+0Tweet about this on TwitterPin on Pinterest0

859775_10200304910962090_1089019239_o

অস্কারের নমিনেশানে ভরপুর , সত্য ঘটনা অবলম্বনে নির্মিত ঐতিহাসিক থ্রিলার Zero Dark Thirty শেষ পর্যন্ত একটা পরিপূর্ণ মুভি হিসেবে মন ভরাতে পারলোনা।

মুভিটি দেখার পেছনে ৩টি কারন – ১.জেসিকা  চ্যাসটেইন, যার এখন পর্যন্ত অভিনীত প্রায় সব কয়টা মুভি চরম। ২.পরিচালিকা ক্যাথরিন বিগলো তার প্রথম ছবির জন্য অস্কার পেয়েছেন। ৩. ওসামা বিন লাদেনকে ধরা নিয়ে কাহিনী।

SUB-24ZERO-articleLarge
৯/১১ এর পর অ্যামেরিকানদের লাদেন কে ট্র্যাক ডাউন করতে নানাবিধ টর্চার করা হয় বিভিন্ন মুসলিমদের। সেরকমই ইনটেনস একটা সিন দিয়ে শুরু হয় মুভিটি। কিন্তু আকর্ষণটা সম্পূর্ণভাবে ধরে রাখতে পারেনি দুর্বল লেখনী। অনেক বেশি কথাবার্তা – কাকে কাকে ধরতে হবে, কোথায় কার থাকার সম্ভাবনা আছে। এসবও চলত যদি ক্যারেক্টার ডেভলপমেনট ঠিক মত হত। পুরা মুভিতে আমরা মূল চরিত্র “মায়া” / জেসিকা চ্যাসটেইন সম্পর্কে শেষ পর্যন্ত ভাল করে তেমন কিছুই জানতে পারিনাই। প্রতিটা চরিত্রই যেন শুধু এই সার্চ এর অভিযানে একের পর এক এসে নিজেদের পার্টটুকু করে খাল্লাস। যদিও অভিনয় এর দিক থেকে সবাই দুর্দান্ত। কিন্তু লেখা ভাল না হলে কখনোই উপভোগ করা যায়না। এছাড়া আছে পরিব্যাপ্তি – ২ ঘণ্টা ২২ মিনিট অনেক বেশি।

zero-dark-thirty-2012-pic05

সব নেগেটিভ কথাবার্তা বলে ফেললাম একবারে। এবার পজিটিভে আসি। মুভিটার প্লাস পয়েন্ট – সিনেমাটোগ্রাফি, বেশ কিছু দাগ কাটার মত হাতে গোনা ৩/৪টা থ্রিলিং/শকিং অধ্যায়। আর উত্তেজনাপূর্ণ শেষ ৪০ মিনিট। সব সার্চ শেষে অবশ্যম্ভাবী ক্লাইমেক্স এর চিত্রায়ন এত জোস, যে মন্ত্রমুগ্ধের মত দেখা যায়।

এছাড়া অসাধারণ শব্দ নিয়ন্ত্রণের জন্য তো অস্কার জিতেছেই।

zero-dark-thirty-jessica-chastain

zero-dark-thirty-mark-strong1

zero-dark-thirty_810x1215

ZeroDarkThirty_620_011113
আমরা যারা আসলে কি হয়েছিল, না জেনে মুভি টা দেখবো, তারা শেষ পর্যন্ত আন্দাজ করতে থাকব, যে লাদেন কি ধরা পড়বে?? এতটুকুর জন্যই মুভিটা দেখা যায়। তবে অতিরিক্ত ডিটেইল রাখতে গিয়ে বোরিং করে ফেলেছে। সুতরাং যারা আমার মত আরেকটা Argo আশা করে দেখতে বসবেন, তারা হতাশ হবেন। কেননা, এটা এজ অফ দা সিট থ্রিলার না। সম্পূর্ণ ইনভেসটিগেটিভ থ্রিলার।

zero-dark-thirty-2012-pic07

 

 

শেষ এর দৃশ্যটা ভাবাবে। খটকা লাগলে এই পোস্ট টা পড়তে পারেন, ক্লিয়ার হয়ে যাবে –

http://www.imdb.com/title/tt1790885/board/nest/211669491?ref_=tt_bd_1

পরিচালক ক্যাথরিন বিগলো The Hurt Locker দিয়ে অস্কার জিতে আবারও একি পথে হাঁটতে ছেয়েছিলেন, কিন্তু এবার পারলেন না। আমি hurt locker দেখিনাই, তবে এটা দেখে খুব একটা উৎসাহ পাচ্ছিনা আর। তবে শুনেছি ওটা আর একটু হলিউডিশ , আর একটু উপভোগ্য। সুতরাং দেখা যায়।

সব মিলায় Zero Dark Thirty is a good movie, সবার দেখা উচিত। তবে স্লো মুভিতে যাদের সমস্যা, তাদের জন্য না।

মন্তব্য করুনঃ

You must be Logged in to post comment.

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন